৭ই ডিসেম্বর ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২২শে অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
‘যশোরে ২৪ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রীর জনসভায় ৫ লাখের বেশি লোকসমাগম হবে’
53 বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক :
সংসদ সদস্য শেখ হেলাল উদ্দীন বলেন, আগামী ২৪ নভেম্বর যশোরে আওয়ামী লীগের সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সমাবেশ জনসমুদ্রে রূপ নেবে। আওয়ামী লীগের এই জনসভা রাজনীতিতে বড় পরিবর্তন আসবে। এই জনসমুদ্রের ঢেউ দেখে দেশ থেকে পালাবে জামায়াত-বিএনপি।
সোমবার (৭নভেম্বর) বিকেলে জেলা পরিষদ মিলনায়তনে বৃহত্তর যশোর জেলা (যশোর, নড়াইল, ঝিনাইদহ ও মাগুরা) আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। প্রধানমন্ত্রীর সমাবেশের প্রস্তুতির অংশ হিসেবে এ বর্ধিতসভা অনুষ্ঠিত হয়।
তিনি আরও বলেন, শেখ হাসিনা বিশ্বনেত্রী। তাঁকে বিশ্বের বড় বড় রাষ্ট্রপ্রধানরা সম্মান করেন; তাঁর পরামর্শ গ্রহণ করেন। যশোরের মাটি শেখ হাসিনার ঘাঁটি। আমরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে ‘শয়তান’ বিএনপিকে দেশছাড়া করবো। আর এই জনসভায় যশোর স্টেডিয়ামে ৫ লাখের বেশি লোকসমাগম হবে।
তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় থাকলে দেশে উন্নয়নের জোয়ার হয়। বিএনপি ২০/৩০জন মিলে বন-জঙ্গলে মিটিং করে ফেসবুকে ছবি দিয়ে বলে বিশাল জনসভা করেছি। এই শয়তানি-ভণ্ডামি জনসাধারণ সব বোঝে। দলমত নির্বিশেষে সবাই মিলিত হয়ে শয়তানকে বিতাড়িত করতে হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাঙালি জাতির মায়ের দায়িত্ব পালন করছেন। দেশের জনগণের যখন যেটা প্রয়োজন; তখন সেটা দিয়ে যাচ্ছেন। জনগণ আওয়ামী লীগের পাশে আছে। শেখ হাসিনা আপনাদের আরও বেশি বেশি দেবেন।’
যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলনের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক (খুলনা বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত) কৃষিবিদ আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, ‘আওয়ামী লীগ কর্মীসভা করলে জনসভা হয়; জনসভা করলে জনসমুদ্রের রূপ নেয়। কিন্তু বিএনপি সমাবেশের ঘোষণা দিলে কর্মীসভার লোকও হাজির হয় না। ২০০১ সালে বিএনপি দেশের মানুষের শান্তি নষ্ট করেছে। তারা জ্বালাও পুড়াও করেছে। তারা পিতার সামনে মেয়েকে ধর্ষণ করেছে। তারা সংখ্যালঘুদের দেশছাড়া করে জায়গা জমি দখল করেছে। সাধারণ মানুষ কি চায় ? বুঝবে কি করে হানাদার বাহিনীর সহযোগী জামায়াত-বিএনপিরা। বাংলাদেশের মানুষ শেখ হাসিনার সরকারের সাথে আছে; তা প্রমাণ করে দেবে ২৪ তারিখের জনসভার মাধ্যমে।’
বিশেষ অতিথি সাংগঠনিক সম্পাদক (খুলনা বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত) বি এম মোজাম্মেল হক এমপি বলেন, বঙ্গবন্ধু স্বাধীনতাকে ছিনিয়ে এনেছে। সেখানে জিয়ার অনুসারীরা স্বাধীন দেশটাকে আবারও পাকিস্তানের হাতে তুলে দিতে চায়। খুনি জিয়ার বিএনপি শুধু হত্যা করতে জানে। তারা জনগণকে ভালোবাসতে জানে না। বিএনপি জনগণকে খেতে দিতে জানে না বরং খাবার কেড়ে খেতে জানে। আওয়ামী লীগের দিকে তাকিয়ে দেখলে বুঝতে পারবেন; আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর থেকে কৃষকের ঘরে ধান চাল ভরে গেছে। এখন আর সারের জন্য গুলি খেতে হয় না। কৃষকেরা এখন সময় মতো সার কিনতে পারে। মানবতার মা শেখ হাসিনা ঘরে ঘরে খাবার পৌঁছে দিচ্ছে।’
