যশোরে অভ্যন্তরীণ বিরোধে হত্যা চেষ্টা মামলার আসামি আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ যশোরে অভ্যন্তরীণ বিরোধে ম্যানসেল বাহিনীর ছুরিকাঘাতে বনিকে হত্যা চেষ্টা মামলার আসামি ভোলা ওরফে তোহিদুলকে আটক করেছে পুলিশ। এসময় তার কাছ থেকে একটি বার্মিজ চাকু উদ্ধার করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে শহরের রেলগেট এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। আটক ভোলা শহরের শংকরপুর আশ্রম রোড গাড়োয়ান পট্টির সামাদের ছেলে।

বাদী শংকরপুর আশ্রম রোড গাড়োয়ানপট্টির চিহ্নিত সন্ত্রাসী বনির স্ত্রী পাখি খাতুন মামলায় বলেছেন, আসামিরা এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী। তারা এলাকায় লোকজনদের মারপিটসহ নানাভাবে নির্যাতন চালিয়ে আসছে। এদিকে বাদীর স্বামীর সাথে আসামিদের পূর্ব বিরোধ চলে আসছে। সে কারণে ঘটনার দিন ১০ সেপ্টেম্বর দুপুর দেড়টার দিকে সকল আসামি বাদীর বাড়িতে স্বশস্ত্র অবস্থায় প্রবেশ করে। প্রথমে বাদীর স্বামীকে গালিগালাজ করে। গালিগালাজ করতে নিষেধ করায় তাকে এলোপাতাড়িভাবে ছুরিকাঘাত করে। এসময় বাদী ঠেকাতে গেলে তাকেও মারপিটসহ শ্লীলতাহানি ঘটায়। একই সাথে তার গলায় থাকা এক ভরি ওজনের স্বর্ণের চেইন ছিনিয়ে নেয়। এসময় বাদীর চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে প্রকাশ্যে হত্যার হুমকি দিয়ে চলে যায়। এরপরে বনিকে উদ্ধার করে প্রথমে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে ওইদিনই উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়। এরপরে ও তার অবস্থা খারাপ হওয়ায় বর্তমানে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এই ঘটনার মামলায় চারজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরো ২/৩ জনকে আসামি করা হয়েছিল। কিন্তু ভোলাকে আটক করেছে। অন্যরা পলাতক রয়েছে।

শেয়ার