যশোরে মধুসূদন দত্তের ১৪৯তম প্রয়াণ দিবস উপলক্ষে চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান 

1

নিজস্ব প্রতিবেদক :
মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্তের ১৪৯তম প্রয়াণ দিবস উপলক্ষে যশোরে আলোচনা, চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়েছে। যশোর শিল্পকলা একাডেমির উদ্যোগে একাডেমির মিলনায়তনে বুধবার বিকেলে ‘জন্মিলে মরিতে হবে অমর কে কোথা কবে? চিরস্থির কবে নীর হায়রে জীবন নদে?’ শীর্ষক এ অনুষ্ঠান হয়।
এতে প্রধান অতিথি ছিলেন স্থানীয় সরকার বিভাগ যশোরের উপপরিচালক হুসাইন শওকত। আলোচক ছিলেন বীরমুক্তিযোদ্ধা কলামিস্ট আমিরুল ইসলাম রন্টু, যশোর শিক্ষাবোর্ডের সাবেক উপসচিব বীরমুক্তিযোদ্ধা আব্দুল খালেক, গবেষক মো. মনিরুজ্জামান, সাংবাদিক সাজেদ রহমান বকুল ও মনিরুল ইসলাম। স্বাগত বক্তব্য দেন ও সভাপতিত্ব করেন জেলা কালচারাল অফিসার হায়দার আলী শিম্বা।
শুরুতে একাডেমির শিল্পীরা পরিবেশন করেন মধু সংগীত ‘মধুর বসন্ত আগমনে মধুপ গুঞ্জরে সঘনে…’। এরপর পরিবেশিত হয় বৃন্দ আবৃত্তি। নৃত্য পরিবেশন করে শিশুশিল্পী রূপকথা ও বর্ষা সাহা। মুধুগীতি পরিবেশন করেন অনুপম দাস ও মোয়াজ্জেম হোসেন স্বপন।
আলোচনা শেষে ‘মধুসূদন দত্ত’ শীর্ষক শিশুদের চিত্রাংকন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার ও সনদ বিতরণ করেন অতিথিবৃন্দ।
বিজয়ী শিশুরা হলো- ক বিভাগে লাবিবা জামান লিবা, জুনাইরা আক্তার, জুনাইনা আক্তার, শুভ্র পাল ও মাহিমা জামান কথা। খ বিভাগে সপ্তর্ষী মুখার্জী, পৌমিত দত্ত অর্ঘ্য, আনুশেহ্ আরাবী সকাল ও ইবতেশাম রহমান এবং গ বিভাগে বিজয়ীরা হল- সেজুতি দাশ, শাওলি পৃথি মেধা, আফিয়া সাদিয়া, কাজী জাহিদ আজমাইন সম্পদ ও ফারিয়া আক্তার জ্যোতি।
চিত্রাংকন প্রতিযোগিতায় বিচারক ছিলেন যশোর শিল্পকলা একাডেমির পরিচালনা কমিটির নব-নির্বাচিত যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক চঞ্চল সরকার অনুপম দাস ও ও সদস্য আতিকুজ্জামান রনি ।