সারাদেশে হামলা ভাঙচুরের প্রতিবাদে বিভিন্ন স্থানে মানববন্ধন, বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ কুমিল্লাসহ সারাদেশে মন্দিরে হামলা, প্রতীমা ভাংচুর ও হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের উপর হামলা ও বাড়িঘর ভাংচুরের প্রতিবাদে যশোরসহ বিভিন্ন স্থানে মানববন্ধন, বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।
গতকাল যশোর শহরে বিক্ষোভ মিছিল করেছে জেলা, সদর উপজেলা ও পৌর পূজা উদযাপন পরিষদ। শনিবার বিকেলে শহরের লালদীঘিপাড়ের হরিসভা মন্দির প্রাঙ্গনে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এতে বক্তব্য রাখেন জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি অসীম কুণ্ডু, সহসভাপতি দীপক কুমার রায়, সাধারণ সম্পাদক যোগেশ দত্ত, সদর উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি দেবেন ভাস্কর প্রমুখ। সমাবেশ শেষে মিছিল বের হয়। মিছিলটি শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তারা বলেন, শারদীয় দুর্গাপূজা মন্দির ভাংচুর ও বাড়িতে হামলার ঘটনায় সারাদেশের হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা আতংকে রয়েছে। তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। একই সঙ্গে ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান ও হিন্দুধর্মাবলম্বীদের বাড়িতে হামলা ও ভাংচুরে জড়িতদের চিহ্নিত করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। অতীতে ঘটনায় দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি না হওয়ায় বারবার এমন ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটছে।

বাগেরহাট প্রতিনিধি জানান, প্রতিমাসহ বাড়িঘর ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ভাংচুর লুটপাটের প্রতিবাদে বাগেরহাটে জাতীয় হিন্দু মহাজোট শনিবার বেলা ১১টায় বাগেরহাট প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে। সারাদেশে এক যোগে এই মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করছে এই সংগঠনটি।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, বাংলাদেশের সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষ নির্যাতন নীপিড়নের মধ্যে জীবনযাপন করছি। আমাদের এই মানসিক কষ্টের কথা জানাতে রাজপথে দাঁড়িয়েছি। আমরা এই দেশে জন্মেছি, আমরা এই দেশের নাগরিক। আমরা যদি এই দেশে বসবাস করতে না পারি তাহলে সরকার বলে দিক কিভাবে জীবনযাপন করব, কোথায় যাব?

মানববন্ধনে বক্তব্য দেন বাগেরহাট জেলা জাতীয় হিন্দু মহাজোটের সভাপতি রবীন্দ্রনাথ দেবনাথ, সাধারণ সম্পাদক জুড়ান চন্দ্র মন্ডল, জেলা জাতীয় হিন্দু ছাত্র মহাজোটের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নয়ন পাল নিলয়, সাংগঠনিক সম্পাদক অন্তর ঘরামী, জেলা জাতীয় হিন্দু যুব মহাজোটের সভাপতি মনোরঞ্জন হালদার, কোষাধ্যক্ষ বাপন মজুমদার প্রমুখ।

শেয়ার