ফুলতলায় হাত বাঁধা অবস্থায় সিএনজি চালকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

ফুলতলা (খুলনা) প্রতিনিধি: ফুলতলায় হাত বাঁধা অবস্থায় মাসুদ রানা (২৮) নামে এক যুবকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার রাত ৯টায় উপজেলা ফুলতলা ইউনিয়নের রাড়ীপাড়া গ্রামের হরমুজ খাঁর ভাড়া বাড়ি থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। মাসুদ রানা যশোর সদরের রফিকুল ইসলামের ছেলে।

ফুলতলা ইউপি চেয়ারম্যান শেখ আবুল বাশার বলেন, সোমবার রাত সাড়ে আটটার দিকে লোকমুখে খবর পেয়ে তিনি ঘটনাস্থলে গিয়ে ঘরের আড়ার সাথে মাসুদ রানার ঝুলন্ত লাশ দেখতে পান। তার পা ছিল মেঝেতে লাগানো এবং হাত দুটি রশি দিয়ে পেছনে বাঁধা ছিল। মাসুদের স্ত্রী মুসলিমা খাতুন (২২) বলেন, সোমবার সকালে স্বামী ও নয়মাস বয়সী পুত্র সন্তানকে নিয়ে যশোর সদর উপজেলার এনায়েতপুরে বাবার বাড়িতে বেড়াতে যাই। দুপুরে খাওয়ার পর মাসুদ ফুলতলায় ফিরে আসতে বলে। কিন্তু আমি থেকে যেতে চাইলে সে অভিমান করে একাই চলে যায়। সন্ধ্যায় আত্মহত্যার কথা জানতে পারি।

ফুলতলা থানার ওসি (তদন্ত) এস এম শাহাদাত হোসেন বলেন, আত্মহত্যার খবর পেয়ে রাত ৯টায় হরমুজ খাঁর বাড়িতে গিয়ে সিএনজি চালক মাসুদ রানার লাশের সুরতহাল রিপোর্ট শেষে থানায় আনা হয়। ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। রিপোর্ট পেলেই ‘হত্যা নাকি আত্মহত্যা’ সেটি নিশ্চিত হওয়া যাবে। মাসুদ ৬মাস ধরে ওই বাড়িতে স্ত্রী ও সন্তানসহ ভাড়া থাকতেন। এ ব্যাপারে ফুলতলা থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

শেয়ার