সোনালী অতীত ক্লাবের প্রীতি ফুটবল ম্যাচ ॥ বৃষ্টি ভেজা মাঠে সাবেক ফুটবলারদের মিলনমেলা

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদের প্রভাবে হচ্ছে বৃষ্টি। ইচ্ছা থাকলেও মাঠে আসা হয়নি অনেকের। তাতে কি! নিজেদের সেরাটি তুলে ধরতে কুণ্ঠাবোধ করেননি ফুটবলাররা। ছোট ছোট পাস কিংবা লম্বা শটে বৃষ্টি ভেজা মাঠে খেলার মজা উপভোগ করছিলেন প্রত্যেকে।

রোববার বিকালে যশোর শামস্-উল-হুদা স্টেডিয়ামে ঢাকার সোনালী অতীত ক্লাব ও যশোরের সোনালী অতীত ক্লাবের মধ্যে এক দিনের প্রীতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়। প্রীতি ম্যাচে ঢাকা সোনালী অতীত ক্লাবের কাছে ১-০ গোলে হারে যশোর সোনালী অতীত ক্লাব। ঢাকার সোনালী অতীত ক্লাবের হয়ে খেলেন এক সময়ের জাতীয় দলের মাঠ কাঁপানোর সব তারকা ফুটবলাররা। বৃষ্টির কারণে খেলা ২০ মিনিটে নির্ধারিত হয়। খেলায় বিরতি থেকে ফিরে আক্রমণ পাল্টা আক্রমণে খেলছিলো উভয় দল। কিন্তু খেলার ১৭ মিনিটের দিকে ঘটে এক বিপত্তি। জাতীয় দলের সাবেক ফুটবলার মুরাদ আহমেদ মিলনকে ডি-বক্সের মধ্যে জার্সি টেনে ধরে ফেলে দেন যশোরের শান্ত। পেনাল্টি থেকে গোলটি করেন জাতীয় দলের সাবেক খেলোয়াড় মোহাম্মদ আরমান। নির্ধারিত ২০ মিনিট সময় শেষে ১-০ গোলে জয়ী হয় ঢাকা সোনালী অতীত ক্লাব।

ঢাকার সোনালী অতীত ক্লাবের হয়ে খেলেছেন জাতীয় দলের ও ঢাকা লীগের সাবেক খেলোয়াড়েরা। দলে ছিলেন হাসানুজ্জামান খান বাবুল, সত্যজিৎ সাহা রুপু, ইলিয়াস হোসেন, মিজানুর রহমান মিজান, মোহাম্মদ ইকবাল গফুর, সৈয়দ গোলাম জিলানী, শামসুজ্জামান ইউসুফ, মোহাম্মদ আরমান, আতাউর রহমান খান, সুলতান আহমেদ, নাসিম আহসান আরিফ হিরু, কামাল হোসেন, আব্দুর রশিদ, শফিউর রহমান মনি, কামরুল ইসলাম, শেখ জাহিদুর রহমান মিলন, হানিফ রাশেদ ডাবলু, মুরাদ আহমেদ মিলন, সাইদুজ্জামান মিলন, ইসরাফিল, আশরাফুল ইসলাম আপেল, আবুল হাসান পাপ্পু, মিজানুর রহমান ডন, তোফাজেল হাসান অপু, ফেরদৌস ফারুক, মিজানুর রহমান মিনার, রফিকুল ইসলাম, ইকবাল চৌধুরী। দু’দলের হাতে পুরস্কার তুলে দেন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সহ-সভাপতি ও সংসদ সদস্য কাজী নাবিল আহমেদ। সোনালী অতীত ক্লাবের ভারপ্রাপ্ত সভাপিত মোহাম্মদ শফিকউজ্জামানের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন যশোর জেলা প্রশাসক ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি তমিজুল ইসলাম খান, পুলিশ সুপার প্রলয় কুমার জোয়ারদার, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক ইয়াকুব কবির।

শেয়ার