৪০০ ছুঁয়ে সাকিবের ‘ডাবল’

সমাজের কথা ডেস্ক॥ ম্যাচের উত্তেজনা তখন শেষ। অপেক্ষা কেবল আনুষ্ঠানিকভাবে শেষ হওয়ার। ঠিক এর আগেই অবসান হলো সাকিব আল হাসানের অপেক্ষার। দারুণ এক ব্যক্তিগত অর্জন ধরা দিল এই অলরাউন্ডারের। ফরচুন বরিশালের হারের আগে দলের অধিনায়ক পূর্ণ করলেন টি-টোয়েন্টিতে ৪০০ উইকেট।

বিপিএলে সোমবার মিনিস্টার ঢাকার অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহকে আউট করে সাকিব পা রাখেন এই মাইলফলকে।

৩৯৮ উইকেট নিয়ে এবারের বিপিএল শুরু করেন সাকিব। আসরের প্রথম ম্যাচ তিনি উইকেট নেন একটি। দ্বিতীয় ম্যাচে নিজের প্রথম ৩ ওভারে ছিলেন উইকেটশূন্য। শেষ ওভারের প্রথম বলে তাকে ছক্কায় উড়িয়ে দুই দলের স্কোর সমান করে দেন মাহমুদউল্লাহ। মনে হচ্ছিল, সাকিবের অপেক্ষা দীর্ঘায়িত হবে আরও। কিন্তু পরের বলেই মাহমুদউল্লাহ ক্যাচ দেন কাভারে।

সাকিবের আগে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে ৪০০ উইকেট ছুঁয়েছেন আর কেবল ৪ বোলার। ৪৮৬ ইনিংসে বোলিং করে ৫৫৫ উইকেট নিয়ে সবার ওপরে সাকিবের বরিশাল সতীর্থ ডোয়াইন ব্রাভো।

টি-টোয়েন্টিতে সাড়ে চারশ উইকেটও নেই আর কারও। ৩২৯ ইনিংসে হাত ঘুরিয়ে ৪৩৫ উইকেট নিয়ে তালিকার দুইয়ে ইমরান তাহির, ৩৭৭ ইনিংসে ৪২৫ উইকেট সুনিল নারাইনের। রশিদ খানের ৪২০ উইকেট হয়ে গেছে স্রেফ ২৯৮ ইনিংস বোলিং করেই। সাকিবের ৪০০ পূর্ণ হলো ৩৪৭ ইনিংসে।

৪০০ উইকেটের পাশাপাশি ২০ ওভারের ক্রিকেটে ৫ হাজার ৬১০ রানও করেছেন সাকিব। ২০ ওভারের ক্রিকেটে এই ‘ডাবল’ আছে কেবল আর ডোয়াইন ব্রাভোর। ৫৫৫ উইকেটের সঙ্গে ব্রাভোর রান ৬ হাজার ৬৭২।

বাংলাদেশের বোলারদের মধ্যে ৩০০ উইকেটও নেই সাকিব ছাড়া আর কারও। মুস্তাফিজুর রহমান ১৬৯ ইনিংসে নিয়েছেন ২২৩ উইকেট। রেকর্ডে বাংলাদেশের তিনে রুবেল হোসেন, ১৩৫ ইনিংস বোলিং করে তার শিকার ১৬৯টি।

শেয়ার