নতুন ইতিহাস গড়ার অভিযানে ক্রাইস্টচার্চে বাংলাদেশ

সমাজের কথা ডেস্ক॥ বছর তিনেক আগে ম্যাচ শুরুর আগের দিন মসজিদে সন্ত্রাসী হামলার পর ভয়ঙ্কর এক পরিস্থিতিতে ক্রাইস্টচার্চ ছেড়ে দেশে ফিরেছিল বাংলাদেশ। নতুন ইতিহাস গড়ার স্বপ্ন চোখে নিয়ে আবার সেই মাঠে খেলতে ফিরেছে তারা। দ্বিতীয় টেস্টে হার এড়াতে পারলেই প্রথমবারের মতো নিউ জিল্যান্ডে সিরিজ জিতবে বাংলাদেশ।

২০১৯ সালের ১৬ মার্চ শুরু হওয়ার কথা ছিল সিরিজের তৃতীয় টেস্ট। এর আগের দিন জুম্মার নামাজের সময় মসজিদে হামালা চালায় এক সন্ত্রাসী। সেই ঘটনার পর এই প্রথম ক্রাইস্টচার্চে খেলবে বাংলাদেশ।

মাউন্ট মঙ্গানুই টেস্ট জিতে শুধু ব্যর্থতার বৃত্তই ভাঙেনি সফরকারীরা, থামিয়েছে নিউ জিল্যান্ডের অজেয় যাত্রাও। দেশের মাটিতে টানা ১৭ ম্যাচ অপরাজিত থাকার পর প্রথম হারের তেতো স্বাদ পেয়েছে নিউ জিল্যান্ড। একই সঙ্গে দেশের মাটিতে টানা আট সিরিজ জয়ী কিউইদের এই জয়যাত্রারও ইতি টেনে দিয়েছে বাংলাদেশ।
২০১৭ সালে তিন ম্যাচের সিরিজে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ১-০ ব্যবধানে হারের পর থেকে ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা ও বাংলাদেশের বিপক্ষে একটি করে সিরিজ জেতে নিউ জিল্যান্ড। ইংল্যান্ড ও ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারায় দুবার করে।

বিশ্বজয়ী দলটিকেই ৮ উইকেটে হারিয়ে ফুরফুরে মেজাজে বৃহস্পতিবার ক্রাইস্টচার্চে পৌঁছেছে বাংলাদেশ। রোববার শুরু হবে সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট।

তিন সংস্করণ মিলিয়ে টানা ৩২ হারের পর নিউ জিল্যান্ডের মাটিতে জয়, স্বাভাবিকভাবেই মুমিনুল হকের দল এখন আত্মবিশ্বাসের তুঙ্গে। সিরিজ শুরুর আগে তাদের মানসিক দিকটা নিয়ে বেশি কাজ করেছিল বাংলাদেশ। দ্বিতীয় ম্যাচের আগে তাদের শারীরিক দিক বেশি গুরুত্ব পাচ্ছে। ট্রেনার নিক লি জানালেন, শেষ টেস্টের জন্য খেলোয়াড়দের তৈরির কাজ এর মধ্যেই শুরু হয়ে গেছে।

“দল মাত্রই ক্রাইস্টচার্চে পৌঁছেছে। আগামী দুই দিন পরের টেস্ট ম্যাচের জন্য প্রস্তুতির প্রক্রিয়া চলবে। আজ সকালে বিমানে ওঠার আগে ফাস্ট বোলাররা জিম করেছে। আগামীকাল দেখব স্কোয়াডের বাকি সদস্যদের কীভাবে পরের ম্যাচের জন্য প্রস্তুত করা যায়।”

“ম্যাচে সবার ভিন্ন ভিন্ন ভূমিকা থাকে, ভিন্ন ধরনের ফিজিক্যাল লোড নিতে হয়। তাই সবাই ভিন্ন অনুশীলন করে, কাল হয়তো বেশি করবে। ম্যাচের আগের দিন ওদের জন্য ‘রিলাক্সিং ডে।’ টেস্টে হয়তো ওদের বেশি পরিশ্রম করতে হবে, কাল হয়ত সেটা কাভার করবে। পরের দিনটা থাকবে ওদের শরীরকে টেস্ট ম্যাচের জন্য প্রস্তুত করতে।”

শেয়ার