টি২০ বিশ্বকাপের প্রথম সেমিফাইনাল আজ ব্রিটিশ বধে মাঠে নামছে ব্ল্যাক ক্যাপসরা

সমাজের কথা ডেস্ক॥ শেষ ল্যাপে চলে এসেছে টি২০ বিশ্বকাপ ২০২১ । গ্রুপ স্টেজ, সুপার ১২-এর লড়াইয়ের পর এবার সামনে মেগা সেমি ফাইনাল । আজ বুধবার টি২০ বিশ্বকাপের প্রথম সেমিফাইনালে মুখোমুখি হতে চলেছে ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ড। একদিকে ২০১৯ একদিনের বিশ্বকাপ ফাইনাল ও তা জয়ের পর আরও এক বিশ্বকাপ ফাইনালে ওঠার হাতছানি ইয়ন মর্গ্যানের দলের সামনে। অপরদিকে, ২০১৫ ও ২০১৯ পরপর দুটি একদিনের বিশ্বকাপের ফাইনালে হারের পর আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের বিশ্বজয় করে আইসিসি ট্রফিতে চোকার্স তকমা ঘুচিয়েছে কিউইরা। এবার টি২০ বিশ্বকাপের ফাইনালে যেতে মরিয়া কেন উইলিয়ামসনের। ২০১৯ একদিনের বিশ্বকাপ ফাইনালের রুদ্ধশ্বাস ম্যাচ এখনও স্মরণে রয়েছে সকলের। কীভাবে ৫০-৫০ ওভার ও সুপার ওভার টাই হওয়ার পর, বাউন্ডারি মারার নিরিখে কিউইদের হারিয়ে প্রথমবার বিশ্ব জয় করেছিল ব্রিটিশ লায়ন্সরা। সেই হারের বদলা নিতে মুখিয়ে রয়েছে ব্ল্যাক ক্যাপসরা। অপরদিকে, ২০১৯ এর পুনরাবৃত্তি টি২০ সেমি ফাইনালে আরও একবার জয়ের হাসি হাসাই লক্ষ্য ইংল্যান্ডের।

আত্মিবিশ্বাসী ইংল্যান্ড : টি২০ বিশ্বকাপের ওয়ার্মআপ ম্যাচে ভারতের কাছে হারতে হয়েছিল ইংল্যান্ড দলকে। কিন্তু সুপার ১২ রাউন্ডের খেলা শুরু হতে সম্পূর্ণ ভিন্ন দলকে দেখল ক্রিকেট বিশ্ব। শেষ ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে লড়াই করে হারলেও, টানা চারটি ম্যাচ জিতে সবার প্রথম দল হিসেবে সেমি ফাইনালে জায়গা পাকা করেছিল ইয়ন মর্গ্যানের দল। তবে সেমি ফাইনালে চোটের কারণে তারকা ওপেনার জেসন রয়কে পাচ্ছে না ইংল্যান্ড দল। তবে জস বাটলার, ডেভিড মালান, জনি বেয়ারস্টো, লিভিংস্টোন, মইন আলি ব্যাট হাতে অভিজ্ঞতা ও ফর্ম ভরসা দিচ্ছে দলকে। সেমিতে নিজের পুরোনো ছন্দে ফিরতে মরিয়া অধিনায়ক মর্গ্যানও। দক্ষিণ আফ্রিকা ম্যাচ বাদ দিলে বল হাতে ভালো ফর্মে রয়েছেন মার্ক উড, আদিল রসিদ, ক্রিস জর্ডান, ক্রিস ওকসরা। সব মিলিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা ম্য়াচের ফলাফলের কথা ভুলে বুধে কিউই বধ করার বিষয়ে আত্মবিশ্বাসী ইংল্যান্ড দল।

ফাইনালে উঠতে বদ্ধপরিকর নিউজিল্যান্ড : অপরদিকে, বিশ্বকাপে সুপার ১২-এর শুরুটা পাকিস্তানের বিরুদ্ধে হার দিয়ে করেছিল নিউজিল্যান্ড। কিন্তু তারপরই ঘুড়ে দাঁড়ায় কেন উইলিয়ামসনের দল। পরপর চারটি ম্যাচে দাপটের সঙ্গে ভারত, আফগানিস্তান, নামিবিয়া, স্কটল্যান্ডকে হারিয়ে শেষ চারের টিকিট পাকা করেছে ব্ল্যাক ক্যাপসরা। ব্যাট হাতে দারুণ ছন্দে রয়ছেন মার্টিন গাপটিল, ডায়ার্ল মিচেল,কেন উইলিয়ামসন, ডেভন কনওয়েরা। বোলিং লাইনআপে ইশ সধি ও মিচেল স্যান্টনারের স্পিনের ছোঁবল ও অ্যাডাম মিলনে, ট্রেন্ট বোল্ট, টিম সাউদির পেস ভরসা দিচ্ছে দলকে। বিশেষ করে মরুদেশের উইকেটে ইংল্যান্ডের থেকে স্পিন অ্যাটাক বেশি শক্তিশালী। সব মিলিয়ে ২০১৯ বিশ্বকাপ ফাইনালে হারের বদলা ২১-এ টি২০ বিশ্বকাপের সেমি ফাইনালে নিতে মরিয়া কিউইরা।

ম্যাচ প্রেডিকশন : সুপার ১২ রাউন্ডে দুই দলই ৫টির মধ্যে চারটি করে জয় পেয়েছে। শক্তির বিচার করলে নিউজিল্যান্ডের থেকে ইংল্যান্ডের ব্যাটিং একটু বেশি শক্তিশালী, অপরদিকে বোলিং বিভাগে শক্তির নিরিখে এগিয়ে রাখতেই হচ্ছে নিউজিল্যান্ডকে। আবু ধাবির উইকেটও ব্যাটিং-বোলিং দুই ক্ষেত্রেই সমান। রাতে খেলা হওয়ায় ক্রিকেট বিশেষজ্ঞদের মতে, যেই দল টস জিতে প্রথমে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নেবে তারা কিছুটা এগিয়ে থাকবে।

শেয়ার