লোডশেডিংয়ের সিডিউল প্রকাশ করলো যশোর বিদ্যুৎ বিতরণ বিভাগ-১ ও ২ 

1

নিজস্ব প্রতিবেদক :
পরিবর্তিত প্রেক্ষাপটে সরকারের দেওয়া নির্দেশনা অনুযায়ী চলতে শুরু করেছেন সাধারণ মানুষ। প্রতিদিন রাত ৮টার আগে কেনাকাটা সারছেন। দোকানপাট- শপিংমল বন্ধ হয়ে যাচ্ছে যথাসময়ে। সেইসঙ্গে লোডশেডিংয়ের সিডিউলের সাথে নিজেদের বদলে নেয়ার চেষ্টা করছেন সকলে। সরকারি নির্দেশনার আলোকে মঙ্গলবার থেকে সম্ভাব্য লোডশেডিংয়ের তালিকা প্রস্তুতের কথা থাকলেও গতকাল বুধবার তা প্রকাশ করে যশোর বিদ্যুৎ বিতরণ বিভাগ-১ ও ২। যা কোম্পানি দুটির ওয়েবসাইটের নির্দিষ্ট লিংকে গিয়ে জানতে পারছেন গ্রাহকরা।
ঘোষণা অনুযায়ী দিনে এক ঘণ্টা লোডশেডিং এর কথা বলা হলেও কোথাও কোথাও দুই থেকে তিন ঘণ্টা, আবার গ্রামাঞ্চলে চার থেকে পাঁচ ঘণ্টা লোডশেডিং হয়েছে।
বুধবার সকালে খুলনা থেকে নির্দেশনা পাওয়ার পরে যশোর বিদ্যুৎ বিতরণ বিভাগ লোডশেডিংয়ের শিডিউল প্রকাশ করেছে। তথ্য নিশ্চিত করেছেন যশোর ওয়েস্ট জোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী ইখতেয়ার উদ্দিন।
এদিকে সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী এক থেকে দেড় ঘণ্টা, আবার কোথাও কোথাও দুই ঘণ্টা লোডশেডিং হওয়ার কথা থাকলেও বুধবার বিভিন্ন এলাকায় তিন থেকে চার ঘণ্টা লোডশেডিং হয়েছে।
যশোর ওয়েস্ট জোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী ইখতেয়ার উদ্দিন বলেন, বুধবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে খুলনা বিদ্যুৎ বিতরণ বিভাগ থেকে যশোর জেলার সিডিউল পাওয়ার পরে এলাকাভিত্তিক লোডশেডিং দেওয়া হয়েছে। তবে সিডিউল বুঝতে অসুবিধা হওয়ার কারণে অনেক এলাকায় সিডিউল বিপর্যয় হয়েছে। তবে বৃহস্পতিবার থেকে ঘোষিত সূচি অনুযায়ী লোডশেডিং হবে। সিডিউল অনুযায়ী সকাল ১০টা থেকে ১১টা এবং সন্ধ্যা ৭টা থেকে ৮টা পর্যন্ত চাঁচড়া, খোলাডাঙ্গা, চাঁচড়া চেকপোস্ট এলাকায় লোডশেডিং হবে। একইভাবে আশ্রম মোড়, রেলবাজার, ষষ্টিতলা, পোষ্ট অফিস পাড়া এলাকায় রাত ৩টা থেকে ৪টা লোডশেডিং, রেলরোড, এমকে রোড এলাকায় দুপুর ১টা থেকে ২টা ও রাত ১টা থেকে ২টা পর্যন্ত, মুজিব সড়ক, রায়পাড়া এবং খড়কি রাত ৪টা থেকে ভোর ৫টা ও বিকাল ৫টা থেকে ৬টা পর্যন্ত, মুজিব সড়ক, মিশনপাড়া, কারবালা রোড়, সিভিলকোর্ট মোড়, স্টেডিয়াম পাড়া ভোর ৫টা থেকে ৬টা পর্যন্ত, কাজীপাড়া, সারথী মোড়, মুড়লী, রামনগর, কচুয়া এবং রাজারহাট দুপুর ১২টা থেকে ১টা ও রাত ১২টা থেকে রাত ১টা পর্যন্ত। খড়কী, কারবালা, অরবপুর এবং বিমানবন্দর সড়ক রাত ১১টা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত। সুজলপুর ও ভেকুটিয়া সকাল ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত। বেজপাড়া ও আরএন রোড সকাল ৬টা থেকে সকাল৭টা ও সন্ধ্যা ৭টা থেকে ৮টা পর্যন্ত। শংকরপুর, ইসহাক সড়ক, মেডিকেল কলেজ, ভাঙ্গাগেট ও ছোটনের মোড় এলাকায় সকাল ৭টা থেকে সকাল ৮টা ও রাত ৮টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত। বকচর ও হুসতলা মোড় এলাকায় সকাল ৮টা থেকে ৯টা ও রাত ৯টা থেকে ১০টা পর্যন্ত। নীলগঞ্জ ও তাতীপাড়া এলাকায় সকাল ৯টা থেকে ১০টা ও রাত ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত। তালতলা কবরস্থান, চোপদার পাড়া ও সাদেক দারোগার মোড় এলাকায় রাত ২টা থেকে ৩টা ও দুপুর ৩টা থেকে ৪টা পর্যন্ত।
