যশোরে তিন মাদক বিক্রেতার ১০ বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক : যশোরে তিন মাদক বিক্রেতাকে ১০ বছর করে কারাদন্ড ও অর্থদন্ড দিয়েছে একটি আদালত। আসামিরা হলো, শার্শার শ্যামলগাছী গ্রামের মাঝেরপাড়ার শামসুর রহমানের ছেলে রুবেল, যাদবপুর গ্রামের ঘোষপাড়া মনিরের ছেলে মহাসীন আলী ও উত্তর বুরুজবাগান গ্রামের মৃত নুরুল ইসলামের ছেলে আলী হোসেন শিমুল। বৃহস্পতিবার যশোর সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ মো.ইখতিয়ারুল ইসলাম মল্লিক এক রায়ে এ দন্ডাদেশ দিয়েছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পিপি অ্যাডভোকেট এম. ইদ্রিস আলী।

মামলার অভিযোগে জানা গেছে, ২০২০ সালের ২১ আগস্ট রাতে গোপন সংবাদে র্যাব জানতে পারে বেনাপোল থেকে একটি প্রাইভেট কারে ফেনসিডিলি নিয়ে যশোরের দিকে আসছে। সংবাদের সত্যতা যাচাইয়ের জন্য র্যাবের ডিএডি পুলিশ পরিদর্শক অহিদুল ইসলাম ফোর্স নিয়ে শহরের চাঁচড়া চেকপোস্ট এলাকার জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের অফিসের সামনে রাস্তায় অবস্থান নেন। রাত সোয়া ১০ টার দিকে একটি প্রাইভেটকার টহল দলের সামনে আসলে থামার সংকেত দিলে দ্রæত পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। র্যাব সদস্যরা ধাওয়া করে (ঢাকা মেট্রো গ-১৩-৩২৫৪) প্রাইভেট কার ধরে চালকসহ তিনজনকে আটক করে। আটকৃতরা হলো রুবেল, মহাসিন ও আলী হোসেন। এরপর প্রাইভেটকার তল্লাশি করে পিছনের ডালা থেকে ৪শ’ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়। এব্যাপারে র্যাবের ডিএডি পুলিশ পরিদর্শক অহিদুল ইসলাম বাদী হয়ে আটক তিনজনকে আসামি করে মাদক নিয়ন্ত্রণ আইনে কোতয়ালি থানায় মামলা করেন। এ মামলার তদন্ত শেষে ঘটনার সাথে জড়িত থাকায় ওই তিনজনকে অভিযুক্ত করে ওই বছরের ৩০ সেপ্টেম্বর আদালতে চার্জশিট জমা দেন তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মতিয়ার রহমান। দীর্ঘ সাক্ষী গ্রহণ শেষে আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় বিচারক প্রত্যেককে ১০ বছর করে সশ্রম কারাদন্ড, ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা অনাদয়ে আরও ৩ মাস করে বিনাশ্রম কারাদেন্ডর আদেশ দিয়েছেন। সাজাপ্রাপ্ত তিনজনই কারাগারে আটক আছে।

শেয়ার