চৌগাছায় চাচা- ভাইপোর পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন

20

নিজস্ব প্রতিবেদক (চৌগাছা) যশোর॥ যশোরের চৌগাছায় বিএম কামাল পারভেজের বিরুদ্ধে তার চাচা সামসুল আলম পাল্টা সাংবাদিক সম্মেলনে অভিযোগ করলেন আমার ও ছেলে শাহিনুরকে ফাঁসানোর যড়যন্ত্র করা হচ্ছে। বি এম কামাল পারভেজ তার বৃদ্ধ চাচা সামসুল আলমের বিরুদ্ধে গত ২০ জুন যশোর প্রেসক্লাবে সাংবাদিক সম্মলন করেছিলেন। কামাল যশোরের চৌগাছা উপজেলার ফুলসারা ইউনিয়নের বারইহাটি গ্রামের সিরাজুল ইসলামের ছেলে। কামাল বর্তমানে চৌগাছা উপজেলা পরিষদের সামনে কম্পিউটার টাইপিং এর ব্যবসা এবং স্ত্রী ও ছেলে মেয়েদের নিয়ে উপজেলা পরিষদে বসবাস করেন।

এ ঘটনার প্রতিবাদে রোববার বিকালে প্রেস ক্লাব চৌগাছায় সামসুল আলম তার ভাইপো বি এম কামাল পারভেজের বিরদ্ধে পাল্টা সাংবাদিক সম্মেলন করেছেন। তিনি বলেন ভাইপো কামাল পারভেজ উদ্দেশ্য প্রনোদিত হয়ে আমার ও আমার পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে সাংবাদিক সম্মেলন, থানায় জিডি এবং নানাভাবে নাজহাল করে আসছে।

সে এখন আমার ও আমার ছেলে শাহিনের জীবনের জন্য ঝুঁকি হয়ে দাড়িয়েছে। সে ছোট বেলা থেকেই দুষ্ট প্রকৃতির ও মামলাবাজ একটা ছেলে। খুবই দুঃখজনক আমাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয় আমারা তার (কামালের) ছেলে মেয়েদের স্কুলে যেতে দিতে নাকি বাধা দিই। আমি আর কি বলবো নিন্দা আর প্রতিবাদ জানানোর কোন ভাষা নেই। আমি একজন বৃদ্ধ মানুয। বয়স প্রায় ৭০ বছর। আর আমার ছেলে শাহিন একটি সরকারী প্রাইমারী স্কুলের প্রধান শিক্ষক। মুলতঃ বিষয় হলো আমার দুই বোন আয়রন খাতুন ও ছায়রা খাতুনের কাছ থেকে ওয়ারেশ সূত্রে আমি ১৯৯৪ সালের ৬ জুন ও ১৯৯৪ সালের ৪ জুন দুটি দলিল মূলে ৩৩.৭৫ শতক ও ৪৬.২৫ শতক জমি ক্রয় করি।

সেই জমি রেজিঃ মুলে হাজারের অংশ হিসেবে রেকর্ড করি। কামাল এখন আমার বোনদের ওই রেকর্ডীয় জমি তার নামে রেজিঃ করে নেবার জন্য দীর্ঘদিন ধরে নানা ধরনের ফন্দি আটছে। শুধু তাই না গত ৪ নভেম্বর ২০১৭ সালে এরই অংশ হিসেবে আমার বোনদের ফুঁসলিয়ে আমাদের কেনা জমি ফের বোন আয়রা খাতুনের জাতিয় পরিচয় পত্র ও ছায়রা খাতুনের জন্ম সনদ জাল করে জমি রেজিঃ করে নেয়।

এখন আমার বোনদের কাছ থেকে একই জমি ফের রেজিঃ করে নেয়াটা জালয়াতির শামিল। আমি ভাইপো কামালের এ সকল কর্মকান্ডের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। সাংবাদিক সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন সামসুর রহমানের ভাইপো মনিরুল ইসলাম ও ছেলে শাহিনুর রহমান।