যশোরের সেই বৃদ্ধের ঠাঁই হলো পুনর্বাসন কেন্দ্রে

1

সমাজের কথা ডেস্ক॥ পাঁচ দিন ধরে পড়ে ছিলেন যশোর শহরের রেলগেট এলাকায় সড়কের পাশের ফুটপাতে। শরীরে পচন ধরেছিল, দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পড়েছিল চারদিকে। শাহজালাল নামে সত্তরোর্ধ্ব বৃদ্ধের করুণ কাহিনী গত বছরের ২১ নভেম্বর খবর হয়ে উঠে আসে সমাজের কথাসহ বিভিন্ন পত্রিকায়।
বাংলাদেশ পুলিশ নারী কল্যাণ সমিতির (পুনাক) সভানেত্রী জীশান মীর্জার নজরে আসে এ খবর। তিনি বৃদ্ধের খোঁজ নিতে যশোর জেলার পুলিশ সুপার প্রলয় কুমার জোয়ারদারকে অনুরোধ জানান।
পুলিশ সুপার বৃদ্ধকে উদ্ধারে উদ্যোগ নেন। স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তির ব্যবস্থা করেন। পরে পুনাক সভানেত্রীর ব্যবস্থাপনায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় আনা হয় তাকে।
প্রথমে ভর্তি করা হয় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে। তার পরিচর্যার জন্য রাখা হয় আলাদা একজন লোক। পরে তাকে ভর্তি করা হয় রাজধানীর শেরে বাংলা নগরের জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে। সেখানে দীর্ঘ চিকিৎসা শেষে শাহজালালের অবস্থা বর্তমানে উন্নতির দিকে।
শাহজালাল ফিরতে চান পরিবারের কাছে। কিন্তু তিনি তার ঠিকানা মনে করতে পারছেন না।

পুনাক সভানেত্রীর উদ্যোগে প্রয়োজনীয় আইনি প্রক্রিয়া শেষে শাহজালালকে পুনর্বাসনের জন্য রোববার (১২ জুন) বিকালে সমাজসেবা অধিদপ্তরের মিরপুর সরকারি আশ্রয়কেন্দ্রে হস্তান্তর করা হয়।
পুনাক সভানেত্রী জীশান মীর্জা, পুনাক নেতৃবৃন্দ, জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের সংশি¬ষ্ট চিকিৎসকরা এবং সমাজসেবা অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন। শাহজালালের জন্য নানা ধরনের মিষ্টান্ন এবং উপহার সামগ্রী নিয়ে যান পুনাক সভানেত্রী।