মিথ্যা মামলা থেকে রেহাই পেতে কোটচচাঁদপুরে ভুক্তভোগীদের সংবাদ সম্মেলন

কোটচাঁদপুর (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি॥ মিথ্যা ও হয়রানি মূলক মামলা থেকে রেহাই পেতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ভুক্তভোগীরা। শুক্রবার দুপুরে কোটচাঁদপুর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপে¬ক্সে এ সংবাদ সম্মেলন করেন তারা।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন মিলন হোসেন। এ সময় ভুক্তভোগীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সুমন হোসেন,মিকাইল হোসেন,মিরানরুজ্জামান হিরন ও গোলাম হোসেন। মিলন হোসেন বলেন, বাদি দুলালী খাতুন কোটচাঁদপুর উপজেলার রাজাপুর গ্রামের সুমন হোসেনের স্ত্রী। ওই পরিবারের সঙ্গে আমাদের একটা জমি নিয়ে দীর্ঘদিন মামলা চলছে আদালতে। যার রায় ইতোমধ্যে আদালত আমাদের পক্ষে দিয়েছেন। এরপ্রেক্ষিতে আমরা ওই জমির দখল নিতে গেলে বাধে বিবাদ। আর এ বিবাদ ও স্থানীয় ভাবে তারা কোন সুবিধা করতে না পেরে আদালতে ও থানায় মামলা করতেই আছে। তারা বলছে ওই জমি না ছাড়া পর্যন্ত এভাবে মামলা দিতেই থাকবেন। এরমধ্যে গত ২৩ সেপ্টেম্বর দুলালী খাতুন বাদি হয়ে আদালতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালে মামলা করেন। ওই মামলায় আমরা আদালতে হাজিরা দিতে গেলে আদালত আমাদের আটকে দেন। এরপর গত ৯ ডিসেম্বর জামিন নিয়ে বাড়ি আসি। এরমধ্যে বাদি দুলালী খাতুন আবারও আমাদের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন। যাতে করে আমরা আর্থিক ও সামাজিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছি। এ কারনে সংশ্লি¬ষ্ট কর্তাব্যক্তিদের কাছে আমরা মিথ্যা মামলার সুষ্ট তদন্তের দাবি জানাচ্ছি। তারা বলেন, ওই মামলায় যদি আমরা দোষি হই, তাহলে দেশের প্রচলিত আইনে যে শাস্তি হয় তা মাথা পেতে নিবো। অন্যদিকে বাদি পক্ষের মামলা মিথ্যা প্রমানিত হলে তাদের ও দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবি করেন তারা। উল্লেখ্য ভুক্তভোগী সুমন হোসেন ও মিলন হোসেন রাজাপুর গ্রামের বাসিন্দা। আর মিকাইল হোসেন একই উপজেলার বলনগর গ্রামের বাসিন্দা।

শেয়ার