যশোর ইনস্টিটিউটেরর বিশেষ বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত

1

নিজস্ব প্রতিবেদক :
স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য এমপি বলেছেন, বৃটিশ ভারতের প্রথম জেলা মহান মুক্তিযুদ্ধের প্রথম শত্রুমুক্ত জেলা যশোর; যে যশোর শিল্প সংস্কৃতির পীঠস্থান যশোর। এই ঐতিহ্য ধরে রাখতে যশোর ইনস্টিটিটিউটকে শিক্ষা ও সংস্কৃতি বিকাশে আরও কার্যকর ভূমিকা রাখতে হবে। যশোর ইনস্টিটিউট’র বিশেষ বার্ষিক সাধারণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

যশোর জেলা বোর্ড ও পৌরসভার সাবেক চেয়ারম্যান এবং নিজ হাতে প্রতিষ্ঠা করা যশোর ইন্সটিটিউটের প্রথম সাধারণ সম্পাদক রায় বাহাদুর যদুনাথ মজুমদারকে যথাযোগ্য মর্যাদায় প্রতিষ্ঠিত করার আহ্বান জানান তিনি।

বি-সরকার মেমোরিয়াল হলের বিশ্বেস্বর সরকার ঘূর্ণায়মান রঙ্গমঞ্চে শুক্রবার (২৯ জুলাই ২০২২)  বিকেলে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। ইনস্টিটিউটের শিশু চিত্ত বিনোদন কেন্দ্রের শিশুদের পরিবেশনায় হয় জাতীয় সংগীত।

এরপর ইনস্টিটিউটের দাতা, আজীবণ, সাধারণ সদস্য এবং যশোর ইনস্টিটিউটের সাথে সম্পৃক্ত; যারা পৃথিবী ছেড়ে চিরবিদায় নিয়েছেন তাদের আত্মার শান্তি কামনায় এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

এতে সভাপতির বক্তব্যে যশোর ইনস্টিটিউটেরর সভাপতি জেলা প্রশাসক মো. তমিজুল ইসলাম খান বলেন, ভাল কাজের স্বীকৃতি প্রদান জরুরী। কিন্তু আমরা গুণী ও যোগ্য মানুষকে স্বীকৃতি দিতে কার্পণ্য করি; যা মোটেই সমীচীন নয়। তিনি সকল ভাল কাজ সাড়ম্বরে করার আহ্বান জানান। এতে অন্যরা উদ্বুদ্ধ হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

সভায় সাধারণ সম্পাদকের বক্তব্যে ডা. আবুল কালাম আজাদ লিটু জানান, আমাদের নির্বাচনী ইশতেহার অনুযায়ী টাউনহল ময়দানের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের জোরদার পদক্ষেপ গ্রহণ করেছি। এরমধ্যে আমরা টাউনহল ময়দানের ভাঙড়ি ব্যবসায়ী, দর্জি ব্যবসায়ী এবং পুকুরপাড়ে অবস্থানরত চটপটি ব্যবসায়ীদের উচ্ছেদ করে টাউনহল ময়দানের সুন্দর পরিবেশ ফিরিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছি। আগামী দিনের উন্নয়ন পরিকল্পনায় আমরা আরও কিছু প্রকল্প গ্রহণ করেছি, এরমধ্যে যশোর ইনস্টিটিউট প্রধান কার্যালয়ের পিছনে ভবন নির্মাণসহ এমএম আলী রোডস্থ যশোর ইনস্টিটিউট মার্কেটের পিছনে মার্কেট নির্মাণ করা হবে। যশোর ইনস্টিটিউট আঞ্চলিক কেন্দ্রীয় বই ব্যাংক ভবনের চতুর্থ তলায় একটি মিউজিয়াম নির্মাণ করার পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। পরিকল্পনা বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে যশোর ইনস্টিটিউটের আর্থিক অবস্থা বিবেচনায় রাখতে হবে।

তিনি আরও বলেন, অবৈধ দখলদারদের রাজনৈতিক পৃষ্ঠপোষকতার কারণে মুন্সী মেহেরুল্লাহ ময়দানের উত্তরাংশে অবৈধ দখলদার দোকানদারদের উচ্ছেদ করা সম্ভব হয়নি। তবে জবর দখলকারীদের দায়েরকৃত মামলার রায় বিচারক যশোর ইনস্টিটিউটের অনুকূলে প্রদান করেছেন। জেলা পরিষদ কর্তৃক দায়েরকৃত বিবাদী মামলাটি আদালতে বিচারাধীন আছে। এ মামলার রায় ইনস্টিটিউটের পক্ষে আসবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

সভায় আলোচ্য বিষয় ছিল- বিগত বার্ষিক সাধারণ সভার কার্যবিবরণী পাঠ ও অনুমোদন, জুলাই ২০২০ থেকে জুন ২০২১ পর্যন্ত বার্ষিক কার্যবিবরণী বিবেচনা ও অনুমোদন যশোর ইনস্টিটিউটের বিভিন্ন বিভাগের ২০২০-২০২১ অর্থবছরের নিরীক্ষাকৃত হিসাবের বিবরণ, বিবেচনা ও অনুমোদন, সংবিধান সংশোধন (চাঁদা-অনুচ্ছেদ-৯, পরিচালনা পর্ষদের নির্বাচন আইন সংশোধন অনুচ্ছেদ ৪১) এবং বিবিধ।

উন্মুক্ত আলোচনায় অংশ নেন- পৌর মেয়র হায়দার গনী খান পলাশ, বীরমুক্তিযোদ্ধা অ্যাড. রবিউল আলম, একরাম উদ দ্দৌলা, অ্যাড. মাহমুদ হাসান বুলু, জাহিদ হাসান টুকুন, তরিকুল ইসলাম তারু, মোস্তাফিজুর রহমান কবির, আসাদুজ্জামান মিঠু, শওকত শাহী, ড. শাহানাজ পারভীন, নজরুল ইসলাম বুলবুল, প্রণব দাস, নাসির উদ্দীন মিঠু, লাবু জোয়ারদার, চঞ্চল সরকার, গাউছুল আজম প্রমুখ।