চাঁদাবাজির অভিযোগে যশোরের চিহ্নিত সন্ত্রাসী সানু আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোরের চিহ্নিত সন্ত্রাসী সানুকে আটক করেছে পুলিশ। এক ব্যবসায়ীর কাছে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবির অভিযোগে গত ২৬ নভেম্বর সানুসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন রিফাত হাসান রিপন নামে এক ব্যবসায়ী। এতদিন পলাতক থাকার পরে গত বুধবার রাতে বাড়ি থেকে পুলিশ সানুকে আটক করে। আটক সানু যশোর শহরের রেলগেট পশ্চিমপাড়ার ঢাকাইল্যা লিয়াকতের ছেলে।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, রিফাত হাসান রিপন ইট ও বালুর ব্যাসা করেন। আরেক আসামি সন্ত্রাসী পিচ্চি রাজা গত ২২ নভেম্বর দুপুরের দিকে ব্যবসায়ী রিফাত হাসান রিপনকে মোবাইলে ডেকে শহরের সিভিল কোর্ট মোড়ে নিয়ে যায়। সেখানে যাওয়ার পরে রিপনের কাছে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে পিচ্চি রাজা। চাঁদার টাকা দিতে অস্বীকার করায় তাকে খুন জখমের হুমকি দেয়। ২৫ নভেম্বর রাত সাড়ে ৭টার দিকে সানু মোবাইলে রিপনকে জানায় একটি বালুর ট্রাক আটক করা হয়েছে। ওই ট্রাক যাচাই করার জন্য রিপনকে সেখানে ডাকা হয়। সেখানে আসার পরে রিপনের কাছে ওই সন্ত্রাসীরা ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে। আর টাকা দিতে রাজি না হওয়ায় তাকে ছুরি ও রাম-দা দিয়ে এলোপাতাড়িভাবে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করে। এসময় তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে ওই সন্ত্রাসীরা পালিয়ে চলে যায়। এরপর রিপনের চাচাতো ভাই তাকে উদ্ধার করে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। এই ঘটনায় মামলা হলেও আসামিরা পলাতক ছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা চাঁচড়া ফাঁড়ি পুলিশের এসআই হাফিজুর রহমান বুধবার ভোর রাতে বাড়ি থেকে সানুকে আটক করেন। এই মামলার অন্য আসামিরা হলো, রেলগেট কলাবাগানের মজিবরের ছেলে পিচ্চি রাজা, রেলগেট পশ্চিমপাড়ার খালেকের ছেলে শুকুর, চাঁচড়া রায়পাড়ার মেচিয়ার খোকনের ছেলে গোল্ডেন সাব্বির, শংকরপুর এলাকার আকাশ ও সদর উপজেলার মন্ডলগাতি গ্রামের নওয়াব আলী খোকনের ছেলে শিমুল। উল্লেখ্য, আসামি পিচ্চি রাজা ও গোল্ডেন সাব্বিরের বিরুদ্ধে ডজন খানেক করে হত্যা, ডাকাতি, মাদক, বোাবাজি ও চাঁদাবাজির মামলা রয়েছে।

শেয়ার