চারুপীঠ যশোরের অনন্য উদ্যোগ
# এসএম সুলতানের জন্মভূমিতে শিশুদের নিয়ে আর্ট ক্যাম্প

1

নিজস্ব প্রতিবেদক :
‘আমি শিল্পী সুলতানের জামা দেখেছি, হাতি দেখেছি, আঁকা ছবি দেখেছি, নৌকা আর নদী দেখেছি- আমার খুব ভাল লেগেছে।’

এভাবেই অভিব্যক্তি প্রকাশ করলো চারুপীঠ আর্ট রিসার্চ ইনস্টিটিউট, যশোরের চার বছর বয়সী শিশু সালমান হোসেন আল মামুন।

বরেণ্য চিত্রশিল্পী এসএম সুলতানের জন্মভূমিতে অনুষ্ঠিত আর্ট ক্যাম্পে সালমান হোসেন আল মামুনের মত এমনই অভিব্যক্তি প্রকাশ করে শিশু শিল্পী ও শিক্ষার্থী লাবিবা জামান লিবা, নামিরা ফারহীন, তাফিফ আনোয়ার নিশান, আওসাব ফারদিন শামস আনন, আফনান তাসিন, নাফিসা নাওয়ার মিষ্টি, ফারদিনসহ অনেকেই।

চারুপীঠ আর্ট রিসার্চ ইনস্টিটিউট, যশোরের উদ্যোগে চিত্রশিল্পী এসএম সুলতানের ৯৯তম জন্মদিন উপলক্ষে শুক্রবার (৫ আগস্ট ২০২২) নড়াইল শিশুস্বর্গে দিনব্যাপী এ ক্যাম্প অনুষ্ঠিত হয়।

সুলতান সংগ্রহশালা ও শিশুস্বর্গ দেখার অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে চারুপীঠ যশোরের শিশুরা ছবি আঁকায় অংশগ্রহণ করে।

এ উপলক্ষে সকাল সাড়ে নয়টায় যশোরের খেজুরগাছ ভাস্কর্য মোড় থেকে দ্বি-তল বাসে করে চারুপীঠ যশোরের ক্ষুদে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকেরা রওনা দেন সুলতানের পূণ্যভূমি চিত্রানদীর পাড়ে মাছিমদিয়ার উদ্দেশ্যে।

জীবনের প্রথম দ্বি-তল বাসে উঠে শিশুরা অভিভূত হয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে শিশু শিল্পী ও শিক্ষার্থী লাবিবা জামান লিবা, নামিরা ফারহীন, তাফিফ আনোয়ার নিশান, আওসাব ফারদিন শামস আনন, আফনান তাসিন, নাফিসা নাওয়ার মিষ্টি, ফারদিনসহ অনেকেই। অভিভাবকেরাও শিশুদের খুশিতে উদ্বেলিত হয়।

দ্বি-তল বাসটি বহর নিয়ে নড়াইলে পৌঁছায় প্রায় এগারোটার দিকে। প্রথমে নড়াইলের চিত্রানদীর বাঁধাঘাট পরিদর্শন করেন শিশু ও অভিভাবকেরা। নদীর ভাটার স্রোতে ভেসে যাওয়া কচুরিপানা দেখেও উচ্ছ্বসিত হন সকলে। এখানে ফটোসেশনে মেতে ওঠেন তারা।
এরপর কাক্সিক্ষত গন্তব্য চিত্রশিল্পী এসএম সুলতানের বাসস্থান।

সেখানে পৌঁছেই প্রথমে টিকিট কেটে এসএম সুলতানের সমাধিস্থল দর্শন করে শ্রদ্ধা জানিয়ে এসএম সুলতান স্মৃতি সংগ্রহশালায় প্রবেশ করেন সকলেই। এসএম সুলতান স্মৃতি সংগ্রহশালায় ঘুরে ফিরে মুগ্ধতা প্রকাশ করেন তারা।

এরপর শিশুস্বর্গ মিলনায়তনে শিশুরা তাদের মনের মাধুরি মিশিয়ে ছবি আঁকে।
দুপুরে খাওয়া দাওয়া শেষে চিত্রা নদীর পাড়ে রক্ষিত এসএম সুলতানের তৈরি নৌকা দেখে আবারও মুগ্ধ হয় শিশুরা।

বিকেলে সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন চারুপীঠ যশোরের সভাপতি হারুন অর রশীদ। শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন এসএম সুলতান সংগ্রশালার কিউরেটর তন্দ্রা মুখার্জি, চিত্রশিল্পী মফিজুর রহমান রুননু, সংস্কৃতিকর্মী ও সাংবাদিক প্রণব দাস, চারুপীঠ যশোরের কোষাধ্যক্ষ আফসানা জামান ইভা, সদস্য ও চিত্রকর ওবায়েদ জাকীর রাসু, শিপন চৌধুরী, অভিভাবক মো. ফেরদাউসুল আলম, আতিকা আল মামুন। সঞ্চালনা করেন চারুপীঠ যশোরের সাধারণ সম্পাদক মামুনুর রশীদ।

চারুপীঠ যশোরের সভাপতি হারুন অর রশিদ বলেন, ‘চারুপীঠ যশোর এর কোমলমতি শিশুদের চিত্রশিল্পী এসএম সুলতান সংগ্রশালায় নিয়ে আসা হয়েছে। শিশুরা শিল্পীর আঁকা চিত্রকর্মী, ব্যবহার্য জিনিসপত্র, শিল্পীর সমাধিসহ পুরো এলাকা ঘুরে দেখেছে। সঙ্গে শিশুদের অভিভাবকরাও এসেছেন। মূলত শিল্পী সুলতান চিত্রকর্ম ও জীবনী সম্পর্কে শিশুদের ধারণা দেয়ার জন্যই ঘুরতে নিয়ে আসা। এ ক্যাম্পে অংশ নেয়ায় শিশুরা তাদের সৃজনশীলতা বিকাশে আরও এক ধাপ এগিয়ে যাবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন -এসএম সুলতান স্মৃতিসংগ্রহশালার সহকারী কিটউরেটর মেহেদী হাসান রানা, চারুপীঠ যশোরের অভিভাবক সদস্য শাওনেওয়াজ আনোয়ার লেলিন, সওগাত কামাল দীপ প্রমুখ।

উল্লেখ্য, চিত্রশিল্পী এসএম সুলতান ১৯২৪ সালের ১০ আগস্ট নড়াইলের মাছিমদিয়ায় জন্মগ্রহণ করেন। দিনটি ঘিরে আগামি ১০ আগস্ট কোরআনখানি, দোয়া মাহফিল, পুষ্পমাল্য অর্পণ, আলোচনা সভা, শিশুদের চিত্রাঙ্কনসহ বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। ১৯৯৪ সালের ১০ অক্টোবর মৃত্যুবরণ করেন এসএম সুলতান।