৩১শে জানুয়ারি ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ১৭ই মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
যশোরে চাহিদা প্রায় ৪৮ লাখ বই
159 বার পঠিত

১ জানুয়ারি বই উৎসব

সাইফুল ইসলাম : রাত পোহালেই নতুন শিক্ষাবর্ষ শুরু। ২০১০ সাল থেকে বছরের প্রথম দিন উৎসব করে শিক্ষার্থীদের হাতে বিনা মূল্যের পাঠ্যবই তুলে দিচ্ছে সরকার। এবারও এর ব্যতিক্রম হবে না। ১ জানুয়ারি পাঠ্যপুস্তক উৎসব দিবস-২০২৩ উদযাপনের ঘোষণা দিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি)। এবার যশোর জেলায় মোট বইয়ের চাহিদা ৪৭ লাখ ৬১ হাজারের বেশি। ইতিমধ্যে প্রাথমিকের চাহিদার ৬০ শতাংশ ও মাধ্যমিকের ৪০ শতাংশ বই যশোরে পৌঁছেছে। কর্মকর্তারা আশাবাদী সব বই সময়মত চলে আসবে।
যশোর জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের সর্বশেষ (২৮ ডিসেম্বর) তথ্য অনুযায়ী প্রাথমিক পর্যায়ে ৬১ দশমিক ৩৯ শতাংশ এবং মাধ্যমিক পর্যায়ে ৪২ শতাংশ বই যশোরে এসেছে। এছাড়াও দাখিলে ৩৩ শতাংশ, এবতেদায়ীতে ৬৪ শতাংশ, এসএসসি ভোকেশনালে ৩৬ শতাংশ ও দাখিল ভোকেশনালে ২৮ শতাংশ বই পেয়েছে যশোর শিক্ষা অফিস। বাদবাকি বই সময়মত চলে আসবে বলে আশা করছেন কর্মকর্তারা।
সংশি¬ষ্ট কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, যশোরে প্রাথমিকে বইয়ের চাহিদা ১৩ লাখ ৪৮ হাজার ১১০ টি। চাহিদার বিপরীতে বই এসেছে ৮ লাখ ২৭ হাজার ৭১৬ টি। জেলা মাধ্যমিক অফিস জানিয়েছে, যশোর জেলায় মাধ্যমিক বইয়ের চাহিদা ২৭ লাখ ৪৫ হাজার ৩৭৬ টির মধ্যে ১১ লাখ ৫৮ হাজার ১৯৩ টি বই পাওয়া গেছে। এরমধ্যে স্কুলগুলোতে বিতরণ করা হয়েছে ১০ লাখ ৩২ হাজার ৫৬৯ টি। দাখিলে মোট চাহিদা ৮ লাখ ৩০ হাজার ৫৭৪ টি, যশোরে এসেছে ২ লাখ ৭৮ হাজার ২৩২ টি এবং মাদ্রাসায় পৌছেছে ২ লাখ ৭৮ হাজার ২৩২ টি যা চাহিদার ৩৩ শতাংশ। এবতেদায়ীতে জেলায় বইয়ের চাহিদা ৪ লাখ ৬২ হাজার ৭৮০ টি, যশোরে পৌঁছেছে ২ লাখ ৯৬ হাজার ৬০০ টি, যা মোট চাহিদার ৬৪ শতাংশ। এসএসসি ভোকেশনালে জেলায় মোট বইয়ের চাহিদা ১ লাখ ২০ হাজার ১১৫ টি, প্রাপ্ত বই ৪৩ হাজার ১৪ টি এবং যা মোট চাহিদার ৩৬ শতাংশ। এছাড়াও দাখিল ভোকেশনালে জেলায় মোট চাহিদা ৩ হাজার ৫৬০ টি, বই এসেছে ১ হাজার, যা মোট চাহিদার ২৮ শতাংশ।
এর মধ্যে সদর উপজেলায় প্রাথমিকে চাহিদা ৩ লাখ ৯৪ হাজার ৬৫০ টি, বই এসেছে ৭০ হাজার ৩৯ টি যা চাহিদার ৬৩ শতাংশ। মাধ্যমিকে চাহিদা ৮ লাখ ১৪ হাজার ২০৫ টি, বই এসেছে ৩ লাখ ৪০ হাজার ২০০ টি যা চাহিদার ৪২ শতাংশ। দাখিলে ১ লাখ ৭৩ হাজার ৬৫০ টি, প্রাপ্ত ৫০ হাজার ৩০০ টি যা চাহিদার ২৯ শতাংশ। এবতেদায়ীতে ১ লাখ ৬০০ টি, প্রাপ্তি ৬৪ হাজার ৪০০ টি, যা চাহিদার ৬৪ শতাংশ। এসএসসি ভোকেশনালে ২০ হাজার ৪১৫ টি, প্রাপ্তি ৫ হাজার। দাখিল ভোকেশনালে চাহিদা ৩০০ টি, প্রাপ্তি ১০০ টি যা চাহিদার ৩৩ শতাংশ। শার্শা উপজেলায় প্রাথমিকে বরাদ্দ ১ লাখ ৮০ হাজার ৫১, প্রাপ্তি ১ লাখ ১৪ হাজার ৫৩১, প্রাপ্তির হার ৬৩দশমিক ৬১ শতাংশ, মাধ্যমিকে চাহিদা ৩ লাখ ২ হাজার ২০৭টি, প্রাপ্তি ১ লাখ ২৫ হাজার ৩২ টি যা চাহিদার ৪১ শতাংশ। দাখিলে ১ লাখ ৩ হাজার ৬৯২ টি, প্রাপ্তি ৩২ হাজার ৫০০ টি যা চাহিদার ৩১ শতাংশ। এবতেদায়ীতে ৪৫ হাজার ২৬৪ টি যা চাহিদার ৬৫ শতাংশ। এসএসসি ভোকেশনাল ১০ হাজার ৫০০ টি, প্রাপ্তি ৫ হাজার ৮০০। মনিরামপুর উপজেলায় প্রাথমিকে বরাদ্দ ২ লাখ, প্রাপ্তি ১ লাখ ১৭ হাজার ৬২৮, প্রাপ্তির হার ৫৮.৫৫ শতাংশ, মাধ্যমিক চাহিদা ৩ লাখ ৯১ হাজার ৫৪৪ টি, প্রাপ্তি ১লাখ ৮৩ হাজার ৫৪৫ টি যা চাহিদার ৪৭ শতাংশ। দাখিলে ১ লাখ ৪৯ হাজার ৯১৫ টি, প্রাপ্তি ৪৭ হাজার ৮৫০ যা চাহিদার ৩২ শতাংশ। এবতেদায়ীতে ৯৯ হাজার ৪৭০টি চাহিদার বিপরীতে প্রাপ্তি ৬৩ হাজার ১৬০, যা ৬৩ শতাংশ। এসএসসি ভোকেশনালে চাহিদা ১৮ হাজার ২০০টি, প্রাপ্তি ৮ হাজার। বাঘারপাড়া উপজেলায় প্রাথমিকে বরাদ্দ ৮৮ হাজার ৪২২, প্রাপ্তি ৬০ হাজার ১৪০, প্রাপ্তির হার ৬৮.০১ শতাংশ, মাধ্যমিক চাহিদা ১ লাখ ৭৫ হাজার ৪৪৬ টি, প্রাপ্তি ৭০ হাজার ৮৭৬ টি যা চাহিদার ৪০ শতাংশ। দাখিলে চাহিদা ৭১ হাজার ৮৪০, প্রাপ্তি ২২ হাজার ৬৩ টি; যা চাহিদার ৩১ শতাংশ। এবতেদায়ীতে ৪২ হাজার ৬০ টির মধ্যে প্রাপ্তি ২৭ হাজার ২৪০, যা চাহিদার ৬৫ শতাংশ। এসএসসি ভোকেশনালে চাহিদা ১২ হাজার প্রাপ্তি ৪ হাজার ৮০০, যা চাহিদার ৪০ শতাংশ। ঝিকরগাছা উপজেলায় প্রাথমিকে বরাদ্দ ১লাখ ৪৮ হাজার ৪৪৩, প্রাপ্তি ৯৩ হাজার ৮৯৭ টি , প্রাপ্তির হার ৬৩.২৫ শতাংশ, মাধ্যমিক চাহিদা ২ লাখ ৮০ হাজার ২০০ প্রাপ্তি ১ লাখ ২২ হাজার ৬৫০ যা চাহিদার ৪৪ শতাংশ। দাখিলে ৭৮ হাজার ৮১০ প্রাপ্তি ২৬ হাজার ৬৮৩ যা চাহিদার ৩৪ শতাংশ। এবতেদায়ীতে ৩২ হাজার ৬৫০ প্রাপ্ত ২২ হাজার যা চাহিদার ৬৭ শতাংশ। এসএসসি ভোকেশনালে চাহিদা ১৫ হাজার প্রাপ্তি ৪ হাজার ৩০২ টি যা চাহিদার ২৯ শতাংশ। চৌগাছা উপজেলায় প্রাথমিকে বরাদ্দ ১লাখ ১০ হাজার ৫৯৮, প্রাপ্তি ৭০ হাজার ৪৭৬,প্রাপ্তির হার ৬৩.