যশোরে প্রবাসী স্ত্রীর কাছে ১০ লাখ টাকা যৌতুক দাবিতে নির্যাতনের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোরে আমেরিকা প্রবাসী স্ত্রীর কাছে ১০ লাখ টাকা যৌতুক দাবিতে নির্যাতনের অভিযোগে মামলা হয়েছে। গত ১৩ জানুয়ারি ভুক্তভোগী কাজী সুমি আহম্মেদ যশোর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালে মামলা করেন। আদালতের নির্দেশে গত শনিবার কোতোয়ালি মডেল থানায় নিয়মিত মামলা হিসেবে রেকর্ড করে পুলিশ। আসামি ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার জাগুশা গ্রামের মৃত আব্দুল ওহাবের ছেলে। আর সুমির পিতার বাড়ি যশোর সদরের বিরামপুরে।

বাদী মামলায় উল্লেখ করেছেন, তিনি আমেরিকা প্রবাসী। ২০১৬ সালের ২৫ মার্চ ২০ লাখ টাকা দেনমোহরে আসাদুজ্জামানের সাথে সুমির বিয়ে হয়। বিয়ের পর দাম্পত্য জীবনে তাদের একটা পুত্র সন্তানের জন্ম হয়। বেশ কিছুদিন ধরে আসাদুজ্জামান স্ত্রী সুমির কাছে ১০ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করেন। বাধ্য হয়ে সুমি গত বছরের ২৩ ডিসেম্বর যশোর আদালতে স্বামীর বিরুদ্ধে যৌতুক নিরোধ আইনে মামলা করেন। এতে আরো ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে আসাদুজ্জামান। একপর্যায় বিষয়টি মিমাংসার জন্য গত ১ জানুয়ারি সুমির খালা তার বাসায় ও

আসাদুজ্জামানকে ডাকেন। এরপর আসাদুজ্জামান এসে যৌতুকের ওই টাকা দিতে হবে বলে চাপ প্রয়োগ করে। সুমি টাকা দিতে অস্বীকার করলে এলোপাতাড়িভাবে মারপিট করে। শিশু সন্তানকে ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে। পরে পরিবারের লোকজন এসে সুমিকে উদ্ধার করে যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করে। সুমি সুস্থ হয়ে আদালতে এই মামলা করেন। আদালতের নির্দেশে থানা পুলিশ নিয়মিত মামলা হিসেবে রেকর্ড করে।

শেয়ার