অপরদিকে যশোর বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগ-২ এর ফিডার অনুযায়ী যশোর মারকাজ মসজিদ এলাকা, খাজুরা স্ট্যান্ড, সেক্টর-৭, নিউটাউন বিসিক এলাকায় সকাল ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত। শেখহাটি, জামরুলতলা বাজার, কিসমত নওয়াপাড়া, তরফ নওয়াপাড়া, ইটভাটা এলাকায় সকাল ৬টা থেকে ৭টা পর্যন্ত। আরএন রোড, পূর্ববারান্দীপাড়া, মোল্লাপাড়া, মাঠপাড়া, কালীতলা, লিচুতলা এবং ২নং কলোনী রাত ২টা থেকে ৩টা ও দুপুর ১টা থেকে ২টা পর্যন্ত। পশ্চিম বারান্দীপাড়া, কদমতলা, অম্বিকাবসু লেন, নাথপাড়া, এমকে রোড, গাড়িখানা ও দড়াটানা মোড় এলাকায় দুপুর ২টা থেকে ৩টা পর্যন্ত। বড়বাজার, কাঠের পোল, এইচএমএম রোড, মাছবাজার, কাঁচা বাজার, নড়াইল কাচাড়ী, উমেষচন্দ্র লেইন এলাকায় রাত ৪টা থেকে ৫টা ও দুপুর ৩টা থেকে ৪টা পর্যন্ত। ঝুমঝুমপুর, বিজিবি, বিসিক, ঢাকারোড, মণিহার, সিটি কলেজ পাড়া, ভিসা অফিস, সাহাপাড়া, বালিয়াডাঙ্গা, পিন্টুর মোড়, ক্লাব মোড় এলাকায় ভোর ৫টা থেকে ৬টা ও বিকাল ৪টা থেকে ৫টা পর্যন্ত। বিসিক শিল্পনগরী, মান্দারতলা মোড়, মান্নান চেয়ারম্যান বাড়ি ও সীতারামপুর এলাকায় ভোর ৬টা থেকে ৭টা ও বিকাল ৫ টা থেকে ৬টা পর্যন্ত। আরবপুর, পাওয়ার হাউজ পাড়া, বিমানবন্দর সড়ক, নিরিবিলি এলাকা, কাজীপাড়া, গরীবশাহ মাজার এবং ডিসি অফিস এলাকায় সকাল ৭টা থেকে ৮টা ও বিকাল ৬টা থেকে ৭টা পর্যন্ত। পালবাড়ী ভাস্কর্য মোড়, কবরস্থানপাড়া, নওদাগ্রাম, ডাকাতিয়া, বৈলপুর, কৃষি গবেষণা, রওশন এমপির মোড় এবং পাগলাদা বিহারী কলোনী এলাকায় সকাল ৮টা থেকে ৯টা ও সন্ধ্যা ৭টা থেকে ৮টা পর্যন্ত। শাহীবাগ, পুলিশ লাইন সড়ক, টালিখোলা, বিবি রোড, কাঁঠালতলা, আমতলা এবং কাজীপাড়া এলাকায় সকাল ৭টা থেকে ৮টা ও রাত ৮টা থেকে ৯ টা পর্যন্ত। ক্যান্টনমেন্ট কলেজ, খয়েরতলা রাস্তার, পালবাড়ী মোড়, পোড়া মসজিদ এবং আরবপুর দিঘীরপাড় এলাকায় রাত ৪ টা থেকে ৫টা ও দুপুর ১টা থেকে ২টা পর্যন্ত। ঢাকারোড, পিবিআই অফিস, গাজীরঘাট রোড, পালবাড়ী কাঁচাবাজার, কাঁঠালতলা, ঢাকারোড বটতলা এলাকায় সকাল ৬টা থেকে ৭টা, বিকাল ৬টা থেকে ৭টা ও রাত ১১ টা থেকে ১২টা পর্যন্ত। ঘোপ সেন্ট্রাল রোড, সদর হাসপাতাল ও পিলুখান রোড এলাকায় সকাল ৮টা থেকে ৯টা ও রাত ৮টা থেকে ৯টা পর্যন্ত। ঘোপ নওয়াপাড়া রোড, হাউজিং অফিস, সদর হাসপাতাল এলাকায় সকাল ৯টা থেকে ১০টা ও রাত ৯টা থেকে ১০টা পর্যন্ত। উপশহর বাবলাতলা বাজার, এ-ব্লক, বিরামপুর এলাকায় সকাল ১০টা থেকে ১১টা ও রাত ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত। বউবাজার, উপশহর ক্লাব, বি-ব্লক বাজার, উপশহর কলেজ, সারথী টেক্সটাইল মিলস এলাকায় রাত ১টা থেকে ২টা, দুপুর ১২টা থেকে ১টা ও রাত ৯টা থেকে ১০টা পর্যন্ত। জেল রোড, জেলখানা মোড়, দড়াটানা ব্রিজ এলাকায় সকাল ৯টা থেকে ১০টা ও রাত ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত সিডিউল ভিত্তিক লোডশেডিংয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।
এদিকে, বুধবার কোন কোন এলাকায় ৩/৪ ঘণ্টা বিদ্যুৎ না থাকায় সমস্যায় পড়ে সাধারণ মানুষ।
এ ব্যাপারে যশোর ওয়েস্ট জোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী শহিদুল ইসলাম বলেন, জেলার মানুষের দুর্ভোগ লাঘোবের জন্য মঙ্গলবার থেকে দোকানপাট, শপিংমলসহ অফিস আদালতের সময় কমিয়ে আনা হয়েছে। রাত ৮টার পরে দোকানপাট, শপিংমল বন্ধ করা হয়েছে।