৭২ শতাংশ, মাধ্যমিকে চাহিদা ২ লাখ ৪৭ হাজার ৭০৯ টি, প্রাপ্তি ৯০ হাজার ৫২০ টি, যা চাহিদার ৩৭ শতাংশ। দাখিলে ৬৭ হাজার ৬৭ টি, প্রাপ্তি ১৭ হাজার ২৬৯ টি যা চাহিদার ২৬ শতাংশ। এবতেদায়ীতে ২৫ হাজার ৮৩৬ টি, প্রাপ্তি ১৪ হাজার ৯৬৮ যা চাহিদার ৫৮ শতাংশ। এসএসসি ভোকেশনাল ১৩ হাজার ২০০ টি, প্রাপ্তি ৬ হাজার ৬১২ টি যা চাহিদার ৫০ শতাংশ। কেশবপুর উপজেলায় প্রাথমিকে বরাদ্দ ১লাখ ১৫ হাজার ৮০৫ টি, প্রাপ্তি ৭১ হাজার ৬৫০, প্রাপ্তির হার ৬২.৯৫ শতাংশ, মাধ্যমিক চাহিদা ২ লাখ ১৭ হাজার ৫৯৫ টি, প্রাপ্তি ৮০ হাজার ৭৫০ যা চাহিদার ৩৭ শতাংশ। দাখিলে ১ লাখ ১ হাজার ৭০০ প্রাপ্তি ৪৪ হাজার ২০ টি, চাহিদার ৪৩ শতাংশ। এবতেদায়ীতে ৬৪ হাজার ৫০০, প্রাপ্তি ৪০ হাজার ৮০০ যা চাহিদার ৬৩ শতাংশ। এসএসসি ভোকেশনাল ১৫ হাজার ৬০০ প্রাপ্তি ৪ হাজার, যা চাহিদার ২৬ শতাংশ। দাখিল ভোকেশনাল চাহিদা ১ হাজার ৬২০, প্রাপ্তি ৪০০ যা চাহিদার ২৫ শতাংশ। অভয়নগর উপজেলায় প্রাথমিকে বরাদ্দ ১লাখ ১১ হাজার ২৭৩ টি, প্রাপ্তি ৭০ হাজার ৩৯টি, প্রাপ্তির হার ৬২.৯৪ শতাংশ, মাধ্যমিকে চাহিদা ৩ লাখ ১৬ হাজার ৪৭০ টি, প্রাপ্তি ১ লাখ ৪৪ হাজার ৮২০ যা চাহিদার ৪৬ শতাংশ। দাখিলে ৮৩ হাজার ৯০০ প্রাপ্তি ৩৭ হাজার ৭৫০ টি, যা চাহিদার ৪৫ শতাংশ। এবতেদায়ীতে ৫২ হাজার ৪০০ প্রাপ্তি ৩৪ হাজার ৪০০ যা চাহিদার ৬৬ শতাংশ। এসএসসি ভোকেশনাল ১৫ হাজার ২০০ প্রাপ্তি ৪ হাজার ৫০০,যা চাহিদার ৩০ শতাংশ। দাখিল ভোকেশনাল চাহিদা ১ হাজার ৬৪০, প্রাপ্তি ৫০০ যা চাহিদার ২৩ শতাংশ।
এ বিষয়ে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আব্দুস সালাম বলেন, যথাসময় শিক্ষার্থীদের কাছে বই পৌছাবে বলে আশা করছি।

সম্পাদক ও প্রকাশক : শাহীন চাকলাদার  |  ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আমিনুর রহমান মামুন।
১৩৬, গোহাটা রোড, লোহাপট্টি, যশোর।
ফোন : বার্তা বিভাগ : ০২৪৭৭৭৬৬৪২৭, ০১৭১২-৬১১৭০৭, বিজ্ঞাপন : ০১৭৩০৮৫৫৯৭৯, ০১৭১১-১৮৬৫৪৩
Email : samajerkatha@gmail.com
স্বত্ব © samajerkatha :- ২০২০-২০২২
crossmenu linkedin facebook pinterest youtube rss twitter instagram facebook-blank rss-blank linkedin-blank pinterest youtube twitter instagram