যশোর জেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা
কিশোর গ্যাংয়ের বিরুদ্ধে কঠোর প্রশাসন

95
যশোর জেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা কিশোর গ্যাংয়ের বিরুদ্ধে কঠোর প্রশাসন

নিজস্ব প্রতিবেদক :
কিশোর গ্যাংয়ের বিরুদ্ধে কঠোর হচ্ছে প্রশাসন। তাদের চিহ্নিত করে আইনি ব্যবস্থা নেয়ার পাশাপাশি মহাসড়কে মোটরসাইকেলে রাইড শেয়ারিং বন্ধে কার্যকর পদক্ষেপ নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন যশোরের জেলা প্রশাসক মো. তমিজুল ইসলাম খান।

কালেক্টরেট ভবনের অমিত্রাক্ষর সভাকক্ষে রোববার (১৪ আগস্ট ২০২২) সকালে অনুষ্ঠিত যশোর জেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপপ্রচার ও গুজব সম্পর্কে সকলকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানান তিনি।
সভায় জেলার আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখা, এলপিজি গ্যাসের সরকার নির্ধারিত দামে বিক্রিসহ নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য সহনীয় পর্যায়ে রাখা, রিচার্জেবল ব্যাটারির অস্বাভাবিক মূল্য বৃদ্ধি, ইজিবাইক, থ্রি-হুইলারসহ অবৈধ অযান্ত্রিক যানবাহান চলাচল বন্ধ, সড়ক দুর্ঘটনা ও লাইসেন্সবিহীন যানবাহন চলাচলে নিয়ন্ত্রণ; বিশেষ করে বেপরোয়া গতিতে মোটরসাইকেল চালনা নিয়ন্ত্রণ, স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ ও ডেঙ্গু রোগ প্রতিরোধ এবং যানজট নিরসনে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা বিষয়ে আলোচনা শেষে বিভিন্ন সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়।
অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট কাজী মো. সায়েমুজ্জামানের সঞ্চালনায় এ সভায় যশোরে তুলনামূলক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি সন্তোষজনক উল্লেখ করে বলা হয় মাদক, সন্ত্রাস ও বাল্যবিয়ে নিয়ন্ত্রণে জেলা প্রশাসন কাজ করে যাচ্ছে। যা অব্যাহত থাকবে।
সভায় জুলাই মাসের রেকর্ডিয় অপরাধ চিত্র তুলে ধরা হয়। সভায় বলা হয় জেলার আট উপজেলায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অভিযানে ১৪৫টি মামলা হয়েছে। জুন মাসে হয়েছিল ১৮৮টি মামলা। এছাড়া জুলাই মাসে খুনের মামলা হয়েছে ৬টি, ধর্ষণের মামলা হয়েছে ৮টি।
সভাপতির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক তমিজুল ইসলাম খান আরও বলেন, আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখায় বিঘ্নসৃষ্টিকারীদের তৎপরতা মোকাবেলায় প্রশাসন সজাগ রয়েছে। তিনি সকল ষড়যন্ত্র মোকাবেলা ও প্রতিহত করার জন্য প্রশাসনকে সহায়তা করতে সকলের প্রতি আহ্বান জানান।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন ও মতামত ব্যক্ত করেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর যশোরের উপপরিচালক হুমায়ুন কবির, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা শহিদুল ইসলাম মিলন, পাবলিক প্রসিকিউটর ইদ্রিস আলী, ডেপুটি সিভিল সার্জন নাজমুস সাদিক, জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা একেএম গোলাম আযম, মণিরামপুর উপজেলা চেয়ারম্যান নাজমা খানম, কেশবপুরের পৌর মেয়র রফিকুল ইসলাম, ভোক্তাসংরক্ষণ অধিদফতরের সহকারী পরিচালক ওয়ালিদ বিন হাবীব, প্রেসক্লাব যশোরের সভাপতি জাহিদ হাসান টুকুন, জেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি মিজানুর রহমান, প্রভাষক মিজানুর রহমানসহ আট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও জেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সদস্য বিভিন্ন সরকারি দফতরের কর্মকর্তা।