‘ইতিহাস’ গড়তে চান জামাল

সমাজের কথা ডেস্ক॥ ২০০৫ সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে সবশেষ ফাইনাল খেলার পর কেটে গেছে ১৬ বছর। সাফের ৬টি আসর। কিন্তু শিরোপা লড়াইয়ের মঞ্চে ওঠা হয়নি বাংলাদেশের। নেপাল ম্যাচ সামনে রেখে অধিনায়ক জামাল ভূইয়া জানালেন, ব্যর্থতার বৃত্ত থেকে বেরিয়ে আসার প্রত্যয়।

মালদ্বীপের রাজধানী মালের রাশমি ধান্দু স্টেডিয়ামে বুধবার বাংলাদেশ সময় বিকাল ৫টায় মুখোমুখি হবে দুই দল। ৬ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে নেপাল। ৪ পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থ স্থানে বাংলাদেশ।
প্রথমবারের মতো সাফের ফাইনাল খেলতে ড্রই যথেষ্ট হবে নেপালের জন্য। অন্যদিকে, জয় ছাড়া বিকল্প পথ খোলা নেই ২০০৩ সালে প্রথম ও সবশেষ এ আসরের শিরোপা জেতা বাংলাদেশের সামনে।

গত সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে নেপালের কাছে হেরে গ্রুপ পর্ব থেকে ছিটকে পড়েছিল বাংলাদেশ। ওই ম্যাচেও ঠিক একইরকম পরিস্থিতিতে ছিল তারা। সেদিন বাংলাদেশ হেরে যায় ২-০ গোলে। এবার অবশ্য ভালো কিছুর ব্যাপারে আশাবাদী জামাল। মালদ্বীপে থাকা বাংলাদেশিদের সমর্থনও আশা যোগাচ্ছে তাকে।

“(মালদ্বীপের বাংলাদেশি সমর্থকদের থেকে) ভালো সাড়া পেয়েছি। আশা করছি কালও পাব। আশা করি, তারা বেশি করে টিকেট পাবে। শেষ ম্যাচে পায়নি কেন, জানি না। আশা করি, তারা ম্যাচ উপভোগ করতে পারবে। ভালো ম্যাচ হবে। আমরা জয়ের জন্য খেলব।”

মালদ্বীপের বিপক্ষে ২-০ গোলে হারের পর পাঁচ দিন বিশ্রাম পেয়েছে বাংলাদেশ। সতেজ হয়ে মাঠে ফিরতে পারায় ‘ইতিহাস’ গড়তে আশাবাদী জামাল।

“অতীত নিয়ে বেশি কথা বলতে চাই না। ওরা শক্তিশালী দল। তবে আমাদের দলেও বিপিএলের (বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ) সেরা খেলোয়াড় খেলছে। আগামীকাল ইতিহাস গড়তে পারব। খেলোয়াড়রা এটা জানে। ফাইনালে জাগয়া করে নিতে চাই। আগামীকাল সতেজ বাংলাদেশ দল খেলবে।”

শেয়ার