আরও দেড় কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ : তামান্না লিমিটেডের এমডিসহ ৮ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা 

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ প্রতারণার মাধ্যমে আরও ৫১ বিনিয়োগকারীর ১ কোটি ৫৯ লাখ সাড়ে ৩৫ হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগে তামান্না লিমিটেড ঢাকার এমডিসহ ৮ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে যশোর আদালতে মামলা হয়েছে। বুধবার যশোর সদরের বালিয়া ভেকুটিয়া গ্রামের হযরত আলীর পরামানিকের ছেলে আব্দুল লতিফ বাদী হয়ে এ মামলা করেছেন। সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মঞ্জুরুল ইসলাম অভিযোগে তদন্ত করে পিবিআইকে প্রতিবেদন জমা দেয়ার আদেশ দিয়েছেন। এর আগে তামান্না লিমিটেডের এই কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে আরও তিনটি মামলা হয়েছে।

আসামিরা হলো তামান্না লিমিটেডের এমডি এম ইকবাল, কর্মকর্তা এম শাহাজাহান আলী, সাইদুর রহমান, এম আতাউর রহমান, এম হারুন-অর-রশীদ, এম নুরুল্যা হেলাল, যশোর শাখার ম্যানেজার শেখ ফরহাদ হোসেন ও কোষাধ্যাক্ষ শামসুল ইসলাম।

মামলার অভিযোগে জানা গেছে, আব্দুল লতিফ বাহিনীতে চাকরি করতেন। আসামিরাও বিমান বাহিনীতে কর্মরত ছিলেন। সেই সুবাদে আসামিদের সাথে তার পরিচয়। আসামিরা তামান্না লিমিটেডের নামে চায়না থেকে ইলেক্ট্রনিক্সসহ বিভিন্ন পণ্য আমদানি করে সারাদেশে শো-রুম করে বিক্রি করতেন। তামান্না লিমিটেডের শেয়ার বিক্রির ঘোষণা দিলে বিমান বাহিনীতে চাকরির সুবাদে আসামিদের সাথে পূর্ব পরিচয়ের সূত্রে যশোর শাখায় আব্দুল লতিফসহ মামলার ৫০ জন সাক্ষী বিভিন্ন সময়ে ১ কোটি ৫৯ লাখ সাড়ে ৩৫ হাজার টাকা বিনিয়োগ করেন। প্রত্যেকে বিনিয়োগের টাকা যশোর শহরের আরবপুর অফিসে জমা দিয়েছিলেন। পরবর্তীতে আসামিরা বিনোয়াগকারীদের কোন লভ্যাংশ দেয়নি। বিভিন্ন অজুহাতে ব্যবসা গুটিয়ে নিয়েছেন তারা। এখন বিনিয়োগের টাকা ফেরত চাইলে আসামিরা না দিয়ে ঘোরাতে থাকেন। এখন আসামিরা যাবতীয় টাকা লেনদেনের বিষয়টি অস্বীকার করায় তিনি আদালতে এ মামলা করেছেন।

শেয়ার