উপকারভোগীদের মাঝে চেক বিতরণ
যশোরে সপ্তাহব্যাপী বৃক্ষমেলা শুরু 

2

নিজস্ব প্রতিবেদক :
‘বৃক্ষপ্রাণে প্রকৃতি- প্রতিবেশ, আগামী প্রজন্মের টেকসই বাংলাদেশ’ প্রতিপাদ্যে যশোরে সপ্তাহব্যাপী বৃক্ষমেলা শুরু হয়েছে। ঐতিহাসিক টাউন হল ময়দানে রোববার ( ৩১ জুলাই ২০২২)  এ বৃক্ষমেলার উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য এমপি।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যশোরে অংশীদারিত্বমূলক সামাজিক বনায়নের গাছ বিক্রয়ের প্রায় ১৪ লাখ ২৫ হাজার টাকা ৬২ জন উপকারভোগী ও জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর প্রদান করা হয়েছে। এছাড়া এদিন সামাজিক সংগঠন বিডি ক্লিনের মাধ্যমে বিভিন্ন প্রজাতির দুই শতাধিক গাছের চারা বিতরণ করা হয়।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের শুরুতে প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য এমপি ফিতে কেটে ফেস্টুন ও বেলুন উড়িয়ে এ মেলা উদ্বোধন করেন। সামাজিক বন বিভাগ, কৃষি অধিদপ্তর ও জেলা প্রশাসন যশোরের উদ্যোগে এ মেলার আয়োজন করা হয়েছে।

এ উপলক্ষে ঐতিহাসিক টাউন হল ময়দানের রওশন আলী মঞ্চের শতাব্দী বটমূলে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য এমপি বলেন, গাছ লাগানো নিয়ে আমরা আগে খুব একটা সচেতন ছিলাম না। আমরা দেখেছি বৃক্ষরোপন নিয়ে আগে নামমাত্র অনুষ্ঠান করা হত। যা বর্তমানে আড়ম্বর আয়োজনে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে বৃক্ষমেলার আয়োজন করা হয়। আমরা এমন একজন প্রধানমন্ত্রী পেয়েছি যিনি সব সময় জনকল্যাণের কাজ করে থাকেন। বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার যে স্বপ্ন দেখেছিলেন সেই স্বপ্নকে বাস্তবায়িত করছেন প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা। তার দুরদর্শী দিকনির্দেশনায় এখন ছোট-খাটো অনেক বিষয়ে আমরা সচেতন হই। তিনি সবাইকে তিনটি করে গাছ লাগাতে বলেছেন কারণ আগামী প্রজন্মের জন্য টেকসই বাংলাদেশ গড়তে বৃক্ষরোপনের কোন বিকল্প নেই। সপ্তাহব্যাপী এই মেলার মাধ্যমে জনসচেতনতা বৃদ্ধি পাবে; সাধারণ জনগণ বৃক্ষরোপনে উদ্বুদ্ধ হবে এম আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন যশোরের পুলিশ সুপার প্রলয় কুমার জোয়ারদার ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা শহিদুল ইসলাম মিলন। সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক মো. তমিজুল ইসলাম খান। স্বাগত বক্তব্য দেন সামাজিক বন বিভাগ যশোরের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা এসএম সাজ্জাদ হোসেন।

জেলা প্রশাসন ও সামাজিক বন বিভাগ যশোরের আয়োজনে এ বৃক্ষমেলা চলবে ৬ আগস্ট ২০২২ পর্যন্ত। মেলায় সরকারি বেসরকারি ৩০টি প্রতিষ্ঠান স্টল দিয়েছে। মেলা চলাকালীন সকাল ৯টা থেকে রাত আটটা পর্যন্ত গাছের চারা প্রদর্শন ও বিক্রয় হবে।
সামাজিক বন বিভাগ যশোর সূত্রে জানা গেছে, যশোর সদর হাটবিলা বনায়ন সমিতির উদ্যোগে যশোর সদর উপজেলার নরেন্দ্রপুর ইউনিয়নের রূপদিয়া এলাকায় যশোর খুলনা মহাসড়কের হাটবিলা থেকে রূপদিয়া পর্যন্ত দুই কিলোমিটার সিডলিং এলাকায় ২০০৪-২০০৫ অর্থ বছরে বনায়ন করা হয়।

এখানকার সৃজিত গাছ বিক্রয় করে মোট ২ লাখ ৬৪ হাজার ৬৭১ টাকা আয় হয়েছে। সেখান থেকে উপকারভোগীদের প্রাপ্য শতকরা ৫৫ ভাগ লভ্যাংশ সমিতির ৩৪ জন সদস্যের প্রতিজনকে চার হাজার ৪৩ টাকা করে মোট এক লাখ ৩৭ হাজার ৪৬২ টাকা দেয়া হয়েছে।

এছাড়া একই ইউনিয়নের কামালপুর বাজিয়াডাঙ্গা সামাজিক বনায়ন সমিতির সতীঘাটা বাজার থেকে কুয়াদা বাজার পর্যন্ত পাঁচ কিলোমিটার সিডলিং এলাকায় ২০০২-২০০৩ অর্থ বছরে বনায়ন করা হয়।

এখানকার গাছ বিক্রি করে আয় হয়েছে ১৯ লাখ ২২ হাজার ৩০ টাকা। সেখান থেকে উপকারভোগীদের প্রাপ্য শতকরা ৫৫ ভাগ লভ্যাংশ সমিতির ৩২ জন সদস্যের প্রতিজনকে ৩৩ হাজার ৩৪ টাকা করে মোট ১০ লাখ ৫৭ হাজার ১১৬ টাকা ৫০ পয়সা প্রদান করা হয়েছে।

এদিকে ভূমি মালিক হিসেবে যশোর জেলা পরিষদকে যশোর-খুলনা সড়কের দুই কিলোমিটার এবং বসুন্দিয়া বাজার থেকে বসুন্দিয়া মোড় পর্যন্ত দুই সিডলিং কিলোমিটার এলাকায় গাছ বিক্রয়ের মোট টাকার শতকরা ২০ ভাগ লভ্যাংশ হিসেবে দুই লাখ ৩০ হাজার টাকা প্রদান করা হয়।

জেলা পরিষদের প্রাপ্য টাকা চেকের মাধ্যমে গ্রহণ করেন স্থানীয় সরকার বিভাগ যশোরের উপপরিচালক ও জেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হুসাইন শওকত। অনুষ্ঠানে প্রত্যেককেই চেকের মাধ্যমে তাদের প্রাপ্য বন্টন করা হয়।