শেখ কামাল অনূর্ধ্ব-১৮ জাতীয় ক্রিকেটে প্রতিযোগিতা
ফাইনালে সাতক্ষীরার বিরুদ্ধে খেলবে স্বাগতিক যশোর

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ শেখ কামাল অনূর্ধ্ব-১৮ জাতীয় ক্রিকেটে প্রতিযোগিতায় সাউথ জোনের দ্বিতীয় ফাইনালে উঠেছে সাতক্ষীরা জেলা। দ্বিতীয় সেমিফাইনালে সাতক্ষীরা জেলা ৭ উইকেটে ঝিনাইদহ জেলা দলকে পরাজিত করে। আগামী বুধবার ফাইনাল ম্যাচে স্বাগতিক যশোরের মুখোমুখি হবে সাতক্ষীরা জেলা। গত রোববার রাতে বৃষ্টিতে পিচ ভিজে যায়। যার কারণে প্রতিযোগিতার দ্বিতীয় সেমিফাইনাল ম্যাচটি রূপ নেয় টি-২০ তে। পিচ খেলার উপযোগী করার জন্য নির্ধারিত সময়ের চাইতে তিন ঘন্টা পঞ্চাশ মিনিট দেরিতে খেলা শুরু হয়। এমনকি পিচ খেলার উপযোগী করতে ব্যবহার করা হয় পেট্রোল। পিচে পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে অনেকাংশে পিচ কিছুটা শুষ্ক করা হয়। এর আগে দফায় দফায় দু’আম্পায়ার প্রহল্লাদ কুমার সরকার ও সাজ্জাদ হোসেন বিপুল পিচ ও মাঠ পরিদর্শন করে শেষ পর্যন্ত তারা দুপুর দুইটা পঞ্চাশ মিনিটে খেলা মাঠে গড়ানোর সিদ্ধান্ত নেন। প্রতি ইনিংসে ওভার নির্ধারণ করা হয় কুড়ি।

সোমবার কিছুটা ভেজা পিচে টস হেরে ব্যাট করতে নামে ঝিনাইদহ জেলা। তারা ৯ উইকেট হারিয়ে ১০৬ রানের দলীয় ইনিংস গড়ে। পরে ব্যাট করতে নেমে ১৭ ওভার ১ বলে ৩ উইকেট হারিয়ে জয় নিশ্চিত করে সাতক্ষীরা জেলা। ঝিনাইদহের ব্যাটিং ইনিংসের শুরুটা ভালো হলেও মিডিল ও শেষ দিকের ব্যাটারদের ব্যর্থতায় তারা যুতসই স্কোর গড়তে পারেনি। অভিজিত সাহা অভি ৩৭ বলে চারটি বাউন্ডারি ও একটি ওভার বাউন্ডারিতে নিজ দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩৬ রান, সাব্বির আহমেদ ২৪ বলে একটি বাউন্ডারিতে ১৬ রান করেন। এছাড়া ১৩ বলে একটি বাউন্ডারিতে ১৪ রান করেন তানভীর হাসান ইমন। অতিরিক্ত হতে তারা সংগ্রহ করে ২০ রান।

বল হাতে সাতক্ষীরার হয়ে শেখ সাইদুল হক ৩টি, তানজিম আহমেদ সজীব ও ইমন শাহারিয়ার পলক ২টি করে ও ১টি উইকেট নেন ইনামুল। সাতক্ষীরার ব্যাটিং ইনিংসে সৈয়দ নেওয়াজ শরীফ পাঁচটি বাউন্ডারি ও একটি ওভার বাউন্ডারিতে ১৮ বলে দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩৬ রান করেন। এছাড়া ৩৮ বলে ২২ রান করেন সাহিুদল্লাহ। তিনি একটি বাউন্ডারির পাশাপাশি একটি ওভার বাউন্ডারি হাঁকান। ওসমান গনি ২৯ বলে একটি বাউন্ডারি ও সমসংখ্যক ওভার বাউন্ডারিতে ২৫ রানে অপরাজিত ছিলেন। ১১ বলে ১১ রান করেন দুটি বাউন্ডারিতে রাহাতুল ইসলাম। বল হাতে ঝিনাইদহের পক্ষে মুরসালিন হাসান দুটি ও তানভীর হাসান ইমন নেন একটি উইকেট।

শেয়ার