রনো-পান্না কায়সারসহ ১৫ জন পাচ্ছেন বাংলা একাডেমি পুরস্কার

সমাজের কথা ডেস্ক॥ প্রখ্যাত সাহিত্যিক গবেষণ হোসেনউদ্দীন হোসেন, প্রবীণ রাজনীতিক হায়দার আকবর খান রনো, অধ্যাপক পান্না কায়সারসহ ১৫ জন লেখক, গবেষক ও সাহিত্যক এবছর বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার পেতে যাচ্ছেন।

যশোরের কৃতী সন্তান প্রখ্যাত সাহিত্যিক গবেষণ হোসেনউদ্দীন হোসেন গবেষণা ও প্রবন্ধে এবছর বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছেন।

শহীদ বুদ্ধিজীবী শহিদুল্লাহ কায়সারের স্ত্রী পান্না কায়সার মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক গবেষণার জন্য এই পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছেন। স্মৃতিকথার জন্য পুরস্কার পেতে যাচ্ছেন হায়দার আকবর খান রনো।
রোববার বাংলা একাডেমির সচিব এ এইচ এম লোকমান স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ২০২২ সালের পুরস্কারের জন্য মনোনীতদের নাম ঘোষণা করা হয়।

১১ বিভাগে পুরস্কারে জন্য মনোনীতরা হলেন- কবিতায় আসাদ মান্নান ও বিমল গুহ, কথাসাহিত্যে ঝর্না রহমান ও বিশ্বজিৎ চৌধুরী, প্রবন্ধ বা গবেষণায় হোসেনউদ্দীন হোসেন, অনুবাদে আমিনুর রহমান ও রফিক-উম-মুনীর চৌধুরী, নাটকে সাধনা আহমেদ, শিশুসাহিত্যে রফিকুর রশীদ, মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক গবেষণায় পান্না কায়সার, বঙ্গবন্ধু বিষয়ক গবেষণায় হারুন-অর-রশিদ, বিজ্ঞান বা কল্পবিজ্ঞান বা পরিবেশ বিজ্ঞানে শুভাগত চৌধুরী, আত্মজীবনী বা স্মৃতিকথা বা ভ্রমণকাহিনিতে সুফিয়া খাতুন ও হায়দার আকবর খান রনো এবং ফোকলোর বিভাগে আমিনুর রহমান সুলতান।

একুশের বইমেলার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের এই পুরস্কার প্রদান করবেন বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

মাসব্যাপী একুশের বইমেলা ১ ফেব্রুয়ারি শুরুর কথা থাকলেও করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতির কারণে এবার দুই সপ্তাহ পেছানো হয়েছে। ১৫ ফেব্রুয়ারি থেকে বইমেলা শুরুর প্রস্তুতি নিচ্ছে বাংলা একাডেমি।

১৯৫৫ সালে বাংলা একাডেমি প্রতিষ্ঠার ৫ বছর পর ১৯৬০ সাল থেকে নিয়মিতভাবে বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার দিয়ে আসছে।

শেয়ার