তালাক ছাড়াই বাদীর স্ত্রীকে নিয়ে সংসার : যশোর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতিরি কম্পিউটার অপারেটরের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা 

1

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোরে তালাক ছাড়াই অপরের স্ত্রীকে নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর ন্যায় বসবাসের অভিযোগে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতিরি কম্পিউটার অপারেটরসহ দু’জনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা হয়েছে। সোমবার শহরের চাঁচড়া রেলগেট এলাকার মিজানুর রহমান বাদী হয়ে এ মামলা করেছেন। সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট পলাশ কুমার দালাল অভিযোগের তদন্ত করে পিবিআইকে প্রতিবেদন জমা দেয়ার আদেশ দিয়েছেন।

আসামিরা হলো সদরের পুলেরহাট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কম্পিউটার অপারেটর জুমার আলী খান ও খুলনা রূপসার দেয়াড়া গ্রামের শেখ নেকবার আলীর মেয়ে ফাতেমা খাতুন।

মামলার অভিযোগে জানা গেছে, মিজানুর রহমান ২০১৬ সালের ১৯ আগস্ট পারিবারিকভাবে ফাতেমা খাতুনকে বিয়ে করেন। তাদের দাম্পত্য জীবন সুখের ছিল। ব্যবসায়ীক কাজে মিজানুরের দেশের বিভিন্ন স্থানসহ ভারতে থাকতে হতো। পরিবারের অন্য সদস্যদের নিয়ে ফাতেমা বাড়িতে থাকত। ২০১৯ সালের ১৯ জানুয়ারি ফাতেমা সোনার গহনা, টাকা ও মালামাল নিয়ে তার পিতার বাড়ি চলে যায়। তাকে কয়েকবার আনতে গেলে সে আসেনি। এরমধ্যে করোনায় তার পিতা ও দুই বোন মারা যায়। মিজানুর নিজে ও অসুস্থ হয়ে পড়েন। এরপরও ফাতেমাকে কোন অবস্থায় তার বাড়িতে ফিরিয়ে আনতে পারেননি মিজানুর। গত ১ জুলাই ফাতেমাকে রিকসায় করে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কোয়ার্টারে আসামি জুমার আলী খানের বাসায় যেতে দেখেন মিজানুর। পরে তিনি খোঁজ নিয়ে জানতে পারে ফাতেমা আসামি জুমার আলী খানের সাথে একত্রে স্বামী-স্ত্রী হিসেবে বসবাস করছে। মিজানুর তাকে তালাক দেয়নি। এমনকি ফাতেমার দেয়া তালাকের কোন নোটিশও তিনি পাননি। এ অবস্থায় আসামি ফাতেমা ও জুমার আলী খান স্বামী স্ত্রী হিসেবে বসবাস করায় তিনি আদালতে এ মামলা করেছেন।