৯ মাস পিছিয়ে শুরু এসএসসি পরীক্ষা ॥ প্রথম দিনেই যশোর বোর্ডে অনুপস্থিত ১৭১ জন

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ প্রতীক্ষা আর জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে শেষ পর্যন্ত এসএসসি পরীক্ষা শুরু হয়েছে। যশোরসহ সারা দেশে একযোগে রোববার সকাল ১০টা থেকে পরীক্ষা শুরু হয়। ভিন্ন ব্যবস্থায় শুরু হওয়া এবারের পরীক্ষা শেষ হবে আগামী ২৩ নভেম্বর। করোনা মহামারির কারণে বিশেষ সতর্কতার অংশ হিসেবে প্রতিটি পরীক্ষার সময় নামিয়ে আনা হয়েছে দেড় ঘণ্টায়। এদিকে, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ড যশোরের অধীনে ২৯১টি কেন্দ্রে এসএসসি পরীক্ষার প্রথম দিনে পদার্থবিজ্ঞানে ১৭১ জন পরীক্ষার্থী অনুপস্থিত ছিলো। যা গত বছরের এসএসসি পরীক্ষায় এই বিষয়ে অনুপস্থিত ছিলো ৬৬৪ জন।

জানা যায়, করোনা মহামারির কারণে ৯ মাস পিছিয়ে রোববার থেকে শুরু হয় এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা। এ বছর যশোর মাধ্যমিক উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের অধীনে পরীক্ষার্থী ছিলেন এক লাখ ৮১ হাজার ৪৩০ জন। এরমধ্যে বিজ্ঞান বিভাগে ৩৭ হাজার ছয়শ’ একজন, মানবিক বিভাগে এক লাখ ১৭ হাজার একশ’ নয়জন এবং ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে ২৬ হাজার পাঁচশ’ ৭২ জন। পরীক্ষা শুরুর সকাল থেকে যশোর সরকারি বালিকা বিদ্যালয়, আব্দুস সামাদ মেমোরিয়াল একাডেমি, যশোর জিলাস্কুলসহ কয়েকটি কেন্দ্র ঘুরে সুষ্ঠুভাবে পরীক্ষা গ্রহণ করতে দেখা গেছে। প্রতিটি কেন্দ্রেই পূর্বনির্ধারিত ঘোষণা অনুযায়ী আধাঘণ্টা আগে অর্থাৎ সকাল সাড়ে ৯টার মধ্যেই পরীক্ষার্থীরা প্রবেশ করে। কেন্দ্রগুলোর প্রবেশদ্বারে কর্তৃপক্ষ তাপমাত্রা মাপার যন্ত্র দিয়ে পরীক্ষার্থীদের শরীরের তাপমাত্রা মাপেন। কেন্দ্রগুলোতে রাখা হয়েছে পর্যাপ্ত হ্যান্ডসেনিটাইজার ও মাস্ক। পরীক্ষার্থীদেরকেও মাস্ক পরে আসার নির্দেশনা হয়। প্রতিটি বেঞ্চে একজন হরে পরীক্ষার্থীকে বসানো হয়েছে। পরীক্ষার প্রথম দিনেই সকালে জেলা প্রশাসক তমিজুল ইসলাম খান এবং জেলা শিক্ষা অফিসার একেএম গোলাম আযম যশোর জিলা স্কুলসহ কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন করেন। পরীক্ষা গ্রহণের ক্ষেত্রে সরকারি বিধিনিষেধ মানা হচ্ছে কি না তাও তদাকরি করেন তারা।

এদিকে, যশোর বোর্ডে ২৯১টি কেন্দ্রে এসএসসি পরীক্ষার প্রথম দিনে পদার্থবিজ্ঞানে ১৭১ জন পরীক্ষার্থী অনুপস্থিত ছিলো। যা গত বছরের এসএসসি পরীক্ষায় এই বিষয়ে অনুপস্থিত ছিলো ৬৬৪ জন। এর মধ্যে খুলনায় ৫৮টি কেন্দ্রে ৬ হাজার ৪শ’৪৬ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উপস্থিত ছিলো ৬ হাজার ৪শ’৭ জন। অনুপস্থিত ছিলো ৩৯ জন। বাগেরহাটে ২৭টি কেন্দ্রে ২ হাজার ৫শ’৬৭ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উপস্থিত ছিলো ২ হাজার ৫৪৯ জন। অনুপস্থিত ছিলো ১৮ জন। সাতক্ষীরায় ২৭টি কেন্দ্রে ৩ হাজার ৯৭ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উপস্থিত ছিলো ৩ হাজার ৮৭ জন। অনুপস্থিত ছিলো ১৫ জন। কুষ্টিয়ায় ৩০টি কেন্দ্রে ৭ হাজার ৭৬৩ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উপস্থিত ছিলো ৭ হাজার ৭৩৭ জন। অনুপস্থিত ছিলো ২৬ জন। চুয়াডাঙ্গায় ১৭টি কেন্দ্রে ২ হাজার ২৯৪ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উপস্থিত ছিলো ২ হাজার ২৮২ জন। অনুপস্থিত ছিলো ১২ জন। মেহেরপুরের ১৩টি কেন্দ্রে ১ হাজার ৭৩১ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উপস্থিত ছিলো ১ হাজার ৭২৫ জন। অনুপস্থিত ছিলো ৬ জন। যশোরে ৫২টি কেন্দ্রে ৫ হাজার ৬২১ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উপস্থিত ছিলো ৫ হাজার ৬ শ’। অনুপস্থিত ছিলো ২১ জন। নড়াইলে ১৪টি কেন্দ্রে ১ হাজার ৪৮২ পরীক্ষার্থীর মধ্যে উপস্থিত ছিলো ১ হাজার ৪৬৯ জন। অনুপস্থিত ছিলো ১৩ জন। ঝিনাইদহ ৩৬ টি কেন্দ্রে ৩ হাজার ৩৩০ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উপস্থিত ছিলো ৩ হাজার ৩১৬ জন। অনুপস্থিত ছিলো ১৪ জন। মাগুরায় ১৭টি কেন্দ্রে ১ হাজার ৬৯৫ পরীক্ষার্থীর মধ্যে ১ হাজার ৬৮৮ জন উপস্থিত ছিল। অনুপস্থিত ছিলো ৭ জন।

মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ড যশোরের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর মাধব চন্দ্র রুন্দ্র জানান, ২০২১ সালের এসএসসি পরীক্ষার প্রথম দিনে পদার্থবিজ্ঞান পরীক্ষায় যশোর বোর্ডে অনুপস্থিত পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ১৭১ জন। সব পরীক্ষা কেন্দ্রের সার্বিক পরিস্থিতি ভালো ছিল।

শেয়ার