করোনাভাইরাস উপেক্ষা করে মাঘ মেলা!

সমাজের কথা ডেস্ক॥ করোনাভাইরাসের উচ্চ সংক্রমণ উপেক্ষা করে ভারতের উত্তর প্রদেশের প্রয়াগরাজে মকর সংক্রান্তি উপলক্ষে মাঘ মেলায় দলে দলে মানুষ জড়ো হচ্ছে।

৪৭ দিনব্যাপী দীর্ঘ এ মেলার প্রথম দিন শুক্রবার। এই দিনে গঙ্গায় পবিত্র স্নান করার কথা রয়েছে লক্ষাধিক ভক্তের। হিন্দু ধর্মালম্বীদের বিশ্বাস, মকর সংক্রান্তিতে গঙ্গার জলে স্নান করলে পাপমোচন হয়।
গতবছরও একই ধরনের একটি ধর্মীয় জনসমাগম ভারতে করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ে মারাত্মক প্রভাব ফেলেছিল।

ভারতে বাড়তে থাকা কোভিড সংক্রমণের মধ্যে কোনওরকম সমাবেশে লাগাম টানতে বার বার স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের আবেদনের পরও প্রয়াগরাজ কর্তৃপক্ষ এ বছরের উৎসব বন্ধের কোনও আগ্রহ দেখায়নি বলে জানিয়েছে বিবিসি।

শুক্রবার ধারণ করা টেলিভিশনের কিছু ফুটেজে ভক্তদেরকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে দেখা যায়নি। তাছাড়া, এবিপি’র হিন্দি নিউজ চ্যানেলে নেওয়া এক ফুটেজে দেখা গেছে অন্তত ৭০ শতাংশ মানুষ কোনও মাস্ক পরেনি।

উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ সবাইকে কোভিড-১৯ প্রটোকল মেনে চলার আহ্বান জানিয়েছেন।
ওদিকে মেলা শুরুর আগে থেকেই সংক্রমণের খবর পাওয়া যাচ্ছে। উচ্চ পদস্থ পুলিশ কর্মকর্তা রাজীব নারায়ন মিশ্র বিবিসিকে বলেন, বৃহস্পতিবার দায়িত্বে থাকা অন্তত ৩৮ জন পুলিশ সদস্যের শরীরে কোভিড শনাক্ত হয়েছে।

গত বছরের এপ্রিলে উত্তরাখন্ডের হরিদ্বারে কয়েক লাখ মানুষ কুম্ভমেলা উৎসবে যোগ দিলে সেটিকে ‘সুপার স্প্রেডার’ হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়েছিল।

তবে এই বছর উত্তরাখন্ড কর্তৃপক্ষ নদীতে নেমে স্নান করার ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। সংক্রমণকে উপেক্ষা করে উৎসবের আয়োজন জনস্বাস্থ্যের উপর কী ধরনের পরিণতি বয়ে আনতে পারে তা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন বিশেষজ্ঞরা।

ভারত এখন করোনাভাইরাসের তৃতীয় ঢেউয়ের দ্বারপ্রান্তে অবস্থান করছে, যা ভাইরাসটির নতুন ওমিক্রন ধরনের ফলে আরও খারাপ পরিস্থিতির সৃষ্টি করতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

শেয়ার