এমপি শাহীন চাকলাদারের অনন্য উদ্যোগ
বিনামূল্যের চক্ষুক্যাম্পে ৩ শতাধিক দরিদ্র রোগীর সেবা প্রদান, ছানি অপারেশন হবে ২৫ জনের 

14

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ চোখ দিয়ে ঝাপসা দেখি। শুধু পানি পড়ে। আর রাতে কিছু দেখতে পারি নে। টাকার অভাবে চোখের চিকিৎসাও করাতে পারছিনে। আজ এমপি শাহীন চাকলাদারের উদ্যোগে টাকা ছাড়া চোখের চিকিৎসা নিছি। ডাক্তার চোখ দেখে কিছু ড্রপ আর ওষুধ দিয়েছে। এগুলো এক সপ্তাহ খেয়ে সামনের সপ্তাহে আমার চোখের ছানি অপারেশন করাবে। ছানি অপারেশন করালে নাকি আমি ভালোই দেখতে পারবো। শুক্রবার বিকালে যশোর শহরের কাঁঠালতলাস্থ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার এমপির কার্যালয়ে বিনামূল্যে চক্ষু ক্যাম্পে চিকিৎসা পাওয়ার পরে এভাবেই কথাগুলো বলছিলেন শহরের ঘোপ এলাকার আমেনা বেগম (৮০)। এদিন এই চক্ষু ক্যাম্পে আমেনা বেগমের মতো আরো তিন শতাধিক অসহায় দরিদ্র মানুষ চিকিৎসা নিয়েছেন। এর মধ্যে ২৫ জনকে আগামী সপ্তাহে ছানিসহ বিভিন্ন সমস্যায় চোখের অপারেশন করা হবে। এই ক্যাম্পের সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন এমপি শাহীন চাকলাদার। ক্যাম্পটি পরিচালনা করেন চক্ষু বিশেষজ্ঞ ও আদ্-দ্বীন মেডিকেল কলেজের অধ্যাপক ডা. মো. নাহিদ কামাল।

আয়োজকরা জানান, শুক্রবার বিনামূল্যে চক্ষুক্যাম্প উপলক্ষে আয়োজকরা গত কয়েকদিন ধরে শহরে মাইকিং প্রচার চালান। ভুক্তভোগীরা তাদের পরিচয়পত্র ও সমস্যা নিয়ে শহরের কাঁঠালতলাস্থ এমপি শাহীন চাকলাদারের কার্যালয়ে আসেন। সকাল ৯টা থেকে কার্যালয় চত্বরে মানুষের ঢল নামে। চিকিৎসাসেবা নিতে আসা মানুষেরা নামের তালিকা জমা দিলে টোকেন দেন চক্ষুক্যাম্পের আয়োজকরা। এরপর চিকিৎসক চিকিৎসাসেবা নিতে আসা মানুষের সমস্যা শুনে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে প্রয়োজনীয় ওষুধ ও ব্যবস্থাপত্র দেন। যাদের চোখের অবস্থা খারাপ এমন ২৫জনকে আগামী সপ্তাহে শহরের নোভা ক্লিনিকে বিনামূল্যে অপারেশন করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। আর অন্যদের বিনামূল্যে ওষুধ-ড্রপ ও প্রয়োজনীয় পরামর্শ প্রদান করেন চক্ষুক্যাম্পের পরিচালনাকারী চক্ষু বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. নাহিদ কামাল।

কাঁঠালতলা এলাকার রিকসাচালক মুরশিদ আলীও এদিন চক্ষু চিকিৎসা নেন। তিনি বলেন, টোকেন জমা দিয়েই সিরিয়াল অনুযায়ী চিকিৎসক আমার সমস্যার কথা শুনেন। এরপর তিনি আমার চোখ পরীক্ষা করে ওষুধ ও বিভিন্ন পরামর্শ দেন। কিছু ওষুধও বিনামূল্যে এই ক্যাম্প থেকে পেয়েছি। এই ক্যাম্পের আয়োজক এমপি শাহীন চাকলাদারকে ধন্যবাদ। তার কারণেই আমার মতো অনেকেই এদিন বিনামূল্যে চিকিৎসা পেয়েছি। বাসাবাড়িতে কাজ করা মিনু বেগমও এদিন চক্ষুসেবা পেয়ে খুশি। তিনি বলেন, একেবারেই বিনামূল্যে চিকিৎসা পেয়েছি। চোখের ছানি পড়ায় কিছু পরামর্শ দিয়েছে। সেই অনুযায়ী কিছু ওষুধ খাওয়ার পরে আমাকে আবার বিনামূল্যে চক্ষু অপারেশন করবে বলে ডাক্তার বলেছে। আমি আমার চোখ দিয়ে ভালোভাবে আবার দেখতে পারবো, বিষয়টি ভাবতেও খুব ভালো লাগছে।

বিনামূল্যে চক্ষুক্যাম্প উদ্বোধনের সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা যুবলীগের প্রচার সম্পাদক ও পৌরসভার ৪ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর জাহিদ হোসেন মিলনসহ আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগের বিভিন্ন স্তরের নেতৃবৃন্দ। এসময় চক্ষুক্যাম্পের পরিচালনাকারী চক্ষু বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. নাহিদ কামাল বলেন, চক্ষু ক্যাম্পটি মূলত অসহায় দরিদ্রদের চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করার মূল লক্ষ্য। অনেকেই চোখ নিয়ে নানান সমস্যায় ভুগছেন। কিন্তু অর্থের অভাবে চিকিৎসা নিতে পারছেন না। এমন লোকদের চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করতে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার এমপির সহায়তা ও পরামর্শে এদিন ক্যাম্প পরিচালনা করা হয়। তার সার্বিক সহায়তায় এদিন তিন শতাধিক অসহায় মানুষ চিকিৎসাসেবা পেয়েছে। এর মধ্যে আগামী সপ্তাহে ২৫ জনকে চোখের বিভিন্ন সমস্যায় অপারেশন করা হবে। আশাকরি এসকল অসহায় দরিদ্র মানুষেরা চিকিৎসা সেবার মাধ্যমে আবার স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসবে। তিনি আরো বলেন, সমাজের বিত্তবানরা এমপি শাহীন চাকলাদারের মতো এগিয়ে আসলে বা এমন বিনামূল্যে চিকিৎসা ক্যাম্প করলে সমাজের অসহায় দরিদ্র মানুষের চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করা আরও সহজ হতো।