যশোরে নারীকে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোরে এক নারীকে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণের অভিযোগে আল আমিন নামে এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। আটক আল আমিন ধর্ষণের দায় স্বীকার করে গত মঙ্গলবার জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন। বিচারক অতিরিক্ত চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মারুফ আহমেদ জবানবন্দি শেষে তাকে জেলহাজতে প্রেরণের আদেশ দিয়েছেন। আসামি আল আমিন যশোর সদর উপজেলার দেয়াড়া ইউনিয়নের ইছাপুর গ্রামের আলমগীরের ছেলে।
ওই নারী কোতোয়ালি মডেল থানার মামলায় বলেছেন, ৭ বছর পূর্বে তার বিয়ে হয়েছিল। সেই স্বামীর পক্ষে তার একটি ছেলে সন্তান রয়েছে। ৩ বছর আগে স্বামীর সাথে বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটে। বিচ্ছেদের পর আল আমিনের সাথে মোবাইল ফোনের মাধ্যেমে ওই নারীর পরিচয় হয়। কথা বার্তার এক পর্যায় আল আমিন তাকে বিয়ের প্রস্তাব দেয়। কিন্তু এরই মধ্যে ওই নারী ফরিদপুর জেলায় তার খালা বাড়ি বেড়াতে যান। আসামি আল আমিনের সাথে মোবাইলে কথা বলার পরে গত ১৮ সেপ্টেম্বর তাকে সেখান থেকে বিয়ে করার কথা বলে যশোরে নিয়ে আসে। এদিন সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টার ছেলেসহ তাকে আল আমিনের ইছাপুর গ্রামের বাড়িতে নিয়ে যায়। ১৯ সেপ্টেম্বর ভোর ৩টা থেকে ৪ টার মধ্যে আল আমিন বাদীকে ধর্ষণ করে। পরবর্তীতে আসামি বাদীকে বিয়ে না করে ১৯ সেপ্টেম্বর সকাল সাড়ে ৮ টায় তাকে আবার খালা বাড়ি ফরিদপুরের উদ্দেশ্যে আল আমিনসহ রওনা করে। উপশহর বাসস্ট্যান্ড থেকে বাসে উঠে কিছু দুর গিয়ে ওই নারী দেখেন আল আমিন নেই। পাশাপাশি আল আমিনের ব্যবহৃত মোবাইল ফোনও বন্ধ করে রাখে। এসময় তার সন্দেহ হয়। পরে বাস থেকে নেমে থানায় এসে অভিযোগ করেন। পরে পুলিশ আল আমিনকে আটকের পর গত মঙ্গলবার আদালতে হাজির করা হলে জবানবন্দি দেয়।

শেয়ার