দুর্নীতির শ্বেতপত্র প্রকাশ ও জড়িতদের বিচারসহ ছয় দফা দাবিতে বাম জোটের স্মারকলিপি

যশোর শিক্ষা বোর্ডের সাত কোটি টাকা জালিয়াতি

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ যশোর শিক্ষা বোর্ডে সাত কোটি টাকা জালিয়াতির মাধ্যমে আত্মসাতের ঘটনায় দুর্নীতির শ্বেতপত্র প্রকাশ, দুর্নীতির সাথে সম্পর্ক সকল পক্ষের বিচারসহ ছয় দফা দাবিতে স্মারকলিপি দিয়েছেন বাম গণতান্ত্রিক জোটের নেতৃবৃন্দ। বুধবার দুপুরে বাম গণতান্ত্রিক জোটের যশোর জেলা শাখার নেতৃবৃন্দ বর্তমান বোর্ড চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. আহসান হাবিবের কাছে স্মারকলিপি প্রদান করেন। স্বারকলিপি গ্রহণ করে বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. আহসান হাবিব এই ছয় দফা যৌতিক এবং দুর্নীতির উৎপাটনের সকল ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে নেতৃবৃন্দকে আশ্বস্ত করেন।

স্মারকলিপিতে বলা হয়েছে, এই দুর্নীতির সাথে আরো অনেকেই জড়িত বলে ইতিমধ্যে প্রকাশ পেয়েছে। অনেকে দুর্নীতির সাথে জড়িতদের রক্ষার জন্য স্বাক্ষর সংগ্রহ করেছে। এই দুর্নীতির টাকা ঠিকাদারসহ অনেকের ব্যাংক একাউন্টে ঢুকেছে। সারাদেশে এই লুটপাট ও দুর্নীতির খতিয়ান ইতিমধ্যে প্রকাশ পেয়েছে। যশোর শিক্ষা বোর্ডের কর্মকর্তা, কর্মচারী, ঠিকাদার, ব্যাংকের কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ যারাই জড়িত হোক না কেন, তদন্তের মাধ্যমে দোষীদের চিহ্নিত করে কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। ৬ দফা দাবিগুলো হলো (১) অবিলম্বে শিক্ষাবোর্ডের দুর্নীতির শ্বেতপত্র প্রকাশ করতে হবে, (২) দুর্নীতির সাথে জড়িতদের গ্রেপ্তার ও বিচারে সোপার্দ করতে হবে, (৩) অসাধু ব্যবসায়ী ও ব্যাংক কর্মকর্তাদের গ্রেপ্তার ও বিচার করতে হবে, (৪) যারা দুর্নীতির সাথে জড়িত তাদের চাকরি থেকে বরখান্ত ও গ্রেপ্তার করতে হবে, (৫) দীর্ঘদিন না হওয়া অডিট কাজ সম্পন্ন করতে হবে। অডিট না হওয়ার জন্য যুক্ত ব্যক্তিদেরকে আইনামলে আনতে হবে, (৬) প্রশাসনের সর্বস্তরের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে হবে। স্মারকলিপি প্রদানকালে উপস্থিত ছিলেন জোটের পক্ষে জেলা সমন্বয়ক ও কমিউনিস্ট লীগ জেলা সম্পাদক তসলিম উর রহমান, সিপিবি’র জেলা সভাপতি এ্যাডভোকেট আবুল হোসেন, বাসদ (মার্কবাদী) জেলা সমন্বয়ক হাচিনুর রহমান, ওয়ার্কার্স পার্টির (মার্কবাদী) জেলা সম্পাদক জিল্লুর রহমান ভিটু, কমিউনিস্ট লীগনেতা শেখ শাহাজান প্রমুখ।

শেয়ার