৭ই ডিসেম্বর ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২২শে অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
গাংনী মেয়রের উপর হামলা, ব্যক্তিগত অস্ত্র ছিনতাই
11 বার পঠিত

সমাজের কথা ডেস্ক॥ নির্বাচনী প্রচার চালানোর সময় মেহেরপুরের গাংনী পৌর নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান মেয়র আশরাফুল ইসলামের উপর হামলা হয়েছে; এই সময় তার লাইসেন্স করা আগ্নেয়াস্ত্র ছিনতাই করেছে হামলাকারীরা।

সোমবার দুপুরে গাংনী শহরের শিশিরপাড়ায় এই হামলা চালানো হয় বলে গাংনী থানার ওসি বজলুর রহমান জানান।

মেয়র আশরাফুল ইসলাম এই হামলার জন্য আওয়ামী লীগ দলীয় মেয়র পদপ্রার্থী আহম্মদ আলী ও তার সহযোগীকে দায়ী করে সংবাদ সম্মেলন করেছেন।

তবে আহম্মদ আলী এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

আগামী ১৬ জানুয়ারি গাংনী পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

আশরাফুল ইসলাম সংবাদ সম্মেলনে বলেন, দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে গাংনী শহরের ২ নম্বর ওয়ার্ড শিশিরপাড়ায় নির্বাচনী প্রচার চালানোর সময় বহিরাগত ক্যাডার ইসমাইল হোসেনের নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থী আহম্মদ আলীর লোকজন তার উপর হামলা করে। এই সময় হামলাকারীরা তাকে আহত করে তার ব্যক্তিগত লাইসেন্স করা একটি পিস্তল ও ৯ রাউন্ড গুলি ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

তাকে রক্ষা করতে গিয়ে ১২ জন কর্মীও মারধরে আহত হয়েছেন বলে আশরাফুলের অভিযোগ।

আহতদের গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

আশরাফুলের আরও অভিযোগ, কয়দিন ধরেই তাকে হুমকি দেওয়া হচ্ছিল। রোববার তাকে যুবলীগ থেকে বহিষ্কারের পর দুর্বৃত্তরা আরও বেপরোয়া হয়ে ওঠে। রাতে তার বাড়ির সামনে গিয়ে তাকে বাড়ি থেকে বের না হওয়ার হুমকি দিয়ে আসে।

রোববার রাতে তিনি গাংনী থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন যেখানে ‘ইসমাইল হোসেন’ নামের এক ব্যক্তির নেতৃত্বে কিছু দুর্বৃত্ত তাকে হুমকি দিচ্ছে বলে উল্লেখ করেন।

শিশিরপাড়ায় ঘটনার সময় প্রত্যক্ষদর্শী ওবায়দুল ইসলাম বলেন, আশরাফুল ইসলাম বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোট প্রার্থনা করার সময় এই হামলা হয়। ‘ইসমাইল হোসেনের’ নেতৃত্বে এই হামলার সময় ১৫-২০ জনকে দেশি অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত অবস্থায় ঘোরাঘুরি করতে দেখা যায়।

“পরে হামলা করে অস্ত্র নিয়ে চলে যাবার সময় দুর্বৃত্তরা ফাঁকা গুলি চালিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করে পালিয়ে যায়।”

এই ব্যাপারে ইসমাইল হোসেনের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

তবে এই ঘটনায় আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থী সাবেক মেয়র আহম্মদ আলী জড়িত থাকার কথা অস্বীকার করেছেন।

তিনি বলেন, বর্তমান মেয়রের রাজনৈতিক কোনো পরিচয় নেই। অথচ তিনি আওয়ামী লীগ যুবলীগের পরিচয় দিয়ে ভোট প্রার্থনা করছেন। এটা নিয়ে দলীয় নেতাকর্মীরা ক্ষুদ্ধ রয়েছে। এরই জের ধরে কে বা কারা তার উপর হামলা করেছে তিনি জানেন না।

কারা মেয়রের অস্ত্র ছিনিয়ে নিয়েছে এবং সেই অস্ত্রের লাইসেন্স বৈধভাবে করা হয়েছে কিনা সবই খতিয়ে দেখার দাবি জানান তিনি।

গাংনী থানার ওসি বজলুর রহমান বলেন, কিছু যুবক স্বতন্ত্র মেয়র পদপ্রার্থী আশরাফুল ইসলামের উপর হামলা চালিয়ে এবং অস্ত্র ছিনিয়ে নিয়ে পালিয়েছে। পুলিশ তার বৈধ অস্ত্রটি উদ্ধারে জোর চেষ্টা চালাচ্ছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে শহরে অতিরিক্ত পুলিশ মোতয়েন করা হয়েছে। পাড়া মহল্লায় বাড়ানো হয়েছে পুলিশী টহল।

পুলিশ তদন্ত সাপেক্ষে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে তিনি জানান।

সম্পাদক ও প্রকাশক : শাহীন চাকলাদার  |  ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আমিনুর রহমান মামুন।
১৩৬, গোহাটা রোড, লোহাপট্টি, যশোর।
ফোন : বার্তা বিভাগ : ০২৪৭৭৭৬৬৪২৭, ০১৭১২-৬১১৭০৭, বিজ্ঞাপন : ০১৭৩০৮৫৫৯৭৯, ০১৭১১-১৮৬৫৪৩
Email : samajerkatha@gmail.com
স্বত্ব © samajerkatha :- ২০২০-২০২২
crossmenu linkedin facebook pinterest youtube rss twitter instagram facebook-blank rss-blank linkedin-blank pinterest youtube twitter instagram