যশোরের এক আদালতে একদিনে ১৩ মামলার রায় 

1

নিজস্ব প্রতিবেদক :
এক দিনে ১৩ মামলার রায় দিয়েছে যশোরের একটি আদালত। এরমধ্যে ১১ মামলার ১১ আসামিকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড ও প্রায় ৩৯ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। একই সাথে দু’টি মামলার দুই আসামিকে খালাস দেয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট ২০২২) যুগ্ম জেলা জজ শিমুল কুমার বিশ্বাস এই রায় দিয়েছেন। মামলাগুলো চেক জালিয়াতি মামলা বলে নিশ্চিত করেছেন এপিপি ভীমসেন দাস।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, সাতক্ষীরা জেলার শ্রীউলা গ্রামের লুৎফর রহমান গাজীর ছেলে নাজমুল হুদাকে এক বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও ১৮ লাখ টাকা অর্থদণ্ড দেয়া হয়েছে। যশোর সদর উপজেলার শাখারীগাতি গ্রামের আব্দুল আজিজের ছেলে মাসুদ সোহাগকে এক বছরের কারাদণ্ড ও সাত লাখ টাকা জরিমানা, নড়াইল সদর উপজেলার মুলদাইড় গ্রামের ইদ্রিস শেখের ছেলে কামালকে এক বছরের কারাদণ্ড ও চার লাখ টাকা অর্থদণ্ড, যশোর সদর উপজেলার তেঘরিয়া গ্রামের আনোয়ার হোসেনের ছেলে হযরত আলীকে ছয় মাসের কারাদণ্ড ও তিন লাখ টাকা অর্থদণ্ড, নীলফামারী জেলার বিসিক শিল্প নগরীর মদিনা ফ্লাওয়ার মিলের মালিক খালিদ ইকবালের ছয় মাসের কারাদণ্ড ও দুই লাখ টাকা অর্থদণ্ড, যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার গদখালী গ্রামের আব্দুর রহমানের স্ত্রী নাসরিনের তিন মাসের কারাদণ্ড ও এক লাখ ৪৭ হাজার টাকা অর্থদণ্ড, শহরের শংকরপুর ইসহাক সড়কের আব্দুল গণির ছেলে আশরাফুল ইসলামের তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড ও এক লাখ ৩৯ হাজার টাকা ৫শ’ টাকা অর্থদণ্ড, মেহেরপুর মুজিবনগরের মঞ্জিল হকের ছেলে আহসান হাবীবের তিন মাসের কারাদণ্ড ও ৮৩ হাজার ৭৮০ টাকা অর্থদণ্ড, কেরানিগঞ্জ সদর উজেলার জয়নগর গ্রামের মৃত মুজিবুর রহমানের ছেলে মাসুদুর রহমানের দুই মাসের কারাদণ্ড ও ৫৩ হাজার ৫শ’ টাকা, মাগুরার শালিখা উপজেলার শতখালী গ্রামের মৃত জয়নাল আবেদীনের ছেলে আমির আলীকে এক মাসের কারাদণ্ড ও ৪৩ হাজার ৪শ’ টাকা অর্থদণ্ড, যশোর সদর উপজেলার বালিয়াডাঙ্গা গ্রামের অহেদ আলীর স্ত্রী শিল্পীয়ারা বেগমের এক মাসের কারাদণ্ড ও ৩০ হাজার টাকাসহ মোটর ৩৮ লাখ ৯৬ হাজার ৬৮০ টাকা অর্থদণ্ডের আদেশ দেয়া হয়। আসামিরা সবাই পলাতক রয়েছেন। বাকি দুই মামলায় দুই আসামির খালাশ প্রদান করা হয়।