বেনাপোল রেল ষ্টেশনে স্বাস্থ্যবিধি নেই

বেনাপোল প্রতিনিধি॥ করোনার নতুন ধরন ওমিক্রন সংক্রমন রোধে সরকারের নানা নির্দেশনা থাকলেও সুরক্ষা ব্যবস্থা নেই বেনাপোল রেল ষ্টেশনে। মাস্ক ছাড়া চলাফেরা যাত্রীদের। ষ্টেশনে স্বাস্থ্য বিভাগের স্কানিং বুথ থাকলেও নেই কোন কার্যক্রম। এতে সংক্রমন বিস্তারের ঝুঁকি বেড়ে চলেছে। গত বছর সংক্রমন বেড়ে গেলে এরুটে রেলে যাত্রী পরিসেবা ও আমদানি বাণিজ্য বন্ধ হয়ে যায়। এতে বিভিন্ন ভাবে মানুষ ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছিল। এমতাবস্থায় সচেতন যাত্রী ও ব্যবসায়ীদের দাবি সুরক্ষা জোরদার করা হোক।

রেল যাত্রী শওকত জানান, ওমিক্রন নিয়ে আমরা আতঙ্কিত। রেলষ্টেশনে শত শত মানুষের সমাগম হচ্ছে। ভারতীয়রা ও আসা যাওয়া করছে। এখানে কোন স্বাস্থ্য বিধি নেই। অনেকেই মাস্ক পরেনা। সুরক্ষা ব্যবস্থার প্রতি কারো তদারকি নেই।

সিঅ্যান্ডএফ ব্যবসায়ী ওবাইদুর রহমান জানান, সংক্রমন বৃদ্ধি পেলে গতবছরের মত রেল পরিসেবা বন্ধ হলে আবারও বড় ধরনের ক্ষতির আশঙ্কা রয়েছে।

বেনাপোল রেল ষ্টেশন মাস্টার সাইদুর রহমান জানান. বর্তমানে ঢাকা-বেনাপোল রুটে যাত্রীবাহী বেনাপোল এক্সপ্রেস, খুলনা- বেনাপোল রুটে বেতনা এক্সপ্রেস ও ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে কার্গো রেলে পণ্য আমদানি ও সরবরাহ হয়ে থাকে।এতে রেল চালকরা ও তাদের সহযোগীরা ষ্টেশনে আসছে। এছাড়া প্রতিদিন শত শত পাসপোর্ট যাত্রী সমাগম হচ্ছে। স্বাস্থ্য বিভাগের দুটি স্কানিং বুথ থাকলেও সেটির কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। এখানে স্বাস্থ্য বিভাগের সুরক্ষা ব্যবস্থা চালু থাকলে ভাল হয়।

শার্শা উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা ও স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ইউছুপ আলী জানান, আগে যখন খুলনা- কলকাতা রুটে যাত্রী চলাচল করতো তখন ষ্টেশনে স্বাস্থ্য বিভাগের স্কানিং বুথ বসানো হয়েছিল। কিন্তু বর্তমানে জনবল সংকটের কারনে আপাতত রেল ষ্টেশনে স্বাস্থ্য বিভাগের কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। তবে জরুরী হলে আবারো সুরক্ষা ব্যবস্থা জোরদারে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শেয়ার