বেড়গোবিন্দপুরে ভোট কেন্দ্র স্থানান্তরে আপত্তি জানিয়ে নির্বাচন অফিসার বরাবর স্মারকলিপি

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ যশোরের চৌগাছা উপজেলার চৌগাছা ইউনিয়ন পরিষদের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের (বেড়গোবিন্দপুর) একটি ভোট কেন্দ্র স্থানান্তর নিয়ে দ্বিধাবিভক্ত এলাকাবাসী। স্থানীয় ইবতেদায়ী মাদরাসায় ভোট কেন্দ্রটি স্থানান্তরে আপত্তি জানিয়েছেন এলাকাবাসীর একাংশ। ওই মাদরাসা বাদে অন্য জায়গায় ভোট কেন্দ্র স্থানান্তরের দাবিতে সোমবার জেলা নির্বাচন অফিসার বরাবর স্মারকলিপি দেয়া হয়েছে। এর আগে অর্ধশতাধিক নারী পুরুষ একই দাবিতে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় চত্বরে ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন করেন।

স্মারকলিপিতে এলাকাবাসীর পক্ষে স্বাক্ষর করেছেন ৬ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বর প্রার্থী বাবুল আক্তার, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি কামরুজ্জামান মানিক, বর্তমান সভাপতি নাজিম উদ্দীন সরদার, সাধারণ সম্পাদক আবদুর রশিদ, ওয়ার্ড স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আক্তারুজ্জামান পাভেল ও সাধারণ সম্পাদক তবিবর রহমান।

তাদের দাবি, আগামি ১১ নভেম্বর চৌগাছা ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ভোটের আগে ৬ নম্বর ওয়ার্ডের (বেড়গোবিন্দপুর) ভোট কেন্দ্রটি স্থানান্তর করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ভুল তথ্য দিয়ে কৌশলে মেম্বর প্রার্থী মহব্বত আলী ও মহিলা মেম্বর প্রার্থী শাহানারা খাতুনকে সুবিধা দিতে তাদের বাড়ি সংলগ্ন মাদরাসায় কেন্দ্রটি স্থানান্তর করা হচ্ছে। জনস্বার্থ বিবেচনায় কেন্দ্রটি পূর্বের স্থান অথবা কমিউনিটি ক্লিনিকে স্থানান্তরের দাবি করা হোক।

এ বিষয়ে চৌগাছা উপজেলা নির্বাচন অফিসার সেলিম রেজা বলেন, আগে ব্র্যাক স্কুলে কেন্দ্রটি ছিল। বর্তমানে সেই স্কুল আর নেই। এজন্য কেন্দ্র স্থানান্তরের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। জেলা নির্বাচন অফিসার সরেজমিনে পরিদর্শন করে সম্ভাব্য তিনটি জায়গার সুবিধা-অসুবিধা উল্লেখ করে নির্বাচন কমিশনে রিপোর্ট পাঠিয়েছেন। নির্বাচন কমিশন এখনো সিদ্ধান্ত নেয়নি। এক প্রশ্নের জবাবে সেলিম রেজা বলেন, ওই কেন্দ্রে ১২শ’র বেশি ভোটার রয়েছে। ছয়জন প্রার্থীর এজেন্ট, নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের বসার জায়গা হবে না ওই কমিউনিটি ক্লিনিকে। সেখানে ছোট ছোট মাত্র দুটি কক্ষ রয়েছে। অপরদিকে ইবতেদায়ী মাদরাসায় কক্ষ সংকট নেই। সামনে ফাঁকা জায়গাও আছে। কেন্দ্রটি স্থানান্তর নিয়ে এলাকাবাসী দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে পড়েছে।

 

 

 

শেয়ার