যশোরে তামাক বিরোধী কর্মশালায় অতিরিক্ত সচিব
দেশে তামাক সেবনে মারা যায় এক লাখ ৬১ হাজারেও বেশি মানুষ 

1

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোরে তামাক বিরোধী প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার দুপুরে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে এই কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব হোসেন আলী খন্দকার। তিনি বলেন, প্রতিবছর বিশ্বে ধূমপানে ৮০ লাখ মানুষ মারা যায়। বাংলাদেশে তামাকে মারা যায় এক লাখ ৬১ হাজারেও বেশি মানুষ। অর্থকরি ফসলের তালিকা তামাক আছে। তামাক কোম্পানি সরকারকে বছরে ২২ হাজার কোটি টাকা ট্যাক্স দেয়। এসব কারণে তামাক বন্ধ করা যাচ্ছে না। দেশের প্রচলিত আইনে ১৮ বছরের কম বয়সী যুবক-যুবতীদের কাছে সিগারেটসহ তামাকজাত সামগ্রী বিক্রি করা যাবেনা। কিন্তু আমরা সেই আইন ভঙ্গ করে চলেছি। তাই আমাদের সচেতন হওয়া জরুরি। সচেতনতাই আমাদের যুবকদের বিপথের হাত থেকে রক্ষা করবে।

জেলা প্রশাসক তমিজুল ইসলাম খানের সভাপতিত্বে কর্মশালায় বিশেষ অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফিরোজ কবির। এসময় বক্তব্য রাখেন যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. আক্তারুজ্জামান, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট কাজী সায়েমুজ্জামান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মোহাম্মদ মনোয়ার হোসেন, ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. নাজমুস সাদিক, জেলা শিক্ষা অফিসার একেএম গোলাম আযম, প্রেসক্লাব যশোরের সভাপতি জাহিদ হাসান টুকুন, রাইটস যশোরের নির্বাহী পরিচালক বিনয় কৃষ্ণ মল্লিক, চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের প্রতিনিধি আসাদুজ্জামান মিঠু প্রমুখ। অনুষ্ঠানে জনসাধারণকে সচেতন করতে ‘বিড়ি, সিগারেট, জর্দা ও সাদা পাতা খাবেন না; তামাক, হুক্কাও সেবন করবেন না’ নামক একটি সিল যশোর জেনারেল হাসপাতালের তত্বাবধায়কের হাতে তুলে দেন প্রধান অতিথি। যশোর জেনারেল হাসপাতালের সকল রোগীর ব্যবস্থাপত্রে সচেতনতার অংশ হিসাবে সিলটির ছাপ দেয়ার আহ্বান জানান অতিথিবৃন্দ।