তালায় ঠিকাদারের উপর হামলা ও ছিনতাইয়ের ঘটনায় আদালতে মামলা 

তালা (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি ॥ প্রথম শ্রেণির ঠিকাদার এফএম শাহীনুর রহমানের উপর হামলা ও ছিনতাইয়ের ঘটনায় আদালতে মামলা হয়েছে। খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলার সাহস ইউনিয়নের গজেন্দ্রপুর গ্রামের মৃত এবিএম আনিছুর রহমানের ছেলে এফএম শাহীনুর রহমান ডুমুরিয়ার এক ইউপি সদস্যসহ ৮ জন এবং অজ্ঞান আরও ১৫/২০ জনকে আসামি করে এ মামলা দায়ের করেন। মামলাটি বর্তমানে খুলনার পিবিআই পুলিশ তদন্ত করছে।

মামলার বাদী বর্তমনে যশোরের কেশবপুরের সদরের ভাড়াটিয়া বাসিন্দা এফএম শাহীনুর রহমান এজাহারে উল্লেখ করেন, ২৪ মে রাত ৮ টার দিকে তিনি খুলনার দৌলতপুর থেকে শাহাপুর হয়ে কেশবপুরের উদ্দেশ্য যাচ্ছিলেন। এ সময় ডুমুরিয়া উপজেলার মিকশিমিল এলাকায় পৌঁছলে ডুমুরিয়া উপজেলা খলসি গ্রামের শেখ রাসেল, মো. আমজাদ ফকির, নাসির, জাহাঙ্গীর শেখ, আরাজী সাজিয়াড়া গ্রামের সুজন সরদার, খাজুরা গ্রামের ফিরোজ খলিফা, আরজী ডুমুরিয়া গ্রামের মো. হাফিজুর রহমান মহব্বত সহ ১৫/২০ জন তার গতিরোধ করে। এক পর্যায়ে তাকে মারপিট করে তার মোটরসাইকেল, নগদ ৫০ হাজার টাকা ও ব্যাংকের দুটি চেক বই ছিনিয়ে নেয়। এ সময় তাকে অজ্ঞাত স্থানে আটকে রাখা হয় এবং ২টি চেকের পাতা ও কয়েকটি খালি স্ট্যাম্পে জোরপূর্বক স্বাক্ষর করে নেয়া হয়। এক পর্যায়ে ০১৯১১-৮৯৪১৩৭ মোবাইল নম্বর থেকে তার স্ত্রী তালা ব্র্যাক অফিসে কর্মরত মোর্শেদা আক্তারের ব্যবহৃত ০১৭১২৩০৯৬৬৬ ও ০১৬০৮১৫৬৬২৪ ফোন করে ১০ লাখ টাকা চাঁদা দাবী করে ঘটনাস্থলে যেতে বলে। তিনি তাদের কথা মতো রাত ১১ টার দিকে ডুমুরিয়া উপজেলার খলসি মাদাসার সামনে পৌঁছলে তাকে সহ ও তার সাথে থাকা বাড়ির মালিককেও আটকিয়ে টাকা ও চেক ছিনতাইয়ের চেষ্টা করে দুর্বৃত্তরা। বিষয়টি তাৎক্ষনিক ডুমুরিয়া থানার ওসিকে অবহিত করলে রাত দেড়টার দিকে রঘুনাথপুর পুলিশ ফাঁড়ির এসআই মনির ও সঙ্গীয় ফোর্স সেখান থেকে তাদের উদ্ধার করলেও মটরসাইকেল, চেক বই, টাকা, কাগজপত্র উদ্ধারে ব্যর্থ হয় পুলিশ। এরআগে, পুলিশের উপস্থিতি বুঝতে পেরে দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়।
বর্তমানে খুলনা পিবিআই পুলিশ মামলাটির তদন্ত কার্যক্রম পরিচালনা করছে। তবে অদ্যবধি কোন আসামি আটক না হওয়ায় এবং ছিনতাই জিনিসপত্র উদ্ধার না হওয়ায় তাদের মধ্যে হতাশা বিরাজ করছে। এদিকে, ঘটনার পর থেকে দুর্বৃত্তরা প্রতিনিয়ত ভুক্তভোগী ঠিকাদার ও তার পরিবারের সদস্যদের হুমকি দেয়ায় পরিবারটি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বলে অভিযোগে বলা হয়েছে। এ বিষয়ে উর্দ্ধতন প্রশাসনের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ঠিকাদার শাহীনুর রহমান।

শেয়ার