আইইডি যশোরের আয়োজনে ‘সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কুতথ্য প্রতিরোধে’ করণীয় বিষয়ে কর্মশালা

ইনস্টিটিউট ফর এনভায়রনমেন্ট অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (আইইডি) যশোর কেন্দ্রের আয়োজনে রোববার সকাল ৯ টায় বাঁচতে শেখা কনফারেন্স রুমে, ‘সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কুতথ্য প্রতিরোধে’ করণীয় বিষয়ে স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা শিক্ষার্থী এবং ঝরেপড়া শিক্ষার্থীদের সাথে কর্মশালা’র আয়োজন করা হয়। কর্মশালায় প্রধান অতিথি ছিলেন যশোর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. মোল্লা আমীর হোসেন। কর্মশালায় ফ্যাসিলিটেটর হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন হাফিজ আদনান রিয়াদ, কর্মশালায় উপস্থিত ছিলেন যশোর জিলা স্কুলের সিনিয়র শিক্ষক জামাল উদ্দিন, আইইডি যশোর কেন্দ্রের ব্যবস্থাপক বীথিকা সরকার। এই কর্মশালায় ৪০ জন অংশ গ্রহণ করেন।

কর্মশালায় আলোচকবৃন্দ বলেন, পরিবর্তনের সাথে খাপ খাওয়াতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারে মনোজগতের পরিবর্তন ও সক্ষমতা জরুরি। সম্প্রীতি ও সৌহার্দ্যরে এ দেশে আমরা বিভিন্ন জাতি-গোষ্ঠী-ধর্ম-স্তর-লিঙ্গের মানুষ সমাজে মিলে মিশে বসবাস করে। কিন্তু অনেক সময় নিয়মানুযায়ী ও সঠিকভাবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার না করে কুতথ্য ছড়িয়ে সমাজে সম্প্রীতি নষ্ট ও অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করা হয়। যার ফলে বিভিন্ন স্থানে অযাচিত বিরোধ, দ্বন্দ¦, সংঘাত ও হতাহতের ঘটনা ঘটছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারের নিয়ম জানা; কুতথ্য না ছড়ানো ও প্রয়োজনে প্রতিহত করা, সমাজ ও রাষ্ট্রকে গুরুত্ব দেওয়া; সুশাসন এবং সকলের সমমর্যাদা ও অধিকার রক্ষা করা জরুরি। সমাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কুতথ্য প্রতিরোধে সচেতনতা ও সক্ষমতা অর্জন এবং দায়িত্বশীল চর্চা করে সমাজে সম্প্রীতি ও সোহার্দ্য রক্ষা করা দায়িত্ব সকলের।
দি এশিয়া ফাউন্ডেশনের সহায়তায় স্ট্রেনদেনিং ট্র্যাডিশনাল সিভিল সোসাইটি (টিসিএস) টু কমবার্ট ডিজিটাল ডিসইনফরমেশন ইন বাংলাদেশ প্রকল্পের শিরোনামে আইইডি কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে। -সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

শেয়ার