বিশেষ অতিথি আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন বলেন, ‘শকুনের দল বিএনপি আবারও চক্রান্ত করছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে। ২৫ মার্চ বাংলাদেশের মানুষের ওপরে হত্যাযজ্ঞ চালিয়েছিল পাকিস্তান। পাকিস্তানের অনুসারীরা ২০০১ সালে খুন-হত্যায় মেতে ওঠে। আবারও বিএনপি মাথা চাড়া দিয়ে উঠছে; এবার বুঝি ঘরে ঘরে রক্তের বন্যা বইয়ে দিতে চায় বিএনপি। বিএনপি’র সে বাসনা পূরণ হবে না। আওয়ামী লীগ সরকার আবারও ক্ষমতায় এসে দেশ ও জনগণকে রক্ষা করবে।’
সম্মানিত অতিথি বাগেরহাট-২ আসনের সংসদ সদস্য শেখ সারহান নাসের তন্ময় বলেন, বহু বছর পর মাঠের মুখ দেখেছে বিএনপি। আর মাঠে নেমেই ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে পাকিস্তানি অনুসারীরা। ষড়যন্ত্রকারিদের প্রতিহত করা হবে ২৪ নভেম্বর থেকে। বিএনপিকে আর মাঠে থাকতে দেয়া হবে না। তাদেরকে আবারও ঘরে তুলে দেয়া হবে। ২৪ নভেম্বরের সমাবেশ এক ঐতিহাসিক সমাবেশ হবে। এদিন যশোর শহরজুড়ে শুধু লোকগমগম করবে। সমুদ্রের চেয়ে বিশাল রূপ নেবে ২৪ তারিখের সমাবেশ।
যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার এমপি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সুখে দুঃখে সবসময় মানুষের পাশে ছিলেন, আছেন এবং থাকবেন। বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার আমলে কেউ না খেয়ে থাকবে না। কিন্তু বিএনপির আমলে মানুষ খাওয়ার জন্য অনেক কষ্ট করেছে। বর্তমান সময়ে খাবারের জন্য আর কারোর কাছে হাত পাততে হয় না। আওয়ামী লীগ যতদিন ক্ষমতায় থাকবে দুঃখী মানুষের মুখে ততদিন হাসি থাকবে। জনগণের মৌলিক অধিকার নিশ্চিত থাকবে।
ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য বলেন, পুঁটি মাছের মতো একটু পানি পেয়েই লাফালাফি করছে বিএনপি। বেশি লাফালাফি করেন না; আমরা মাঠে নামলে পালানোর পথ খুঁজে পাবেন না। প্রথম স্বাধীন জেলা যশোর । আর এই যশোর থেকেই আগামী নির্বাচনের প্রথম জনসভা শুরু হচ্ছে আওয়ামী লীগের।
যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার এমপির সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন মাগুরা-২ আসনের সংসদ সদস্য বীরেন সিকদার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য এমপি, যশোর-১ আসনের সংসদ সদস্য শেখ আফিল উদ্দিন, যশোর-২ আসনের এমপি মেজর জেনারেল (অব.) ডা. অধ্যাপক নাসির উদ্দিন, যশোর-৩ আসনের এমপি কাজী নাবিল আহমেদ, যশোর-৪ আসনের এমপি রণজিৎ রায়, ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিম আনার, ঝিনাইদহ-২ আসনের সংসদ সদস্য তাহজীব আলম সিদ্দিকী, সংসদ সদস্য খালেদা খানম, যশোর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সাইফুজ্জামান পিকুল, যশোরের পৌর মেয়র হায়দার গণি খান পলাশ, ঝিনাইদহ আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইদুল করিম মিন্টু, যশোর সদর আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহিত কুমার নাথ, অভয়নগর উপজেলা চেয়ারম্যান শাহ ফরিদ জাহাঙ্গীর প্রমুখ।

সম্পাদক ও প্রকাশক : শাহীন চাকলাদার  |  ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আমিনুর রহমান মামুন।
১৩৬, গোহাটা রোড, লোহাপট্টি, যশোর।
ফোন : বার্তা বিভাগ : ০২৪৭৭৭৬৬৪২৭, ০১৭১২-৬১১৭০৭, বিজ্ঞাপন : ০১৭৩০৮৫৫৯৭৯, ০১৭১১-১৮৬৫৪৩
Email : samajerkatha@gmail.com
স্বত্ব © samajerkatha :- ২০২০-২০২২
crossmenu linkedin facebook pinterest youtube rss twitter instagram facebook-blank rss-blank linkedin-blank pinterest youtube twitter instagram