যশোরে দুই মাদক মামলার দুই আসামির যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

1

নিজস্ব প্রতিবেদক :
যশোরে পৃথক দুটি মাদক মামলার দুই আসামিকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ড দিয়েছে আদালত। একই রায়ে আরেক আসামিকে খালাস দেয়া হয়েছে।

সোমবার স্পেশাল জজ ও অতিরিক্ত দায়রা জজ তৃতীয় আদালতে এই রায় দেয়া হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন স্পেশাল পিপি সাজ্জাদ মোস্তফা রাজা ও এপিপি খোন্দকার মোয়াজ্জেম হোসেন মুকুল।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলো, শার্শা উপজেলার আমড়াখালী গ্রামের সিদ্দিকের ছেলে নজরুল ইসলাম ও একই উপজেলার সরদার বারীপোতা গ্রামের সিরাজ আলীর ছেলে শামীম হোসেন।
মামলার বিবরণে জানা গেছে, ২০২১ সালের ৩১ মে ভোর সাড়ে ৫টার দিকে কোতোয়ালি মডেল থানার এসআই কামরুজ্জামান গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সদর উপজেলার পতেঙ্গালী গ্রামে মাদক বিরোধী অভিযানে যায়। এসময় ওই গ্রামের কাবিল হোসেনের বাড়ির সামনে থেকে ঝিকরগাছার ছুটিপুরের দিক থেকে আসা একটি গাড়ি (ঢাকা মেট্রো-গ-১১-১৮০৩) থামিয়ে তল্লাশি করা হয়। গাড়ি থেকে এক হাজার বোতল ফেনসিডিল উদ্ধারসহ নজরুল ইসলামকে আটক করা হয়। এই ঘটনায় এসআই কামরুজ্জামান আটক নজরুল ইসলামের বিরুদ্ধে কোতোয়ালি থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করেন।

এসআই সাব্বিরুল আলম তদন্ত শেষে একই বছরের ৩১ আগস্ট আটক নজরুল ইসলাম ছাড়াও তার সহযোগী বেনাপোলের দিঘিরপাড় গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে বাবুল হোসেনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে আসামি নজরুল ইসলামের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় বিচারক যশোরের বিশেষ দায়রা জজ ও স্পেশাল জজ (জেলা ও দায়রা জজ) মোহাম্মদ সামছুল হক তাকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড ও ২০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দিয়েছেন।

জরিমানার টাকা অনাদায়ে তাকে আরো ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন। রায়ে একই মামলার অপর আসামি বাবুলের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় খালাস দেয়া হয়েছে।

অপরদিকে ২০১৭ সালের ২ ডিসেম্বর রাত সাড়ে ৮টার দিকে শার্শা থানা পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নাভারণ-বাড়আঁচড়া সড়কের ভুট্টো মিয়ার হোটেলের সামনে অভিযান চালান এসআই ইমরুল হোসাইন। এসময় ৬শ’ গ্রাম হোরোইনস শামীম হোসেনকে আটক করা হয়। শার্শা থানার এসআই কানু চন্দ্র বিশ্বাস তদন্ত শেষে ২০১৮ সালের ২৮ মার্চ আসামি শামীমের বিরুদ্ধে যশোর আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন।

সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় বিচারক (অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ তৃতীয় আদালত) ফাহমিদা জাহাঙ্গির আসামি শামীমকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানার আদেশ দিয়েছেন। জরিমানার টাকা অনাদায়ে তাকে আরো ৫ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন।