নৈশ প্রহরীকে হত্যা করে ডাকাতি
# এক রাতে যশোর ও ঝিকরগাছার দুই অটোপাটর্সের দোকানে হানা

97
নৈশ প্রহরীকে হত্যা করে ডাকাতি # এক রাতে যশোর ও ঝিকরগাছার দুই অটোপাটর্সের দোকানে হানা

নিজস্ব প্রতিবেদক : 
এক রাতে যশোর ও ঝিকরগাছার বাজারের দুইঅটো পার্টসের দোকানে চুরি- ডাকাতি হয়েছে। ঝিকরগাছায় ডাকাতিকালে এক নৈশ প্রহরীকে নৃশংসভাবে হত্যা করেছে ডাকাতরা। র‌্যাব পৃথকভাবে ৬ জনকে আটক করেছে।
ঝিকরগাছা পৌর প্রতিনিধি শাহ জামাল শিশির জানান, শনিবার রাত আড়াইটার দিকে ঝিকরগাছা বাজারের রাজাপট্টিতে হানা দেয় ডাকাত দল। এসময় তারা চার নৈশ প্রহরী আব্দুস সামাদ, ইউসুফ আলী নেদা, কামাল হোসেন ও সুকুমার বিশ্বাসকে বেঁধে ফেলে ও স্কসটেপ দিয়ে মুখে পেঁচিয়ে দেয়। পরে তারা ঝিকরগাছা অটো ইলেকট্রিক্যাল ওয়ার্কসপের তালা কেটে ১৫টি নতুন ও ৮টি পূরাতন ব্যাটারিসহ সর্বমোট ২৩ টি হ্যামকো ব্যাটারী (ট্রাকের ও আইপিএস এর ব্যাটারী) নিয়ে যায়। এগুলো আনুমানিক মূল্য আড়াই লাখ টাকা। মুখ হাত পা বাঁধা থাকায় শ্বাসরোধে মারা গেছে প্রহরী আব্দুস সামাদ। নিহত আব্দুস সামাদ ঝিকরগাছা উপজেলার বেড়েলা গ্রামের মৃত তুরফান মোড়লের ছেলে।
পুলিশ ও র‌্যাব সূত্রে জানাগেছে, গত রোববার ভোররাতে ঝিকরগাছা পৌর শহরের রাজাপট্টি বাজারে পিকআপভ্যান নিয়ে হানা দেয় একদল ডাকাত। ৮/১০ জনের ডাকাত দল অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে বাজার পাহারায় নিয়োজিত চার নৈশপ্রহরীর হাত, পা ও মুখ গামছা এবং স্কচটেপ দিয়ে বেঁধে ফেলে। এ সময় ডাকাতদের আঘাত ও শ্বাসরোধের কারণে নৈশপ্রহরী আব্দুস সামাদের মৃত্যু হয়।
পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহত নৈশপ্রহরী আব্দুস সামাদের মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। নিহত সামাদের কপালে একাধিক আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।
ঝিকরগাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সুমন কুমার ভক্ত বলেন, ডাকাতদল নৈশপ্রহরীদের বেঁধে একটি দোকান থেকে আড়াই লাখ টাকা মূল্যের ২৩টি ব্যাটারি লুট করে নিয়ে গেছে। এ ঘটনায় হত্যা ও ডাকাতি মামলা হবে। ডাকাতদের কেউ এখনো আটক হয়নি। আসামিদের আটকের জন্য র‌্যাব, ডিবি ও থানা পুলিশ পুলিশের যৌথ অভিযান চলছে।’
এদিকে, যশোরের ঝিকরগাছায় ছিনতাইয়ের প্রস্তুতিকালে একটি বিদেশি পিস্তল, এক রাউন্ড গুলি ও একটি ম্যাগজিনসহ তিন সন্ত্রাসীকে আটক করেছে র‌্যাব। রোববার বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে উপজেলার পারবাজার এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়।
আটককৃতরা হলো ঝিকরগাছা উপজেলার মির্জাপুর গ্রামের মৃত গোলাম হোসেনের ছেলে রুবেল হোসেন, যশোর সদর উপজেলার শেখহাটি গ্রামের মৃত হাবিবুর রহমানের ছেলে রোকনুজ্জামান শাওন ও চৌগাছা উপজেলার হায়াতপুর গ্রামের আতিয়ার রহমানের ছেলে আল মামুন।
র‌্যাব-৬ যশোর ক্যাম্পের অধিনায়ক লে. কমান্ডার এম নাজিউর রহমান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পেরে পারবাজার এলাকায় শাহজাহান আলীর “স” মিলের সামনে অভিযান চালায়। এসময় ওইতিনজনকে আটক করা হয়। তাদের কাছ থেকে অস্ত্র-গুলি উদ্ধার করা হয়। আটকের পর তারা একটি ব্যাংকের টাকা ছিনতাইয়ের উদ্দেশ্যে সেখানে অবস্থান করছিল বলে র‌্যাবের কাছে স্বীকার করেছে। কিন্তু ওই অভিযানে ফাহিম নামে তাদের এক সহযোগি পালিয়ে গেছে।
এদিনই আটককৃতদের অস্ত্র আইনে মামলা দিয়ে ঝিকরগাছা থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।
অপরদিকে একই রাতে যশোর শহরতলীর কিসমত নওয়াপাড়ায় একটি মটর পার্টসের দোকানে দুর্ধষ চুরি হয়। ওই এলাকার সিকদার মটরসের সার্টার ভেঙ্গে ৩৫ লাখ টাকার মেশিনারী যন্ত্রপাতি এবং এক লাখ ২০ হাজার টাকা চুরি করে নিয়ে গেছে বলে ওই দোকানের সত্বাধীকারী টিটু সিকদার নিশ্চিত করেছেন।
যশোর কোতোয়ালি মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ তাজুল ইসলাম জানান, এদিন ২টার পর যশোর শহরের নিউ মার্কেট এলাকায় যশোর-মাগুরা মহাসড়কের ঢাকা রোডে সিকদার মটরস নামে একটি দোকানে দুর্ধর্ষ চুরি হয়েছে।