যশোরে স্ত্রীর নামে যৌতুক মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ বিয়ের এক বছরের মাথায় স্বামীর কাছে যৌতুক হিসেবে ১০ কাঠা জমি দাবি করার অভিযোগে স্ত্রী সোমাইয়া আক্তার মীমের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা হয়েছে। গতকাল রোববার সদর উপজেলার চাঁদপাড়া গ্রামের আব্দুর রহমান জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এই মামলা করেন। অতিরিক্ত চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মারুফ আহমেদ মামলাটি তদন্ত পূর্বক প্রতিবেদন দাখিলের জন্য ফতেপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানকে নির্দেশ দিয়েছেন। আসামি সোমাইয়া আক্তার মীম যশোর শহরতলীর শেখহাটি বাবলাতলার শাহীন হোসেনের মেয়ে।

মামলা সূত্র মতে, আব্দুর রহমান ২০২০ সালের ২১ অক্টোবর পারিবারিক ভাবে মীমকে বিয়ে করেন। এরপর মীম উচ্চাভিলাসী জীবনযাপন শুরু করেন। নামীদামি জিনিসপত্র এনে দিতে ব্যর্থ হলে মীম স্বামী আব্দুর রহমানের সাথে খারাপ ব্যবহার ও সংসারে অশান্তি সৃষ্টি করেন। একপর্যায়ে মীম নিজের নামে ১০ কাঠা জমি লিখে দেয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করতে থাকে স্বামীকে। বিষয়টি আব্দুর রহমান শ্বশুর বাড়ির লোকজনদের জানালে তারা কর্ণপাত করেনি। গত ২ সেপ্টম্বর আব্দুর রহমানের শাশুড়ি তার বাড়িতে আসেন। মীমের যৌতুকের বিষয়টি নিয়ে কথা উঠলে দাবিকৃত ১০ কাঠা জমি তার নামে লিখে না দিলে সংসার করবেনা বলে জানিয়ে চলে যায়। বিষয়টি স্থানীয়ভাবে মিমাংসায় ব্যর্থ হয়ে আব্দুর রহমান যৌতুক নিরোধ আইনে আদালতে এই মামলা করেছেন। বিচারক মামলাটি তদন্ত পূর্বক প্রতিবেদন দাখিলের জন্য সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যানকে নির্দেশ দিয়েছেন।

শেয়ার