আশাশুনিতে কথিত পরকীয়ার জেরে ভাঙচুর ও মারপিটের অভিযোগ

আশাশুনি (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি \ সাতক্ষীরা আশাশুনি উপজেলার আনুলিয়া ইউনিয়নের গোরালী গ্রামে কথিত পরকীয়ার জের ধরে হামলা ভাঙচুর ও মারপিটের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ২৬ মে সকাল ৮টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

একটি পক্ষ বলছে- একই গ্রামের দুই পরিবারের পাশাপাশি বসবাস এমন সন্দেহজনক পরকীয়া গুঞ্জনে দুটি পরিবারের গৃহবধূদের মধ্যে অনেক তুচ্ছ ঘটনা প্রায় ঘটছে। এর অংশ হিসেবে সকাল ৮টার দিকে একই গ্রামের নুর ইসলাম গাজীর স্ত্রী খায়রুন্নেছা, প্রতিপক্ষ কথিত প্রেমিক রজব আলীর বাড়ির সামনের রাস্তা দিয়ে অন্যের বাড়িতে যাওয়ার পথে রজব আলীর স্ত্রী আছমা গায়ে পড়ে মারপিট শুরু করে। তার ডাকচিৎকারে তার পরিবারের লোকজন এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে যায়। পরে নুর ইসলামের বাড়ির লোকজন এসে আছমার বাড়ির প্রাচীরের দরজা ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করে আছমাকে বেধম মারপিট করে রেখে চলে যায় বলে আছমা জানান। এদিকে খায়রুন্নেছার দেবর আলামিন হোসেন বলেন গত ১ মাস আগে রজব আলীর স্ত্রীকে আমার ভাবি খায়রুন্নেছা পরকীয়া ঘটনায় মারপিট করেছে। তিনি আরো বলেন সন্দেহ ভাজন আমার ভাবির সাথে রজব আলীর পরকীয়া রয়েছে এমনই উভয় পক্ষের পরিবারের অভিযোগ। প্রকৃত পক্ষে উভয় পরিবারের মধ্যে মিথ্যা ভুল বোঝাবুঝির কারণে এমনটাই হচ্ছে।

এ বিষয়ে স্থানীয় চেয়ারম্যান রুহুল কুদ্দুস বলেন, উভয় পক্ষের পরিবারের দুই গৃহবধূ সামান্য হাতাহাতি করেছে বলে আমি শুনেছি। একটি পক্ষ এই তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে মামলা করবেন বলে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে।

শেয়ার