নেংগুড়াহাটের ফসলি জমির মাটি যাচ্ছে ইটভাটায়, নষ্ট হচ্ছে রাস্তা

নেংগুড়াহাট (মণিরামপুর, যশোর) প্রতিনিধি \ যশোরের মণিরামপুর উপজেলার চালুয়াহাটি ইউনিয়নের নেংগুড়াহাট এলাকায় ৮ঘারা, গৌরীপুর, ল²ণপুর গ্রামে তিন ফসলী জমি থেকে অবৈধভাবে মাটি কাটার মহোৎসব চলছে। কোন কিছু তোয়াক্কা না করে ক্ষমতা ও গায়ের জোরে নিজ এলাকার দাপটে দেখিয়ে এ মাটি কাটছেন তারা।যে মাটি ট্রাকে করে চলে যাচ্ছে ইটভাটায়। আবার পুকুর ভরাটের কাজ করছেন অনেকে। আবার অনেকেই প্রয়োজনে কিংবা আর্থিক দৈন্যতায় তার জমির মাটি বিক্রি করে দিয়ে ফসলি জমি পুকুর বানিয়ে নিচ্ছেন। এতে দিনে দিনে কমছে ফসলি জমি। হুমকির মুখে পড়ছে পরিবেশ ও প্রতিবেশ।

সরেজমিনে দেখা যায়, মণিরামপুর উপজেলার নেংগুড়াহাট এলাকায় প্রতিনিয়ত ট্রলিযুক্ত ট্রাক্টরে ফসলি ক্ষেতের মাটিবহন করে নিয়ে যাচ্ছে ইটভাটায়। ট্রলিযুক্ত ট্রাক্টরে বহন করা মাটি পড়ে গ্রামিণ পাকারাস্তায় নষ্ট হচ্ছে। এছাড়া বেপরোয়া গতিতে এ মাটিবহন করা ট্রাকগুলি চলাচল করায় দুর্ঘটনায় কবলিত হয় পথচারিসহ অন্যান্য যানবহন। বিশেষ করে ঝুঁকিতে থাকে স্কুলগামী শিক্ষার্থীরা ও রাস্তার পাশে বসবাস করা ছোট ছেলে মেয়েরা
চালুয়াহাটি ইউনিয়নের চার নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি আব্দুল গফফার বলেন, দিনে দিনে যেভাবে ইটভাটা তৈরী হচ্ছে তাতে আর ফসলি জমি আগামী কয়েক বছরে পুকুর কিংবা ঘের বিলে পরিণত হয়ে। আট নং ওয়ার্ডের সাবেক মেম্বার মফিজুর রহমান বলেন, ইটভাটায় মাটি নিতে গিয়ে রাস্তা একেবারে নষ্ট করে ফেলছে। বেপরোয়া চালানোতে প্রতিনিয়ত ঘটছে দুর্ঘটনা এই মুহুর্তে অবৈধ মাটির ব্যবসায়ীদের ও ভাটা মালিকগণের লাগাম টেনে ধরা জরুরী। তিনি যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য জেলা প্রশাসন এবং উপজেলা নির্বার্হী কর্মকর্তার হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

শেয়ার