স্ত্রীর বিরুদ্ধে যৌতুক নিরোধ আইনে স্বামীর মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোরে যৌতুক নিরোধ আইনে খাদিজা খাতুন নামে এক নারীর বিরুদ্ধে আদালতে মামলা হয়েছে। সোমবার সদরের বসুন্দিয়া গ্রামের সৈয়দ আবেদ আলী বাদী হয়ে এ মামলা করেছেন। সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মঞ্জুরুল ইসলাম অভিযোগটি গ্রহণ করে আসামির প্রতি সমন জারির আদেশ দিয়েছেন। আসামি খাদিজা খাতুন কেফায়েতনগর গ্রামের মৃত জব্বার বিশ্বাসের মেয়ে।

মামলার অভিযোগে জানা গেছে, তারা তিন কন্যা সন্তানের পিতা ও মা। দুই মেয়ের বিয়ে হয়ে গেছে। আসামি খাদিজা খাতুন প্রায় তার স্বামীর সাথে নানা অজুহাতে ঝগড়া বিবাদ করত ও পিতার বাড়ি চলে যেত। একই সাথে জমি কিনে তার নামে লিখে না দিলে সংসার করবে না বলে হুমকি দিত। সংসারের কথা চিন্তা করে ১৯৯৩ সালের ১৫ মার্চ আসামি খাদিজার নামে ৩০ শতক জমি দানপত্র করে রেজিস্ট্রি করে দেন তার স্বামী। এরপর ২০১৬ সালে ১৮ এপ্রিল আরও ৩৫ শতক জমি হেবা ঘোষণা করে দালিল করে দেয়া হয় খাদিজার নামে। এতে খুশি না হয়ে খাদিজা আরও জমি দাবি করে তার স্বামীর সাথে প্রায় ঝগড়া করত। ৬ মাস আগে স্বামীর দেয়া জমি বিক্রি করে অন্যত্র বসবাস করছেন খাদিজা। গত ১৫ জুন আসামিকে তার বাড়িতে ডেকে এসে মীমাংসার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে তিনি আদালতে এ মামলা করেছেন।

শেয়ার