‘সাহারা অঞ্চলের আইএস প্রধান নিহত হয়েছেন’

সমাজের কথা ডেস্ক॥ বৃহত্তর সাহারা অঞ্চলে জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের (আইএস) প্রধান আদনান আবু ওয়ালিদ আল-সাহরাবি ফরাসি সেনাদের হাতে নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ।

২০১৫ সালে আইএস এর সাহারা শাখা (আইএসজিএস) প্রতিষ্ঠা করেছিলেন আবু ওয়ালিদ।
বিবিসি জানায়, এ গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে ২০২০ সালে ফরাসি ত্রাণকর্মীদের নিশানা বানিয়ে হত্যা করার অভিযোগ আছে। সাহারা অঞ্চলে বেশিরভাগ হামলার জন্যও এ গোষ্ঠীকে দায়ী করা হয়।
আবু ওয়ালিদের মৃত্যুকে সন্ত্রাসবিরোধী লড়াইয়ের বড় সাফল্য হিসেবে অভিহিত করেছেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁ। তিনি বলেন, “সাহেল অঞ্চলে সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলোর বিরুদ্ধে আমাদের লড়াইয়ে এটি আরও একটি বড় সফলতা।”

তবে আবু ওয়ালিদের বিরুদ্ধে কোথায়, কখন অভিযান চালানো হয়েছে সে বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানাননি ম্যাক্রোঁ।

ফরাসি প্রতিরক্ষামন্ত্রী এক টুইট বার্তায় বলেছেন, ফ্রান্সের অপারেশন বারখান ফোর্সের বিমান হামলায় নিহত হয়েছেন আবু ওয়ালিদ। ফ্রান্সের এই বাহিনী সাহেল অঞ্চলে বিশেষ করে মালি, নাইজার, শাদ এবং বুরকিনা ফাসোতে আইএস এর বিরুদ্ধে লড়াই করছে।

আফ্রিকার সাহারা মরুভূমি ও এর আশপাশের ৩০ লাখ স্কয়ার মাইলজুড়ে বিস্তীর্ণ অঞ্চল সাহেল। এর পশ্চিমে আছে সেনেগাল আর পূর্বে সোমালিয়া। আল-কায়েদা ও আইএস-সহ বেশ কয়েকটি জিহাদি গোষ্ঠী এ অঞ্চলে সক্রিয়।

আবু ওয়ালিদ নিহত হওয়া ‘জঙ্গি গোষ্ঠী আইএস এর জন্য একটি বড় ধাক্কা’ এবং ‘লড়াই এখনও চলছে’ বলে জানিয়েছেন ফরাসি প্রতিরক্ষামন্ত্রী।

১৯৭৩ সালে পশ্চিম সাহারার বিতর্কিত ভূখন্ডে জন্মগ্রহণ করেন আবু ওয়ালিদ। তিনি পোলিসারিও ফ্রন্টের সদস্য ছিলেন। এই ফ্রন্ট মরক্কো থেকে স্বাধীনতার জন্য লড়াই করছে। পরে ওয়ালিদ আল কায়েদা ইন দ্য ইসলামিক মাগরেবে (একিউআইএ) যোগ দেন।

গত বছর অগাস্টে ছয় ফরাসি ত্রাণ কর্মী, তাদের নাইজেরীয় গাইড এবং গাড়ি চালকদের হত্যার নির্দেশ ওয়ালিদই দিয়েছিলেন বলে জানিয়েছেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁ।

শেয়ার