২০২২ শিক্ষাবর্ষে অনলাইনে ভর্তি আবেদন শুরু 
যশোরের ৪টি সরকারি স্কুলে ৭২০টি আসনে ভর্তি হতে পারবে শিক্ষার্থীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোরসহ সারা দেশের সরকারি-বেসরকারি স্কুলগুলোতে ২০২২ শিক্ষাবর্ষে বিভিন্ন শ্রেণিতে ভর্তির জন্য অনলাইনে আবেদন শুরু হয়েছে। যশোরে ৪টি সরকারি স্কুলের মধ্যে দুটিতে তৃতীয় শ্রেণিতে এবং বাকি দুটিতে ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে মোট ৭২০ আসন শূন্য রয়েছে। গতকাল থেকে শুরু হওয়া এ আবেদনপত্র গ্রহণ চলবে আগামী ৮ ডিসেম্বর বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত। আগামী ১৫ ডিসেম্বর অনলাইনে লটারির মাধ্যমে শিক্ষার্থী নির্বাচন করা হবে।

যশোর শিক্ষা অফিস সূত্রে জানাযায়, যশোর জেলার ৪টি সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় রয়েছে। দুই শিফটের প্রতিষ্ঠান যশোর জিলা স্কুল ও যশোর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে আসন খালি না থাকায় শুধুমাত্র তৃতীয় শ্রেণিতে ভর্তি আবেদন গ্রহণ করা হচ্ছে। অন্যদিকে বাকি দুটি প্রতিষ্ঠান মণিরামপুর সরকারি পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও মণিরামপুর সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ে ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে ভর্তির জন্য আবেদন করার সুযোগ রয়েছে।

এদিকে, সরকারি নিদের্শনা অনুযায়ী সরকারি স্কুলের কর্মরত শিক্ষক-শিক্ষিকা, কর্মচারীদের ভর্তি উপযুক্ত সন্তান সংখ্যার সমসংখ্যক আসন ওই প্রতিষ্ঠানে সংরক্ষিত থাকবে। তাদের অনলাইনে ভর্তির আবেদনের প্রয়োজন নেই। স্ব স্ব প্রতিষ্ঠান থেকে নাম পাঠিয়ে দিলেই সেই শিক্ষার্থী সংরক্ষিত আসনে ভর্তি হতে পারবে। সেই অনুযায়ী যশোর জিলা স্কুলের ৩য় শ্রেণিতে প্রভাতী ও দিবা শাখা মিলে আসন সংখ্যা ২৪০টি। এই দুই শিফটে সংরক্ষিত আসন ২টি করে মোট ৪টি আসন। যশোর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ২৪০টি আসনের বিপরীতে সংরক্ষিত আসন প্রভাতীতে ৩টি এবং দিবা শাখায় ২টি মোট ৫টি। এছাড়া মণিরামপুর সরকারি পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ১২০টি আসনের বিপরীতে ২টি আসন সংরক্ষিত। অপরদিকে মণিরামপুর সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ে ১২০টি আসনের বিপরীতে ২টি আসন সংরক্ষিত রয়েছে।

যশোর জিলা স্কুলের প্রধান শিক্ষক সোয়াইব হোসেন বলেন, ‘মর্নিং ও ডে শিফট মিলে প্রতিষ্ঠানের ৩য় শ্রেণিতে ২৪০টি আসন আছে। তবে স্কুলের কর্মরত শিক্ষক-শিক্ষিকা, কর্মচারীদের ভর্তি উপযুক্ত সন্তানের জন্য ৪টি আসন সংরক্ষিত আছে। বাকি ২৩৬টি আসনের বিপরীতে অনলাইনে ভর্তি আবেদন গ্রহণ চলছে।’

যশোর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক লায়লা শিরীন সুলতানা বলেন, ‘করোনার জন্য শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ ছিলো। দীর্ঘদিন পরে আবারো ভর্তি কার্যক্রম শুরু হয়েছে। তবে ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে আসন খালি না থাকায় শুধু তৃতীয় শ্রেণিতে ভর্তি আবেদন করতে পারবেন অভিভাবকরা।’

যশোর জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা গোলাম আযম বলেন, ‘যশোর জিলা স্কুল এবং সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ শ্রেণির আসন খালি না থাকায় শুধুমাত্র তৃতীয় শ্রেণিতে ভর্তি আবেদন গ্রহণ করা হচ্ছে। অন্যদিকে বাকি দুটি প্রতিষ্ঠান মণিরামপুর সরকারি পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয় এবং মণিরামপুর সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ে ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে ভর্তির জন্য আবেদন করতে পারবে শিক্ষার্থীরা। ডিসেম্বরের মধ্যে ভর্তি কার্যক্রম শেষ হবে এবং ১ জানুয়ারি থেকে ক্লাস শুরু হবে। এছাড়াও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ব্যবস্থাপনায় দ্রুত স্কুলে টিকাদান কার্যক্রম শুরু হবে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

 

শেয়ার