৭ই ডিসেম্বর ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২২শে অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
মাগুরায় আদম বেপারীর অত্যাচারে পুরুষ শূন্য একটি পরিবার
15 বার পঠিত

মাগুরা প্রতিনিধি॥ মাগুরা সদর থানার বড়শোলই কলইডাঙ্গা গ্রামের আদমব্যাপারী মো. কাসেম মোল্লা যেন একটি মূর্তিমান আতঙ্ক হয়ে দাঁড়িয়েছেন এক অসহায় পরিবারের জন্য তার অত্যাচারে গত এক সপ্তাহ যাবৎ পুরুষ শূন্য একই গ্রামের মো. শাহিনুর ইসলামের পরিবার। পরিবারের অভিযোগ গত ৩ বছর পূর্বে শাহিনুর মোল্লার ছেলে প্রবাসী শোভন মোল্লা (২৪) মালয়েশিয়ায় হঠাৎ করে অসুস্থ হয়ে পড়ে, পরিবারটি তাদের একমাত্র ছেলেকে দেশে

ফিরিয়ে আনার জন্য আদম বেপারী মো. কাসেম মোল্লার সাথে যোগাযোগ করলে সে ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা দাবি করে। এরপর কলইডাঙ্গা গ্রামের ৩ জন মাতব্বর নায়েব, মোতালেব ও হারুন এর মাধ্যমে তাদের হাতে মো. শাহিনুর ইসলাম ফসলের জমি বন্ধুক রেখে ১ লাখ ২০ হাজার টাকা পরিশোধ করেন, কিন্তু গত আড়াই বছরেও আদমব্যাপারী মো. কাসেম মোল্লা অসুস্থ শোভন মোল্লাকে ফিরিয়ে আনতে সক্ষম না হওয়ায়, মো. শাহিনুর ইসলাম বার বার তাগাদা দিলে কাসেম মোল্লা বিভিন্ন টালবাহানা ও প্রতারণা শুরু করে। অতঃপর কোনো উপায়ন্তনা দেখে শাহিনুর ইসলাম তার একমাত্র অবলম্বন বাজারের দোকান বন্ধুক রেখে অন্য একজনকে ধরে ছেলেকে মালয়েশিয়া থেকে ফিরিয়ে আনেন। এরপর হতদরিদ্র পরিবারটি কাশেম মোল্লার কাছে টাকা ফেরত চাইতে গেলে সে মারমুখী হয়ে উঠে এবং নানা ধরণের হুমকি ধামকি প্রদান করে। পরবর্তীতে এব্যাপারে মাগুরা সদরের কুচিয়ামোড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান টিপু শিকদারের কাছে আপোষ মীমাংসার আবেদন করা হয়। চেয়ারম্যান টিপু শিকদার জানান কাশেম মোল্লা টাকা তসরূপের ঘটনাটি শিকার করেছেন। গত ঈদুল ফিতরের পরে টাকা দেওয়ার কথা থাকলেও এখন সে টাকা ফেরত দিতে অস্বীকার করছেন।

শাহিনুর ইসলামের স্ত্রী জাহানারা খাতুন জানান, গত ৮ জুন বুধবার কাশেম মোল্লা নিজে দলবল এনে আমাদের ঘরে তালা বন্ধ করে দিয়ে যায়। এরপর মহিলাদের উপর চড়াও হয়ে আমাদের বাড়ি থেকে বের করে দেয় এবং আমরা টানা ৭ দিন অনাহার ও অর্ধাহারে ছিলাম। এমন কি আমার নবম শ্রেণী পড়ুয়া মেয়ে রানু (১৫) কে পার্শবর্তী মাদ্রাসায় যেতে বাধা দিচ্ছে। আদম বেপারী কাসেম মোল্লা, শাহিনুর ইসলামের বাড়িতে কোনো পুরুষ লোক থাকলে তাদের পা ভেঙে দেওয়া হবে বলে ভয় ভীতি প্রদর্শন করায় এখন পরিবারটি পুরুষ শূন্য। ফলে কোনো উপার্জন না থাকায় মানবেতর জীবন যাপন করছে তারা। এ অবস্থায় অসহায় দরিদ্র পরিবারের পক্ষ থেকে ১৭ জুন মাগুরা সদর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। এ ব্যাপারে মাগুরা সদর থানার ওসি নাসিরুদ্দিন জানান, অভিযোগটি আমার কাছে আসা মাত্রই আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ বিষয়ে আদমব্যাপারী কাশেম মোল্লার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি কোন তথ্য দেননি।

সম্পাদক ও প্রকাশক : শাহীন চাকলাদার  |  ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আমিনুর রহমান মামুন।
১৩৬, গোহাটা রোড, লোহাপট্টি, যশোর।
ফোন : বার্তা বিভাগ : ০২৪৭৭৭৬৬৪২৭, ০১৭১২-৬১১৭০৭, বিজ্ঞাপন : ০১৭৩০৮৫৫৯৭৯, ০১৭১১-১৮৬৫৪৩
Email : samajerkatha@gmail.com
স্বত্ব © samajerkatha :- ২০২০-২০২২
crossmenu linkedin facebook pinterest youtube rss twitter instagram facebook-blank rss-blank linkedin-blank pinterest youtube twitter instagram