রবিবার, অক্টোবর 20, 2019

ছন্দকথা প্রতিদিন – সৈয়দ আহসান কবীর

চলছে শহর, চলছো তুমি সঙ্গে আছি আমি বাড়ছে শহর, বাড়ছে বাড়ি গাড়ি নামিদামি। ইতিহাসের সেই সে শহর শাড়ি-জামদানি বন্ধ হয়ে আসছে য্যানো মানের আমদানী।

ছন্দকথা প্রতিদিন – সৈয়দ আহসান কবীর

বাবার হাতে ছেলে খুন হয় ছেলে পেটায় মা’কে, ঘুণপোকাতে কাটছে সমাজ দোষটা দেবো কাকে? শৌচাগারে বাবার কবর ঢাকছে দেখি ছেলে, ইচ্ছে করে শূলে চড়াই ‘জন্তুগুলো’ পেলে!

ছন্দকথা প্রতিদিন – সৈয়দ আহসান কবীর

বছর ঘুুরে আবার এলো শুভ জন্মদিন সমাজের কথা’র জন্মদিনে বাজে খুশির বীণ। বছর জুড়ে দেশের কথা সমাজের কথা কয় ‘সমাজের কথা’ পত্রিকা তাই হৃদয়ের মাঝে রয়।

ছন্দকথা প্রতিদিন – সৈয়দ আহসান কবীর

যায় দিন ভেসে যায় বয়ে যায় ক্ষণ, সুখের খোঁজেই ছোটে আপনার মন। . হৃদয় মুদে থাকে, ছোটে খোটে ভাষা, আহারে দৃশ্যপট আহা তার আশা।

ছন্দকথা প্রতিদিন – সৈয়দ আহসান কবীর

মেধাবীরা যায় যে ঝরে ঝড়ে কারা পেটায়, কারা এমন করে? হয়তো ভিন্ন মতের মতো ছিলো কিন্তু সেতো দেশের কথাই নিলো! সবাই অবাক, অবাক প্রশাসনও ওরা নেতা? নেতার মতো গোনো? গোলাম-শোভন...

ছন্দকথা প্রতিদিন – সৈয়দ আহসান কবীর

শুভ্র শাদা কাশবনে হাঁটলে দোলা দেয় মনে ওড়ায় ঘোরায় এদিক সেদিক জানে শুধু সেই জনে- যে হাঁটে ওই কাশবনে, ছন্দ ঘোরে যার কোণে।

ছন্দকথা প্রতিদিন – সৈয়দ আহসান কবীর

যায় দিন ভেসে যায় বয়ে যায় ক্ষণ, সুখের খোঁজেই ছোটে আপনার মন। হৃদয় মুদে থাকে, ছোটে খোটে ভাষা, আহারে দৃশ্যপট আহা তার আশা।

ছন্দকথা প্রতিদিন – সৈয়দ আহসান কবীর

লাগ ভেলকি লাগ রক্তচক্ষু পশু-শাবক উঁইপোকাদল হুতুম, রাঘব দেশ ও দশের শত্রু যারা- তাদের মনে লাগ লাগ ভেলকি লাগ তাক্ ধিনা ধিন্ নেচেগেয়ে মানুষ বনে যাক্।

ছন্দকথা প্রতিদিন – সৈয়দ আহসান কবীর

খোকাখুকু আনন্দে গায় শরৎ-শাদার গান বাতাস ছুঁয়ে ওড়ে ভাসে রাখতে গাঁয়ের মান। ওরাই বড় হয় যে আবার ওরাই ছোটো হয় ওরা শাদা মনের মানুষ নেই তো কোনো ভয়।

ছন্দকথা প্রতিদিন – সৈয়দ আহসান কবীর

কাশের বনে শরৎ বিদায় আসছে ঋতু হেমন্ত শীতল বাতাশ পরশ বুলায় দোলে আজি এমন তো। নবান্নেরই দিন পেরুলেই আসবে শীতের বুড়ি ঠকঠকাঠক কাঁপবে মানুষ দিয়ে চাদর মুড়ি।