শারমিনের সেঞ্চুরিতে ২৬৯ রানের জয় বাংলাদেশের

সমাজের কথা ডেস্ক॥ শক্তি-সামর্থ্যে দুই দলের পার্থক্য অনেক। তবে মাঠের ক্রিকেটে তো সবসময় সেই ব্যবধান ফুটিয়ে তোলা যায় না। বাংলাদেশের মেয়েরা পারল ঠিকই। শারমিন আক্তার সুপ্তার দুর্দান্ত অপরাজিত সেঞ্চুরিতে যুক্তরাষ্ট্রের মেয়েদের উড়িয়ে দিল বাংলাদেশ।

মেয়েদের ওয়ানডে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে বাংলাদেশের জয় ২৭০ রানে। আগের ম্যাচে বাংলাদেশ হারিয়েছিল পাকিস্তানকে।

হারারের সানরাইজ স্পোর্টস ক্লাব মাঠে মঙ্গলবার ৫০ ওভারে বাংলাদেশ তোলে ৫ উইকেটে ৩২২ রান। শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত ব্যাট করে ১৩০ রানে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন শারমিন।

রান তাড়ায় যুক্তরাষ্ট যেতে পারেনি শারমিনের রানের কাছাকাছিও। গুটিয়ে যায় তারা স্রেফ ৫৩ রানে।
শারমিন ও দলের এই অর্জনগুলি অবশ্য আন্তর্জাতিক রেকর্ডে বিবেচিত হবে না। এটি ‘লিস্ট এ’ ম্যাচ, আন্তর্জাতিক ওয়ানডে নয়।

টস হেরে ব্যাটিংয়ে নামা বাংলাদেশকে দারুণ সূচনা এনে দেন শারমিন ও মুর্শিদা খাতুন। প্রথম ওভার থেকেই প্রায় প্রতি ওভারে বাউন্ডারি আদায় করতে থাকেন দুজন। ১৬ ওভারে দুজন তুলে ফেলেন ৯৬ রান।
জুটি ভাঙে মুর্শিদার বিদায়ে। স্টাইলিশ এই বাঁহাতি বিদায় নেন ৫৬ বলে ৪৭ রান করে।

রানের গতি আরও বাড়ে পরের জুটিতে। নিগার সুলতানা গিয়েই দারুণ সব শট খেলতে থাকেন। পরপর দুই ওভারে তিনি মারেন চারটি বাউন্ডারি। তবে রান আউটে কাটা পড়ে শেষ হয় বাংলাদেশ অধিনায়কের সম্ভাবনাময় ইনিংসটি (২৬ বলে ৩৩)।

তৃতীয় উইকেটে ১৩৭ রানের দুর্দান্ত জুটি গড়েন শারমিন ও ফারজানা হক। জুটির শুরুটা ছিল ধীরস্থির। ফারজানার রান এক পর্যায়ে ছিল ২৫ বলে ১৫। শারমিনও ওই সময়টা সাবধানে এগোচ্ছিলেন। পরে রানের গতি বাড়ান দুজনই।

তারা নরিসকে বাউন্ডারি মেরে শারমিন সেঞ্চুরি স্পর্শ করেন ১১৬ বলে। ফারজানার ব্যাটে তখন আসতে থাকে বাউন্ডারির পর বাউন্ডারি।

৬২ বলে ৬৭ রান করে ফারজানার বিদায়ে শেষ পর্যন্ত ভাঙে এই জুটি। তবে শারমিনকে থামানো যায়নি। ৫০ ওভার খেলে মাথা উঁচু করেই ফেরেন তিনি অপরাজিত থেকে। তার ১৪১ বলের ইনিংসে চার ১১টি।
শেষ দিকে লতা ম-ল খেলেন ১০ বলে ১৭ রানের ক্যামিও।

এই রান তাড়ার সামর্থ্য আমেরিকান মেয়েদের ছিল না। নিজেদের ছাড়িয়ে যেতে তারা পারেওনি। শুরুতে অবশ্য উইকেট কিছুটা ধরে রাখতে পারে তারা। প্রথম ৮ ওভারে রান ১৫ হলেও উইকেট হারায় তারা কেবল ১টি। তবে পরে বাংলাদেশের স্পিন আক্রমণে হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ে তাদের ইনিংস।

অভিজ্ঞ সালমা খাতুন ১০ ওভারের ৫টিই নেন মেডেন। সালমার মতো রুমানা আহমেদ ও ফাহিমা খাতুনও নেন দুটি করে উইকেট।

গ্রুপ পর্বে বাংলাদেশের পরের ম্যাচ বৃহস্পতিবার থাইল্যান্ডের বিপক্ষে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:
বাংলাদেশ: ৫০ ওভারে ৩২২/৫ (মুর্শিদা ৭৪, শারমিন ১৩০*, নিগার ৩৩, ফারজানা ৬৭, রুমানা ৪, রিতু ২, লতা ১৭*; মোকশা ২/৬৪)।

যুক্তরাষ্ট্র: ৩০.৩ ওভারে ৫৩ (নরিস ১৬, শ্রীহর্ষ ১৫; সালমা ১০-৫-১০-২, নাহিদা ৬-২-১১-০, ফাহিমা ২.৩-১-৫-২, রুমানা ৭-২-১১-২, জাহানারা ৪-০-১৫-১, রিতু ১-১-০-০)।
ফল: বাংলাদেশ ২৬৯ রানে জয়ী

প্লেয়ার অব দা মাচ: শারমিন আক্তার

শেয়ার