যশোরে একজনকে অপহরণ ও চাঁদা দাবিতে মারপিটের অভিযোগে থানায় মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ যশোরে প্রাইভেট কোম্পানির কর্মকর্তা মনিরুজ্জামানকে অপহরণ ও চাঁদাদাবিতে মারপিটের অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে। গত রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে শহরের শংকরপুর কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল এলাকার যশোর কলেজ রোডের এ ঘটনার পর রাতেই কোতোয়ালি থানায় এই মামলা করেন ভুক্তভোগী মনিরুজ্জামান। মামলায় তিনজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরো ২/৩ জনকে আসামি করা হয়েছে।

আসামিরা হলো, শহরের শংকরপুর গোলপাতা মসজিদ পাড়ার আলীর ছেলে সুইট, জমাদ্দারপাড়ার নুর নবীর বস্তির মৃত আমিনুলের ছেলে মনির ও সেলিমের ছেলে রায়হান ওরফে ওমর। বাদী মামলায় বলেছেন, তিনি কুষ্টিয়ার কুমারখালি উপজেলার কাঞ্চনপুর গ্রামের বাসিন্দা। বর্তমানে তিনি সোলার পাওয়ার লিমিটেড কোম্পানিতে টেরিটরি সেলস ম্যানেজার পদে চাকরি করেন। চাকরির সুবাদে গত রোববার ১২ সেপ্টেম্বর গড়াই পরিবহনে চড়ে যশোর কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালে বেলা ১১টার দিকে নামেন। এরপর পায়ে হেটে যশোর কলেজ রোড দিয়ে শহরের দিকে যাচ্ছিলেন। কলেজ গেট পার হলেওই একটি দুইতলা বিল্ডিংয়ের সামনে পৌছানো মাত্র ৪/৫জন সন্ত্রাসী অস্ত্রের মুখে তাকে জিম্মি করে ফেলে। এরপর তাকে একটি ঘরের মধ্যে আটকে রেখে এক লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। টাকা না দেয়ায় মারপিট শুরু করে। এক পর্যায় তার এক আত্মীয়ের কাছে মোবাইল করে ১৫ হাজার টাকা বিকাশ করে এনে দেন। কিন্তু এতেও ওই সন্ত্রাসীরা সন্তুষ্ট না হয়ে তাকে আবারো রমারপিট করে। কিছুক্ষণ পরে অন্য দুইজনে বাইরে গেলে সা্েযথ থাকা সন্ত্রাসী সুইটকে ধাক্কা মেরে বাইরে এসে চিৎকার দেন। পরে আশপাশের লোকজন এবং থানা পুলিশ খবর পেয়ে তাকে উদ্ধার করে।

শেয়ার